• বুধবার, ২৮ ফেব্রুয়ারি ২০২৪, ১৫ ফাল্গুন ১৪৩০  |   ১৬ °সে
  • বেটা ভার্সন
sonargao

কুড়িগ্রামে বাড়ছে ঠান্ডার প্রকোপ

  হুমায়ুন কবির সূর্য, কুড়িগ্রাম:

০৯ জানুয়ারি ২০২৪, ১৭:২৩
ঠান্ডা

কুড়িগ্রাম জেলা জুড়ে বাড়ছে ঠান্ডার প্রকোপ। দুপুর পর্যন্ত সূর্যের মুখ দেখা না যাওয়ায় ঠান্ডার তীব্রতা যেন বেড়ে গেছে। পাশাপাশি হিম বাতাসে শরীরে ধরিয়ে দিচ্ছে কাঁপুনি। মঙ্গলবার জেলায় সর্বনিন্ম তাপমাত্রা ১০ থেকে ১২ ডিগ্রির মধ্যে ওঠানামা করছে।

খলিলগঞ্জ বাজারের ঔষধ ব্যবসায়ী প্রিন্স জানান, ‘শীতের কারণে গ্রামে গঞ্জে শিশুরা ডায়রিয়াসহ নানান শীতজনিত রোগে ভুগছে। চিকিৎসা দিতে হিমসীম খেতে হচ্ছে।’

অপর হোটেল ব্যবসায়ী আব্দুল মোন্নাফ জানান, ‘এরকম পরিস্থিতিতে মোটা শীতবস্ত্রের প্রয়োজন। যারা কম্বল বিতরণ করেন তারা বেশি বেশি কম্বল না দিয়ে অল্প মানুষকে কিছু ভারী শীতবস্ত্র দিন যেটা তাদের কাজে লাগবে।’

কুড়িগ্রাম সদর উপজেলার পাঁচগাছী ইউনিয়নের চেয়ারম্যান আব্দুল বাতেন সরকার জানান, ‘প্রশাসন থেকে এখন পর্যন্ত ২শ’ কম্বল পেয়েছি। যা বিতরণ করে দিয়েছি। মানুষের চাপ বেশি কিন্তু সরবরাহ নেই। ফলে ইউনিয়ন পরিষদের প্রতদিনি মানুষের ভীড় বাড়ছে।’

সারাদিন সূর্যের মুখ দেখা না যাওয়ায় ঠান্ডার প্রকোপে শহরে মানুষ চলাচল কমে গেছে। হিম ঠান্ডা হাওয়ার কারণে প্রধান প্রধান সড়কে নেই যানবাহনের জটলা।

শহরের অটোচালক বকদুল জানান, ‘আজ কুয়াশা না থাকলেও বাতাসের কারণে খুব ঠান্ডা লাগছে। গাড়ি চালাতে খুব কষ্ট হচ্ছে। যাত্রীও পাওয়া যাচ্ছে না।’

তিনি জানালেন, ঠান্ডার কারণে রাস্তায় অটো চলাচল কমে গেছে। যেগুলো আসছে সবগুলোতে যাত্রী বোঝাই। ফলে অটোর জন্য বিশ মিনিট ধরে দাঁড়িয়ে আছি।’

কুড়িগ্রামের রাজারহাট কৃষি আবহাওয়া অফিসের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা সুবল চন্দ্র সরকার জানান, এইরকম তাপমাত্রা আরও কয়েকদিন থাকবে। তবে এ মাসের মধ্যে আরও একটি শৈতপ্রবাহ এ জেলার উপর দিয়ে বয়ে যেতে পারে।

আপনার চারপাশে ঘটে যাওয়া নানা খবর, খবরের পিছনের খবর সরাসরি দৈনিক অধিকারকে জানাতে ই-মেইল করুন- [email protected] আপনার পাঠানো তথ্যের বস্তুনিষ্ঠতা যাচাই করে আমরা তা প্রকাশ করব।
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত

নির্বাহী সম্পাদক: গোলাম যাকারিয়া

 

সম্পাদকীয় কার্যালয় 

১৪৭/ডি, গ্রীন রোড, ঢাকা-১২১৫।

যোগাযোগ: 02-48118243, +8801907484702 

ই-মেইল: [email protected]

এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, অডিও, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি।

Developed by : অধিকার মিডিয়া লিমিটেড