• শুক্রবার, ২৪ মে ২০২৪, ১০ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১  |   ৩২ °সে
  • বেটা ভার্সন
sonargao

হরিরামপুরে পদ্মায় ভাসছে মাদ্রাসা ছাত্রের মরদেহ

  শুভংকর পোদ্দার, হরিরামপুর (মানিকগঞ্জ):

২৮ এপ্রিল ২০২৪, ১৪:০৪
মাদ্রাসা ছাত্রের মরদেহ

মানিকগঞ্জের হরিরামপুরে পদ্মা নদীতে এক মাদ্রাসা ছাত্রের মরদেহ ভেসে উঠেছে। রোববার (২৮ এপ্রিল) সকালে উপজেলার আন্ধারমানিক ট্রলার ঘাটে স্থানীয়রা মরদেহটি দেখতে পায়।

মরদেহটি আন্ধারমানিক ইসলামিয়া হাফিজিয়া মাদ্রাসা ও এতিমখানার মক্তব বিভাগের প্রথম শ্রেণির ছাত্র মো. নাঈমের (১০) বলে জানা গেছে। নাঈম সিংগাইর উপজেলার খাসেরচর এলাকার মৃত এলাহির ছেলে। তার বাবা মারা যাওয়ায় মানিকগঞ্জ সদর উপজেলার চর বালিরটেক এলাকায় নানির বাড়িতে থাকতো সে।

তিনদিন ধরে মাদ্রাসা থেকে নিখোঁজ থাকলেও মাদ্রাসা কর্তৃপক্ষ থানায় বা পরিবারকে বিষয়টি না জানানোর কারণে তৈরি হয়েছে ধোঁয়াশা। বিষয়টিকে রহস্যজনক বলে দাবি করেছেন নাঈমের মামা।

নাঈমের মামা আল-আমিন জানান, তিনদিন আগে নাঈমকে মাদ্রাসায় রেখে যাওয়া হয়েছে। মাদ্রাসা শিক্ষকরা নাঈমের নিখোঁজের বিষয়টি তাদের জানায়নি। তার এক আত্মীয়ের ছেলে একই মাদ্রাসার পড়ে। সে আজ ১০ টার দিকে জানিয়েছে নাঈমের লাশ পদ্মায় ভাসছে। পরে তারা পদ্মার পাড়ে এসেছেন। এ ঘটনায় থানায় অভিযোগ দেয়া হবে বলেও জানান তিনি।

মাদ্রাসার শিক্ষক মো. রফিকুল ইসলাম জানান, নাঈম নিখোঁজ হলেও কয়েকজন ছাত্র জানিয়েছে একজন ছাত্রকে তার নানী নিয়ে গেছে। আমরা ভেবেছি নাঈমকে নিয়ে গেছে। পরে জানতে পারি নাঈম নয়, অন্য এক ছাত্রকে নিয়ে গেছে। নাঈম পদ্মায় গোসলে গিয়ে নিখোঁজ।

নিখোঁজের বিষয়টি পরিবার বা থানায় কেন জানালেন না জানতে চাইলে তিনি বলেন, থানায় জানাইনি, আমাদের ভুল হয়েছে।

হরিরামপুর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) শাহ নুর-এ আলম জানান, মাদ্রাসা শিক্ষার্থী নিখোঁজের বিষয় মাদ্রাসা থেকে লিখিত বা মৌখিকভাবে জানানো হয়নি।

ফরিদপুর নৌ থানা ইনচার্জ মোহাম্মদ ইদ্রিস আলী জানান, খবর পেয়ে ফরিদপুর থেকে নৌ-পুলিশের একটি দল রওয়ানা হয়েছে।

আপনার চারপাশে ঘটে যাওয়া নানা খবর, খবরের পিছনের খবর সরাসরি দৈনিক অধিকারকে জানাতে ই-মেইল করুন- [email protected] আপনার পাঠানো তথ্যের বস্তুনিষ্ঠতা যাচাই করে আমরা তা প্রকাশ করব।
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত

নির্বাহী সম্পাদক: গোলাম যাকারিয়া

 

সম্পাদকীয় কার্যালয় 

১৪৭/ডি, গ্রীন রোড, ঢাকা-১২১৫।

যোগাযোগ: 02-48118243, +8801907484702 

ই-মেইল: [email protected]

এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, অডিও, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি।

Developed by : অধিকার মিডিয়া লিমিটেড