• রোববার, ১৯ মে ২০২৪, ৫ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১  |   ২৮ °সে
  • বেটা ভার্সন
sonargao

ক্লাসের সময় হলেও শিক্ষকদের খবর নেই, অপেক্ষায় শিক্ষার্থীরা

  মোঃ রেজোয়ান ইসলাম, নীলফামারী

২৭ সেপ্টেম্বর ২০২৩, ১৭:০৬
শিক্ষার্থী

ঘড়ির কাটায় তখন সকাল ৯টা বেজে ৩৫ মিনিট। উত্তোলন করা হয়নি জাতীয় পতাকা। বেশ কয়েকজন কোমলমতি শিক্ষার্থী হাতে বই ও পিঠে স্কুল ব্যাগ নিয়ে অপেক্ষায়। তখনও আসেননি কোনো শিক্ষক-শিক্ষিকা। এরপর ৯টা ৩৭ মিনিটে বিদ্যালয়ে প্রধান শিক্ষক এসে অফিসের তালা খুলে পতাকা উত্তোলন করেন। আর শিক্ষার্থীরা নিজেরাই শ্রেণিকক্ষের তালা খুলে শিক্ষকদের জন্য অপেক্ষা করছে প্রাক-প্রাথমিক, প্রথম ও দ্বিতীয় শ্রেণির শিক্ষার্থী। পরে শ্রেণীকক্ষে শিক্ষার্থীদের সঙ্গে কথা বললে তারা জানায় বিদ্যালয়ের তালা খুলে শিক্ষকদের জন্য অপেক্ষা করছে।

আজ বুধবার (২৭ সেপ্টেম্বর) নীলফামারী ডিমলা উপজেলার খগাখরিবাড়ী সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে সরেজমিন গিয়ে এমন চিত্র দেখা যায়। অথচ নিয়মানুযায়ী সকাল ৯টা ১৫ মিনিটের মধ্যে বিদ্যালয়ে শিক্ষক-শিক্ষিকাদেরর উপস্থিত থাকার কথা।

শ্রেণী কক্ষের তালা খোলার সময় প্রথম শ্রেণির শিক্ষার্থী মোঃ সিদ্দিকুর রহমান জানায়, স্যারের কাছে চাবি নিয়ে আমরা নিজেরাই তালা খুলি। স্যার আসলে আমাদের ক্লাস হয়।

শিক্ষকদের অপেক্ষায় বসে থাকা দ্বিতীয় শ্রেণির শিক্ষার্থী সুমাইয়া আক্তার মীম ও মারিয়ম বলে, স্কুলে স্যার আসবে। ১০টার দিকে ক্লাস শুরু হয়। আমিও মাঝে মধ্যে বিদ্যালয়ের তালা খুলি।

এ প্রসঙ্গে প্রধান শিক্ষক শ্রী সুকুমার রায় বলেন, প্রতিদিন ঠিক সময়ে আমরা বিদ্যালয়ে আসি। আজকে একটু দেরি হয়েছে।

অনুপস্থিত বাকী শিক্ষক-শিক্ষিকাদের বিষয়ে তিনি জানান, ওনারাও কিছুক্ষণের মধ্যে বিদ্যালয়ে উপস্থিত হবেন।

বিদ্যালয়ের সহকারী শিক্ষক সৌরভ চন্দ্র রায়ের সাথে কথা হলে তিনি বলেন, আমার স্ত্রী জয়পুরহাট যাবে তাকে ট্রেনে পৌঁছে দিতে ডোমার গিয়েছিলাম। সে জন্য বিদ্যালয়ে আসতে কিছুটা দেরি হয়েছে।

বেলা ১০টা ১০মিনিটে বিদ্যালয়ে উপস্থিত হওয়া আরেক শিক্ষিকা পলি চন্দ্র রায় বলেন, আমি সঠিক সময়ে বিদ্যালয়ে উপস্থিত হওয়ার চেষ্টা করি। আজকে হঠাৎ দেরি হয়েছে।

এছাড়াও ৯টা ৫০মিনিটে উপস্থিত হওয়া সহকারী শিক্ষিকা তাসলিমা পারভীন কোনো কথা না বলে সরাসরি শ্রেণী কক্ষে গিয়ে ক্লাস শুরু করেন।

আর ১০টা ৪মিনিটে উপস্থিত হওয়া মৌসুমী বেগম জানান, বাড়ি একটু দূরে আর আমি একটু অসুস্থ। কোমরের ব্যথা নিয়ে স্কুলে আসছি। আমি নিয়মিত সময় মতো স্কুলে আছি।

এ বিষয়ে উপজেলা প্রাথমিক শিক্ষা অফিসার মোঃ নুর মোহাম্মদের সাথে মুঠোফোনে একাধিকবার যোগাযোগের চেষ্টা করেও তা আর সম্ভব হয়নি।

উপজেলা সহকারী শিক্ষা অফিসার নূরে আলহাজ্ব হাবিব জানান, সদ্য ডিমলায় পদায়ন হয়েছে। খোঁজখবর নিয়ে ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

উপজেলা নির্বাহী অফিসার (ইউএনও) মোঃ নুর-ই-আলম সিদ্দিকী জানান, দেরি করে আসার সুযোগ নেই। আপনার মাধ্যমে বিষয়টি জানলাম। সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তাকে অবহিত করা হবে। তিনি ব্যবস্থা গ্রহণ করবেন।

আপনার চারপাশে ঘটে যাওয়া নানা খবর, খবরের পিছনের খবর সরাসরি দৈনিক অধিকারকে জানাতে ই-মেইল করুন- [email protected] আপনার পাঠানো তথ্যের বস্তুনিষ্ঠতা যাচাই করে আমরা তা প্রকাশ করব।
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত

নির্বাহী সম্পাদক: গোলাম যাকারিয়া

 

সম্পাদকীয় কার্যালয় 

১৪৭/ডি, গ্রীন রোড, ঢাকা-১২১৫।

যোগাযোগ: 02-48118243, +8801907484702 

ই-মেইল: [email protected]

এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, অডিও, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি।

Developed by : অধিকার মিডিয়া লিমিটেড