• রোববার, ২৫ ফেব্রুয়ারি ২০২৪, ১২ ফাল্গুন ১৪৩০  |   ২৬ °সে
  • বেটা ভার্সন
sonargao

দুর্গম সাজেকে ফের ডায়রিয়ার প্রকোপ, ঝরল নারীর প্রাণ

  এম. কামাল উদ্দিন, সিনিয়র স্টাফ রিপোর্টার (রাঙামাটি)

০৭ জুন ২০২৩, ১৬:১৭
দুর্গম সাজেকে ফের ডায়রিয়ার প্রকোপ, ঝরল নারীর প্রাণ

রাঙামাটির প্রত্যন্ত দুর্গম অঞ্চল সাজেকে আবারও দেখা দিয়েছে ডায়রিয়ার প্রকোপ। এতে এক নারীর মৃত্যু হয়েছে। জেলা স্বাস্থ্য বিভাগ সূত্রে জানা গেছে, বাঘাইছড়ি উপজেলার সাজেক ইউনিয়নের ৭নং ওয়ার্ডের দুর্গম লংথিয়ান পাড়ায় ডায়রিয়ায় আক্রান্ত হয়ে গবতি বালা ত্রিপুরা (৫০) নামে নারীর মৃত্যু হয়েছে।

লংথিয়ান পাড়া ও আশ-পাশের বেশ কয়েকটি গ্রামে নারী-শিশু-বৃদ্ধসহ ডায়রিয়ায় আক্রান্ত হয়ে আরও অর্ধশতাধিক রোগী মুমূর্ষু অবস্থায় রয়েছেন। আজ বুধবার (৭ জুন) ভোর রাতে গবতি বালা ত্রিপুরা ডায়রিয়ায় আক্রান্ত হয়ে মৃত্যু বরণ করেন। তার মৃত্যুর বিষয়টি নিশ্চিত করেন সাজেক ইউনিয়নের ৭নং ওয়ার্ডের ইউপি সদস্য বন বিহারী চাকমা।

ইউপি সদস্য বন বিহারী চাকমা জানান, গত এক সপ্তাহ ধরে সাজেকের লংথিয়ান পাড়া, অরুণ পাড়া, কাইজা পাড়া, রায়না পাড়া ও শিয়ালদাহ এলাকাসহ আশ-পাশের বেশকিছু এলাকায় ডায়রিয়ার প্রাদুর্ভাব দেখা দেয়। এলাকায় আশপাশে কোনো হাসপাতাল বা কমিউনিটি ক্লিনিক না থাকায় স্থানীয়ভাবে ওজা বৈদ্য তান্ত্রিক দ্বারা চিকিৎসা নিয়ে থাকে এসব রোগীরা।

দুর্গম পাহাড়ি পথ উঁচু নিচু এলাকায় যাতায়াতের কোনো সু-ব্যবস্থা না থাকায় পায়ে হেঁটে এত দুর থেকে মাচালং ও উপজেলা সদর হাসপাতালে রোগী পাঠানো সম্ভব নয়। হেলিকপ্টারে সেনাবাহিনীর সহযোগিতায় যদি মেডিক্যাল টিম পাঠানো যায় তাহলে দ্রুত চিকিৎসা সেবা দেয়া সম্ভব। না হয় মৃতের সংখ্যা আরও বাড়তে পারে।

সাজেক ইউনিয়নের ৯নং ওয়ার্ডের মেম্বার জোপুইথাং ত্রিপুরা জানান, শিয়ালদাহ এলাকায় ১০ থেকে ১২ জন ডায়রিয়া রোগী রয়েছে, মূলত: তীব্র গরমে জীবন বাঁচাতে তারা ছড়ার পানি খেয়ে এই রোগ ছড়িয়েছে।

জানিয়ে রাখা ভালো- ২০১৬ সালে এখানে ডায়রিয়ায় আক্রান্ত হয়ে শিশুসহ ছয়জন মৃত্যুবরণ করেন। পরে সেনাবাহিনীর হেলিকপ্টারে মেডিক্যাল টিম এসে দীর্ঘ এক মাস চিকিৎসা শেষে রোগ নিয়ন্ত্রণে আসে। এবারও দ্রুত ব্যবস্থা না নিলে রোগীর সংখ্যা ও মৃতের সংখ্যা বাড়তে পারে।

এ দিকে বাঘাইছড়ি উপজেলা নির্বাহী অফিসার রুমানা আক্তার ডায়রিয়ার প্রাদুর্ভাবের বিষয়টি নিশ্চিত করে বলেন, এলাকাটি খুবই দুর্গম তাই পায়ে হেটে যাওয়া ছাড়া বিকল্প নেই। মূলত- খাবার পানি থেকে এই রোগ ছড়াচ্ছে। আমরা সংবাদ পাওয়ার পরপরই উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের মেডিক্যাল অফিসার ডা. অরবিন্দু চাকমার সাথে যোগাযোগ করে একটি মেডিক্যাল টিম পাঠানোর জন্য নির্দেশ দেয়া হয়েছে। প্রাথমিকভাবে পাশের বিজিবি বিওপি ক্যাম্প থেকে স্যালাইন সরবরাহ করা হয়েছে তবে তা খুবই সীমিত।

বাঘাইছড়ি উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের মেডিক্যাল অফিসার ডা. অরবিন্দু চাকমা বলেন, আমরা ইতিমধ্যে চার সদস্যের একটি মেডিক্যাল টিমসহ প্রয়োজনীয় ঔষধ, খাবার স্যালাইন ও পানি বিশুদ্ধ করণ ট্যাবলেট নিয়ে সাজেকের উদ্দেশ্য রওনা হয়েছি। সাজেকের কংলাক পাড়া থেকে পায়ে হেটে ঘটনাস্থলে পৌছুতে একদিন লাগবে। মেডিক্যাল টিমের সদস্যরা পৌঁছালে আরও বিস্তারিত জানতে পারবো।

এ দিকে রাঙামাটি সিভিল সার্জন ডাক্তার বিপাশ খীসা মুঠো ফোনে জানান, খবর পেয়ে এখান থেকে একজনকে পাঠানো হয়েছে। আগামী ২-১ দিনের মধ্যে জেলা থেকে প্রয়োজনীয় ঔষধ-পত্র নিয়ে একটি মেডিক্যাল টিম রওনা হবে।

আপনার চারপাশে ঘটে যাওয়া নানা খবর, খবরের পিছনের খবর সরাসরি দৈনিক অধিকারকে জানাতে ই-মেইল করুন- [email protected] আপনার পাঠানো তথ্যের বস্তুনিষ্ঠতা যাচাই করে আমরা তা প্রকাশ করব।
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত

নির্বাহী সম্পাদক: গোলাম যাকারিয়া

 

সম্পাদকীয় কার্যালয় 

১৪৭/ডি, গ্রীন রোড, ঢাকা-১২১৫।

যোগাযোগ: 02-48118243, +8801907484702 

ই-মেইল: [email protected]

এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, অডিও, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি।

Developed by : অধিকার মিডিয়া লিমিটেড