• সোমবার, ১৬ সেপ্টেম্বর ২০১৯, ১ আশ্বিন ১৪২৬  |   ২৯ °সে
  • বেটা ভার্সন

সর্বশেষ :

নিজ দেশে ফিরে যেতে রোহিঙ্গাদের দুই শর্ত||এ পি জে আব্দুল কালামের স্মৃতিতে ভূষিত প্রধানমন্ত্রী  ||উদ্বেগ থাকলেও ভারতের ওপর বিশ্বাস রাখতে চাই : পররাষ্ট্রমন্ত্রী ||ছাত্রলীগের চাঁদাবাজি ঢাকতেই ছাত্রদলের কাউন্সিল বন্ধ : রিজভী ||কাশ্মীরে জঙ্গি অনুপ্রবেশের অভিযোগে সীমান্তে‌ হাই অ্যালার্ট||ভারতের পর এবার বিশ্বকে পরমাণু যুদ্ধের হুঁশিয়ারি পাকিস্তানের||সোমবার আনুষ্ঠানিক দায়িত্ব নেবেন ভারপ্রাপ্ত সভাপতি-সাধারণ সম্পাদক||মেক্সিকোয় কুয়া থেকে ৪৪ মরদেহ উদ্ধার করল বিজ্ঞানীরা||অন্যায় করলে কাউকে ছাড় দেওয়া হবে না : কাদের    ||সৌদির তেল স্থাপনাতে হামলায় ইরানকে দায়ী করল যুক্তরাষ্ট্র

অধ্যক্ষ সমঝোতা করলেও ছাড় দেয়নি শিক্ষার্থীরা

  সোহেল রানা, সিরাজগঞ্জ

২৩ জানুয়ারি ২০১৯, ১৮:১১
নির্মাণাধীন ভবন
কামারখন্দের সরকারি হাজী কোরপ আলী কলেজের নির্মাণাধীন একাডেমিক ভবন (ছবি- দৈনিক অধিকার)

নিম্নমানের ইট দিয়ে নির্মাণ করা হচ্ছে কলেজের একাডিমক ভবন। ঠিকাদারের বিরুদ্ধে এমন অভিযোগ এনে কাজ বন্ধ করে দেন অধ্যক্ষ। পরে ঠিকাদারের সঙ্গে অধ্যক্ষের সমঝোতা হলেও ছাড় দেয়নি শিক্ষার্থীরা। নির্মাণ কাজ বন্ধ করে দিয়েছেন তারা।

সারেজমিনে দেখা যায়, মাঝ পথে বন্ধ রয়েছে সিরাজগঞ্জের কামারখন্দের সরকারি হাজী কোরপ আলী মেমোরিয়াল ডিগ্রি কলেজের চারতলা একাডেমিক ভবনের নির্মাণ কাজ। নিম্ন মানের ইট ব্যবহারের অভিযোগে কাজ বন্ধ রয়েছে।

জানা যায়, শিক্ষা প্রকৌশল অধিদপ্তরের তত্ত্বাবধানে ২ কোটি প্রায় ৪৫ লাখ টাকা ব্যয়ে গত বছর (২০১৮ সালের ১ এপ্রিল) এ কলেজের একাডেমিক ভবনের নির্মাণ কাজ উদ্বোধন করা হয়। নির্মাণ শুরুর পর নিম্নমানের ইট, সিমেন্ট ও খোয়া ব্যবহার করায় কলেজ কর্তৃপক্ষ কাজটি বন্ধ করে দেয়। পরবর্তীতে ঠিকাদারি প্রতিষ্ঠান অধ্যক্ষের সঙ্গে সমঝোতা করে পুনরায় আবারও নিমাণ শুরু করে। এতে ক্ষিপ্ত হয়ে কলেজের শিক্ষার্থীরা চলতি মাসের গত সপ্তাহে নির্মাণ কাজটি বন্ধ করে দেয়। 

কলেজ ছাত্রলীগের সভাপতি এনামুল হক বিজয় ও সাধারণ সম্পাদক মাসুদ পারভেজ মুন্না অভিযোগ করে বলেন, চারতলা একাডেমিক ভবন নির্মাণ উদ্বোধন শুরু থেকেই নিম্নমানের ইট, সিমেন্ট ও খোয়া ব্যবহার করে। প্রথমে কলেজ কর্তৃপক্ষ কাজটি বন্ধ করে দেয়। পরবর্তীতে ঠিকাদারি প্রতিষ্ঠানের মালিক ও অধ্যক্ষের বাড়ি একই এলাকায় হওয়ায় তাদের মধ্যে সমঝোতা হয়। আবারও নিম্নমানের সামগ্রী ব্যবহার করে নির্মাণ কাজ শুরু করে। পরে শিক্ষার্থীরা এক হয়ে নির্মাণ কাজটি বন্ধ করে দেয়।

ভবন নির্মাণে অনিয়মের চিত্র দেখাচ্ছেন এক শিক্ষার্থী 

অধ্যক্ষ মোকতেল হোসেন জানান, নির্বাচনের আগে ব্যস্ত থাকায় আমরা কাজের কোন খোঁজ নিতে পারিনি। তবে একই অবস্থা চলতে থাকায় কলেজের শিক্ষার্থীরা নির্মাণ কাজটি বন্ধ করে দিয়েছে বলে শুনেছি। তবে তার সঙ্গে সমঝোতার বিষয়ে কোন মন্তব্য করেন নি তিনি।
 
ঠিকাদারি প্রতিষ্ঠানের মালিক মনোয়ারুল ইসলাম, এসব অভিযোগ অস্বীকার করেন।

শিক্ষা প্রকৌশল অধিদপ্তর সিরাজগঞ্জ-বগুড়া জোনের নির্বাহী প্রকৌশলী আলতাফ হোসেন জানান, যথাযথ নিয়মের মধ্যেই নির্মাণ কাজ হচ্ছে। নিম্নমানের ইট ব্যবহার করার অভিযোগে কাজটি বন্ধ করে দেয়ার কথা শুনেছি। স্থানীয় দলীয় নেতাদের কারণে মাঝে মধ্যেই সমস্যার সৃষ্টি হচ্ছে। অনিয়মের মধ্যে নির্মাণ কাজ হলে তদন্ত করে ব্যবস্থা নেওয়া হবে। 

আপনার চারপাশে ঘটে যাওয়া নানা খবর, খবরের পিছনের খবর সরাসরি দৈনিক অধিকারকে জানাতে ই-মেইল করুন- [email protected] আপনার পাঠানো তথ্যের বস্তুনিষ্ঠতা যাচাই করে আমরা তা প্রকাশ করব।
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক: মো: তাজবীর হুসাইন

১৪৭/ডি, গ্রীন রোড, ঢাকা-১২১৫।

ফোন: ০২-৯১১০৫৮৪

ই-মেইল: [email protected]

এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, অডিও, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি।

Developed by : অধিকার মিডিয়া লিমিটেড