• বৃহস্পতিবার, ২২ ফেব্রুয়ারি ২০২৪, ৯ ফাল্গুন ১৪৩০  |   ২৪ °সে
  • বেটা ভার্সন
sonargao

সূর্যমুখীর অপরুপ সাজে সেজেছে নাগরিয়াকান্দী

  মনিরুজ্জামান, নরসিংদী

০৫ ফেব্রুয়ারি ২০২৪, ১৬:২১
সূর্যমুখী

শীতের চাদর ভেদ করে চারদিকে ছড়িয়ে পড়েছে বসন্তের আগমনী বার্তা। এরই মধ্যে প্রকৃতি সেজে উঠেছে নতুন রূপে। প্রকৃতির এমন রূপের সৌন্দর্যের সন্ধানে প্রকৃতি প্রেমীরা ছুটে চলছেন এক স্থান থেকে অন্য স্থানে। এমনি এক নজরকাড়া প্রাকৃতিক সৌন্দর্যৈ ঘেরা নরসিংদীর নাগরিয়াকান্দীর শেখ হাসিনা সেতু সংলগ্ন সূর্যমুখী ফুলের বাগান। মেঘনা নদীর কূল ঘেঁষে গড়ে ওঠা সূর্যমুখী আর নানান রঙের দেশি-বিদেশি ফুলে ঘেরা ‘আপন’ হাউজের ফুলের সাম্রাজ্যে হারিয়ে যেতে প্রতিদিনই ছুটে আসছে হাজারো প্রকৃতি প্রেমীরা।

নরসিংদী সদর উপজেলার নাগরিয়াকান্দীর শেখ হাসিনা সেতুকে ঘিরে গড়ে উঠেছে ছোট-বড় অনেক বিনোদন কেন্দ্র । সেই সাথে ঋতুরাজ বসন্তের আগমনকে ঘিরে তরুণ উদ্যোক্তা তৌহিদুল ইসলাম মাসুম মেঘনা নদীর কূল ঘেঁষে গড়ে তুলেছেন প্রাকৃতিক সৌন্দর্যে ঘেরা নয়নাভিরাম ‘সানফ্লাওয়ার গার্ডেন’ নামে একটি বিনোদন কেন্দ্র। যেখানে সূর্যমুখী বাগান ও নানান রকম দেশি-বিদেশি ফুল গাছ দিয়ে সাজানো ‘আপন’ হাউজ স্থানীয় ও দূর দূরান্তের দর্শনার্থীদের নজর কেড়েছে। সব মিলিয়ে প্রকৃতির এমন মনোরম দৃশ্য উপভোগ করতে হাজার হাজার প্রকৃতি প্রেমিরা প্রতিদিন দেশের বিভিন্ন স্থান থেকে ছুটে আসছে।

পড়ন্ত বিকেলে প্রিয়জনের হাত ধরে সূর্যমুখী ফুলের নজরকাড়া সৌন্দর্যে নিজেকে মুঠোফোনে বন্দী করার সময় আলাপ হয় ঢাকার লাবণীর সাথে।

তিনি বলেন, নদীর তীরবর্তী এমন নজরকাড়া সূর্যমুখী ফুলের বাগান সত্যিকার অর্থেই আমাকে মুগ্ধ করেছে।

সিলেট থেকে নরসিংদীর এক আত্মীয়ের বাসায় বেড়াতে এসে বাগানের সন্ধান পেয়ে পরিবার নিয়ে ঘুরতে আসা ব্যাংক কর্মকর্তা মামুনুর রশিদ বলেন, এখানের সূর্যমুখী ফুলের বাগান ও বাহারি দেশী-বিদেশী ফুলে সজ্জিত 'আপন হাউস' এর প্রাকৃতিক সৌন্দর্যে পরিবার পরিজন নিয়ে হারিয়ে যাওয়ার অনুভূতি বলে শেষ করা যাবে না। দেশের প্রতিটি জেলায় তরুণ উদ্যোক্তারা যদি এমন অভিনব বাগান তৈরির উদ্যোগ নেয় তাহলে ভ্রমন ও ফুল প্রেমিদের আকর্ষণের পাশাপাশি অর্থনৈতিক সমৃদ্ধি ও বেকারত্ব দূর হবে বলে আশাবাদ ব্যক্ত করেন তিনি।

বাগান মালিক তৌহিদুল ইসলাম মাসুম বলেন, এ নিয়ে তিন বৎসর ধরে আমি সূর্যমুখী ফুলের বাগান করছি। দিন দিন বাগানে দর্শনার্থীদের সংখ্যা বাড়ছে। ছুটির দিন ছাড়া প্রতিদিন গড়ে এক থেকে দেড় হাজার দর্শনার্থী আসে। আর ছুটির দিনগুলোতে দুই থেকে আড়াই হাজার দর্শনার্থী আসে। মধ্যবিত্ত ও সাধারণ মানুষের কথা চিন্তা করে আমরা মাথাপিছু ৩০ টাকা করে টিকেটের মূল্য নির্ধারণ করেছি। এতে করে সকল খরচ বাদে মাসে তার ১০ থেকে ১১ লাখ টাকা আয় হয় বলে জানান তিনি।

প্রফেসর গোলাম মোস্তাফা মিয়া, প্রকৃতি ও জীবন ক্লাব, নরসিংদীর প্রধান উপদেষ্টা প্রফেসর গোলাম মোস্তফা মিয়া বলেন, মানুষ প্রকৃতির সন্তান। আমরা বাংলাদেশের প্রকৃতির অপার সৌন্দর্য দেখার সুযোগ রয়েছে। বিশেষ করে নরসিংদীর নাগরিয়া কান্দি শেখ হাসিনা সেতু সংলগ্ন সূর্যমুখী ফুলের বাগান ও আপন হাউস সহ যেসকল বিনোদন কেন্দ্র করে উঠেছে তা সত্যিকার অর্থেই মনোমুগ্ধকর। সরকারি সহযোগিতা পেলে মেঘনা বিধৌত প্রাকৃতিক সৌন্দর্যে ঘেরা এই এলাকাটি একটি পরিকল্পিত পর্যটন কেন্দ্রে পরিণত হবে এমনটাই প্রত্যাশা করেন তিনি।

আপনার চারপাশে ঘটে যাওয়া নানা খবর, খবরের পিছনের খবর সরাসরি দৈনিক অধিকারকে জানাতে ই-মেইল করুন- [email protected] আপনার পাঠানো তথ্যের বস্তুনিষ্ঠতা যাচাই করে আমরা তা প্রকাশ করব।
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত

নির্বাহী সম্পাদক: গোলাম যাকারিয়া

 

সম্পাদকীয় কার্যালয় 

১৪৭/ডি, গ্রীন রোড, ঢাকা-১২১৫।

যোগাযোগ: 02-48118243, +8801907484702 

ই-মেইল: [email protected]

এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, অডিও, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি।

Developed by : অধিকার মিডিয়া লিমিটেড