• বৃহস্পতিবার, ২৩ মে ২০২৪, ৯ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১  |   ৩৩ °সে
  • বেটা ভার্সন
sonargao

পানের বরজ থেকে স্কুলছাত্রকে অপহরণ করেছে পাহাড়ি সন্ত্রাসীরা

  মিজানুর রহমান মিজান, টেকনাফ (কক্সবাজার)

১২ ফেব্রুয়ারি ২০২৪, ১৮:৩১
পাহাড়ি সন্ত্রাসী

কক্সবাজার টেকনাফের বাহারছড়া ইউনিয়নের ৭ নং ওয়ার্ড মাথাভাঙা এলাকার মুক্তার আহমদের পুত্র আব্দুল আমিন (১৭) সকাল সাড়ে ৮ ঘটিকার সময় পানের বরজে কাজ করতে গেলে পাহাড়ি সন্ত্রাসীরা অস্ত্র ঠেকিয়ে অপহরণ করে পাহাড়ে নিয়ে গেছে বলে স্থানীয় সুত্রে জানা গেছে।

সোমবার (১২ ফেব্রুয়ারি) সকাল ৮টার দিকে বাহারছড়া ইউনিয়নের মাথাভাঙ্গা পাহাড়ের পাদদেশে পানবরজে কাজ করার সময় অপহরণের শিকার হয় সে।

বাহারছড়া পুলিশ তদন্ত কেন্দ্রের পরিদর্শক মো. মশিউর রহমান প্রতিদিনের বাংলাদেশকে বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

আব্দুল আমিন উপজেলার বাহারছড়া ইউনিয়নের মাথাভাঙ্গা গ্রামের মোক্তার আহমদের ছেলে। সে মারিশবনিয়া উচ্চ বিদ্যালয়ের সপ্তম শ্রেণির ছাত্র।

প্রত্যক্ষদর্শীদের বরাত দিয়ে বাহারছড়া ইউনিয়ন পরিষদের ৭ নম্বর ওয়ার্ডের ইউপি সদস্য ফরিদ উল্লাহ জানান, সোমবার সকালে মা-বাবা, ভাই-বোনসহ আব্দুল আমিন পানবরজে কাজ করতে যান। হঠাৎ মুখোশধারী কিছু লোক অস্ত্রের মুখে তাকে জিম্মি করে। পরে তার চিৎকার শুনে আশপাশের লোকজন জড়ো হওয়ার চেষ্টা করলে সন্ত্রাসীরা কয়েক রাউন্ড ফাঁকাগুলি করে আব্দুল আমিনকে নিয়ে গহিন পাহাড়ে দিকে চলে যায়। আশপাশের আরও কয়েকটি পানবরজ রয়েছে। এখন পর্যন্ত সন্ত্রাসীদের পক্ষ থেকে কোনো ধরনের মুক্তিপণ দাবি করা হয়নি।

তিনি বলেন, পুলিশের তৎপরতার কারণে দীর্ঘদিন ধরে অপহরণ বন্ধ ছিল। এখন আবার মানুষের মনে আতঙ্ক সৃষ্টি হচ্ছে। এসব প্রতিরোধে স্থায়ী সমাধান প্রয়োজন।

পরিদর্শক মো. মশিউর রহমান বলেন, ‘স্থানীয় ইউপি সদস্যের মাধ্যমে অপহরণের বিষয়টি শুনেছি। এখন পর্যন্ত কোনো অভিযোগ আসেনি। শিক্ষার্থীকে উদ্ধারে পুলিশের তরফ থেকে তৎপরতা চালানো হচ্ছে।

আপনার চারপাশে ঘটে যাওয়া নানা খবর, খবরের পিছনের খবর সরাসরি দৈনিক অধিকারকে জানাতে ই-মেইল করুন- [email protected] আপনার পাঠানো তথ্যের বস্তুনিষ্ঠতা যাচাই করে আমরা তা প্রকাশ করব।
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত

নির্বাহী সম্পাদক: গোলাম যাকারিয়া

 

সম্পাদকীয় কার্যালয় 

১৪৭/ডি, গ্রীন রোড, ঢাকা-১২১৫।

যোগাযোগ: 02-48118243, +8801907484702 

ই-মেইল: [email protected]

এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, অডিও, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি।

Developed by : অধিকার মিডিয়া লিমিটেড