• বুধবার, ২৯ মে ২০২৪, ১৫ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১  |   ২৯ °সে
  • বেটা ভার্সন
sonargao

থানায় ঢুকে চেয়ারম্যান প্রার্থীর সমর্থকদের বাড়াবাড়ি, গ্রেপ্তার ১০

  সোহেল রানা, সিরাজগঞ্জ:

০২ মে ২০২৪, ১৭:৫০
চেয়ারম্যান প্রার্থী

সিরাজগঞ্জের বেলকুচিতে গভীর রাতে থানায় ঢুকে অস্থীতিশীল পরিস্থিতি সৃষ্টি ও সরকারি কাজে বাধা প্রদানের অভিযোগে এক চেয়ারম্যান প্রার্থীর ১০ কর্মী-সমর্থককে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ। এ ঘটনায় পুলিশের পক্ষ থেকে করা হয়েছে মামলা।

বেলকুচি থানার পরিদর্শক (তদন্ত) আব্দুল বারিক জানান, বুধবার রাত সাড়ে ৯ টার দিকে প্রচারণা চালানোর একপর্যায়ে চালা সাত রাস্তার মোড়ে উপজেলা চেয়ারম্যান প্রার্থী আমিনুল ইসলাম সরকার (দোয়াত কলম) ও বদিউজ্জামান ফকিরের (মটরসাইকেল) কর্মী সমর্থকদের মধ্যে হাতাহাতির ঘটনা ঘটে। এরপর অভিযোগ দিতে বদিরুজ্জামান বদি ফকির থানায় আসেন। কিছুক্ষণ পরই আমিনুল ইসলামের কর্ম- সমর্থকরাও থানায় প্রবেশ করেন। এসময় আমিনুল গ্রুপের সমর্থকরা থানায় ভিতরে ঢুকে অস্থীতিশলি পরিস্থিতি তৈরী করেন। তারা উচ্চ স্বরে গালমন্দ করতে থাকে এবং থানার পরিবেশ বিনষ্ট করে। একপর্যায়ে জেলা সদর থেকে ডিবি পুলিশ আসে এবং থানা পুলিশ মিলে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণ করা হয়। এরপরই অভিযান চালিয়ে আমিনুল গ্রুপের ১০জনকে গ্রেপ্তার করা হয়।

এ ঘটনায় পুলিশের কাজে বাধা প্রদান এবং গভীর রাতে থানায় অনাধিকার প্রবেশ করে থানার পরিবেশ বিনষ্ট করার অভিযোগে পুলিশের পক্ষ থেকে মামলা করা হয়েছে। মামলায় ২২জনের নাম উল্লেখ এবং অন্তত: ২০ জনকে অজ্ঞাতনামা আসামী করা হয়েছে। থানার ভিডিও ফুটেজ দেখে অন্যান্য আসামীদের গ্রেপ্তারের চেষ্টা চলছে।

এ বিষয়ে চেয়ারম্যান প্রার্থী বদিরুজ্জামন বদি ফকিরের ভাই মান্নান ফকির অভিযোগ করে বলেন, চালা সাত রাস্তার মোড়ে চেয়ারম্যান প্রার্থী আমিনুল ইসলাম নিজে উপস্থিত থেকে তার ভাই বদি ফকিরের কর্মী-সমর্থকদের মারধর করে। এ ঘটনায় মামলা করতে থানায় গেলে প্রতিদ্বন্ধি প্রার্থী আমিনুল মটরসাইকেলের বহর নিয়ে থানায় ঢুকে তার ভাই বদি ফকিরকে মারধর করার জন্য চেষ্টা করেন। পুলিশের সহায়তায় বদি ফকির থানার অভ্যন্তরে নিরাপদে থাকলেও আমিনুলসহ তার লোকজন থানার ভিতরে উত্তেজনা ছড়াতে থাকে। আমরা এ ঘটনার বিচার চাই।

এ প্রসঙ্গে পুলিশ সুপার আরিফুর রহমান মন্ডল জানান, রাতের বেলায় থানায় ঢুকে অস্থীতিশীল পরিস্থিতি তৈরীর অভিযোগে দায়ের হওয়া মামলায় রাতেই অভিযান চালিয়ে ১০জনকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। ভিডিও ফুটেজ দেখে সনাক্ত করে বাকি আসামীদের গ্রেপ্তার করা হবে।

এ বিষয়ে জানতে চেয়ারম্যান প্রার্থী আমিনুল ইসলামের সাথে মোবাইলে যোগাযোগ করা হলেও তিনি রিসিভ না করায় তার বক্তব্য পাওয়া যায়নি।

এ উপজেলায় প্রথম ধাপে ৮ মে নির্বাচন অনুষ্ঠিত হবে। চেয়ারম্যান পদে ৩জন প্রার্থী প্রতিদ্বন্ধিতা করছেন। প্রার্থীরা সবাই আওয়ামী লীগের নেতাকর্মী।

আপনার চারপাশে ঘটে যাওয়া নানা খবর, খবরের পিছনের খবর সরাসরি দৈনিক অধিকারকে জানাতে ই-মেইল করুন- [email protected] আপনার পাঠানো তথ্যের বস্তুনিষ্ঠতা যাচাই করে আমরা তা প্রকাশ করব।
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত

নির্বাহী সম্পাদক: গোলাম যাকারিয়া

 

সম্পাদকীয় কার্যালয় 

১৪৭/ডি, গ্রীন রোড, ঢাকা-১২১৫।

যোগাযোগ: 02-48118243, +8801907484702 

ই-মেইল: [email protected]

এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, অডিও, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি।

Developed by : অধিকার মিডিয়া লিমিটেড