• শনিবার, ০২ মার্চ ২০২৪, ১৮ ফাল্গুন ১৪৩০  |   ৩০ °সে
  • বেটা ভার্সন
sonargao

সিংগাইরে প্রকাশ্যে কুপিয়ে হত্যা, এতিম হলো ৩ প্রতিবন্ধী

  মিলন মাহমুদ, সিংগাইর (মানিকগঞ্জ):

০৫ ফেব্রুয়ারি ২০২৪, ১২:৪৫
প্রকাশ্যে কুপিয়ে হত্যা

মানিকগঞ্জের সিংগাইরে পূর্ব শত্রুতা ও আধিপত্য বিস্তারের জেরে আব্দুল কুদ্দুস (৫২) কে প্রকাশ্যে কুপিয়ে গুরুতর জখম করলে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মারা যান। এতে তার ৩ টি শারীরিক ও মানসিক প্রতিবন্ধী সন্তান এতিম হয়েছেন। নিহত কুদ্দুস উপজেলার চান্দহর ইউনিয়নের আটিপাড়া গ্রামের মৃত মিনাজ উদ্দিনের পুত্র।

শনিবার (৩ ফেব্রুয়ারি) সকালে উপজেলার চান্দহর ইউনিয়নে দুগ্রুপের আধিপত্য বিস্তার ও জমি সংক্রান্ত বিরোধের জেরে সিরাজপুর হাটের উত্তর পাশে দফায় দফায় হামলার ঘটনা ঘটে।

প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান, আটিপাড়া গ্রামের আবু কালামের নেতৃত্বে মিলন, জুবায়ের, আব্দুল আলীম, রাসেল, জব্বার, হারুনসহ ১০-১৫ জন দেশীয় অস্ত্র নিয়ে প্রতিপক্ষ শাহিনুর ও ফারুকের ওপর হামলা করে। এসময় হামলাকারীদের দাএর কোপে শাহিনুরের বাম পা প্রায় বিচ্ছিন্ন হয়ে যায় ও ফারুক রক্তাক্ত জখম হয়। তাদের উদ্ধার করে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে প্রেরণ করেন এলাকাবাসী।

সংঘর্ষের খবর পেয়ে শান্তিপুর পুলিশ তদন্ত কেন্দ্রের এসআই আব্দুস সালাম মিয়া সঙ্গীয় ফোর্স নিয়ে ঘটনাস্থলে উপস্থিত হন। তার প্রায় দেড় ঘণ্টা পর পুলিশের উপস্থিতিতে দ্বিতীয় দফায় আটিপাড়া মসজিদের সামনের পাকা রাস্তায় ব্যবসায়ী আব্দুল কুদ্দুসের উপর আবারো হামলা করে তারা। এসময় তাদের এলোপাথাড়ি দাএর কোপে গুরুতর আহত হন। কুদ্দুসকে বাঁচাতে বোন জাবেদা এগিয়ে গেলে তিনিও রক্তাক্ত জখম হন। আহতদের ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হলে চিকিৎসাধীন অবস্থায় শনিবার (৩ ফেব্রুয়ারি) দিবাগত রাত পৌনে ১০ টার দিকে কুদ্দুসের মৃত্যু হয়।

এদিকে, প্রথম সংঘর্ষের ঘটনায় শাহানা ইসলাম বাদী হয়ে আবু কালামকে প্রধান আসামি করে ১৩ জনের নাম উল্লেখসহ অজ্ঞাত ১০-১২ জনের বিরুদ্ধে মামলা দায়ের করেন। ওই মামলার ১০ নং আসামি মৃত রতনের ছেলে হারুনকে (৩৮) গ্রেপ্তার করে পুলিশ। অপরদিকে, দ্বিতীয় ঘটনায় হত্যা মামলার প্রস্তুতি চলছে বলে জানা গেছে।

খুন হওয়া কুদ্দুস সদ্য সমাপ্ত নির্বাচনে স্বতন্ত্র প্রার্থী দেওয়ান জাহিদ আহমেদ টুলু এমপির সমর্থক। অপরদিকে, হামলাকারীরা নৌকা প্রতীকের প্রার্থী মমতাজ বেগমের সমর্থক বলে জানান নিহতের পরিবার। তারা দাবি করেন রাজনৈতিক প্রতিহিংসার কারণেই এ হত্যাকাণ্ডের ঘটনা ঘটেছে।

সিংগাইর থানাধীন শান্তিপুর (বাঘুলি) তদন্ত কেন্দ্রের এসআই আব্দুস সালাম মিয়া বলেন, কোনোভাবেই পরিস্থিতি সামাল দিতে পারিনি। আমাদের কথা না শোনায় এমন ঘটনা ঘটেছে। বিষয়টি ওসি ও সার্কেল স্যার অবগত। প্রথম ঘটনায় মামলা হয়েছে এবং দ্বিতীয় ঘটনায় হত্যা মামলার প্রস্তুতি চলছে।

আপনার চারপাশে ঘটে যাওয়া নানা খবর, খবরের পিছনের খবর সরাসরি দৈনিক অধিকারকে জানাতে ই-মেইল করুন- [email protected] আপনার পাঠানো তথ্যের বস্তুনিষ্ঠতা যাচাই করে আমরা তা প্রকাশ করব।
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত

নির্বাহী সম্পাদক: গোলাম যাকারিয়া

 

সম্পাদকীয় কার্যালয় 

১৪৭/ডি, গ্রীন রোড, ঢাকা-১২১৫।

যোগাযোগ: 02-48118243, +8801907484702 

ই-মেইল: [email protected]

এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, অডিও, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি।

Developed by : অধিকার মিডিয়া লিমিটেড