• সোমবার, ২৭ মে ২০২৪, ১৩ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১  |   ২৮ °সে
  • বেটা ভার্সন
sonargao

রাজশাহী সড়ক বিভাগের অনিয়ম আর দুর্নীতি নিয়ে সড়ক ও সেতুমন্ত্রীর নিকট অভিযোগ 

  রাফিকুর রহমান লালু, রাজশাহী

৩১ মার্চ ২০২৪, ১৩:৫২
অভিযোগ

রাজশাহী সড়ক বিভাগের নানা অনিয়ম আর দুর্নীতির কথা উল্লেখ করে আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক, সড়ক ও সেতুমন্ত্রীর নিকট লিখিত অভিযোগ দায়ের হয়েছে। গত ২৪ শে মার্চ পৃথকভাবে দুটি অভিযোগ দায়ের হয়েছে সড়ক ও সেতু মন্ত্রীর দপ্তরে। লিখিত সেই অভিযোগে বলা হয়েছে, রাজশাহী সড়ক বিভাগের জায়গায় বসবাস করা অবস্থায় সড়কের গাড়ি চালক বাহার উদ্দিন নামের এক ব্যক্তি সড়কের ইট রড নিজের নবনির্মিত ভবনে নিয়ে গিয়ে ব্যবহার করছেন।

বিষয়টি রাজশাহী সড়কের নির্বাহী প্রকৌশলী আব্দুল হাকিমকে একাধিকবার অবগত করা হলেও তিনি এই বিষয়ে কোন ব্যবস্থা গ্রহণ করেন নাই। তিনি প্রথমে সড়ক থেকে নেওয়া জিনিসপত্রের বিষয়টি অস্বীকার করলেও পরবর্তী সময়ে সিসি ক্যামেরা ফুটেজের কথা বলা হলে তিনি বিষয়টি স্বীকার করে বলেন, আমাদের সড়কের জায়গার ক্ষতিপূরণ করে দিয়েছেন ঠিকাদারি প্রতিষ্ঠান। তাই সেই সকল জিনিসপত্র আমাদের নেওয়ার কোন যুক্তি আসে না। সড়কের নির্বাহী প্রকৌশলীর এমন কথায় হতাশ হয়ে পড়েন স্থানীয়রা।

অভিযোগে আরও উল্লেখ করা হয়েছে রাজশাহীর উপকণ্ঠ খড়খড়ি নামক হাটবাজার নির্ধারিত জায়গায় না বসে সড়কে জায়গায় বসছে দীর্ঘদিন থেকে। এরপরেও সড়ক বিভাগের পক্ষ থেকে কোন ব্যবস্থা গ্রহণ করা হয়নি। মহাসড়কে এমন হাট বসার কারণে মাঝেমধ্যেই বড় ধরনের দুর্ঘটনার স্বীকার হচ্ছেন পথচারী সহ চলাচল করা গাড়িগুলো। এমন বিষয়ে একাধিকবার সড়কের নির্বাহী প্রকৌশলীকে অবগত করলেও তিনি অজ্ঞাত কারণে কোন ব্যবস্থা গ্রহণ করে নাই।

এমন ঘটনা নিয়ে রাজশাহীর একটি সাংবাদিক সংগঠন গত একুশে মার্চ রাজশাহী জেলা প্রশাসকের নিকট একটি স্মারকলিপি দিয়েছেন। সেই স্মারকলিপিতে সড়ক বিভাগের অনিয়মের কথা তুলে ধরা হয়েছে। উল্লেখ করা হয়েছে সড়ক বিভাগের নির্বাহী প্রকৌশলীর সাথে যোগসাজস করে এই অবৈধ হাটটি মহাসড়কে পরিচালিত হচ্ছে।

রাজশাহীর পুঠিয়া থেকে তাহেরপুর পর্যন্ত মিনি বিশ্বরোডে গড়ে উঠা ১৭ টি ব্রিজের মধ্যে নিয়ম বহির্ভূতভাবে প্রায় সাতটি ব্রিজ তৈরি করা হয়েছে, যে ব্রীজগুলো দেখলে পথচারীরা ভিন্নভাবে সমালোচনা করছেন। কারো বাড়ি ঘিরে, কারো বা পুকুর ঘিরে, কারো বা ভিটা জমির সামনে এমন নব নির্মিত অপ্রয়োজনীয় ব্রিজ পথচারীদের হাসির খোরাক হচ্ছে। এ সকল অপ্রয়োজনীয় ব্রিজগুলো দেখার জন্য সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রীর হস্তক্ষেপ কামনা করা হয়েছে সেই লিখিত অভিযোগে।

সড়কের এমন অনিয়ম প্রকাশ করতে গেলে সাংবাদিকদেরও দেওয়া হয় বিভিন্ন ধরনের হুমকি ধামকি। লিখিত অভিযোগের বিষয়ে জানতে আব্দুল হাকিম এর নিকট গেলে তিনি মিডিয়াকর্মীদের বলেন ব্রিজগুলো নিয়ম মেনে করা হয়েছে। তবে লিখিত অভিযোগের বিষয়ে তিনি কোন মন্তব্য করতে রাজি হননি।

আপনার চারপাশে ঘটে যাওয়া নানা খবর, খবরের পিছনের খবর সরাসরি দৈনিক অধিকারকে জানাতে ই-মেইল করুন- [email protected] আপনার পাঠানো তথ্যের বস্তুনিষ্ঠতা যাচাই করে আমরা তা প্রকাশ করব।
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত

নির্বাহী সম্পাদক: গোলাম যাকারিয়া

 

সম্পাদকীয় কার্যালয় 

১৪৭/ডি, গ্রীন রোড, ঢাকা-১২১৫।

যোগাযোগ: 02-48118243, +8801907484702 

ই-মেইল: [email protected]

এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, অডিও, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি।

Developed by : অধিকার মিডিয়া লিমিটেড