• মঙ্গলবার, ২৮ মে ২০২৪, ১৪ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১  |   ৩০ °সে
  • বেটা ভার্সন
sonargao

চরিত্রহীন ইউপি সদস্যের বিচারের দাবিতে ভুক্তভোগীর প্রতিবাদ

  মিজানুর রহমান মিজান, টেকনাফ (কক্সবাজার)

০৭ জুন ২০২৩, ১৫:৪৪
চরিত্রহীন ইউপি সদস্যের বিচারের দাবিতে ভুক্তভোগীর প্রতিবাদ

কক্সবাজার টেকনাফে শহিদ উল্লাহ ও ছিদ্দিক আহমদ নামে এক ইউপি সদস্যের বিরুদ্ধে নারীকে ধর্ষণচেষ্টার অভিযোগ এনে মানববন্ধন ও বিক্ষোভ মিছিল করেছে এলাকাবাসী।

গতকাল মঙ্গলবার (৬ জুনে) বিকালে সাবরাং আলীর ডেইল এলাকায় ঘণ্টাব্যাপী এ কর্মসূচি পালন করা হয়।

এ সময় অভিযুক্ত শহিদুল ইসলাম ও ছিদ্দিক আহমদ গং এর বিরুদ্ধে প্রধানমন্ত্রীর কাছে দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির দাবি জানানো হয়। অভিযুক্ত শহিদুল ইসলাম সাবরাং ইউনিয়নের ২নং ওয়ার্ড আলীর ডেইলের বাসিন্দা ও অভিযুক্ত ২নং আসামি স্থানীয় ২নং ওয়ার্ডর ইউপি সদস্য ছিদ্দিক আহমদ।

এছাড়া এ ঘটনায় গত বৃহস্পতিবার (১ জুন) ভুক্তভোগী ওই নারী বাদী হয়ে অভিযুক্ত শহিদুল ইসলামসহ ইউপি সদস্যের বিরুদ্ধে কক্সবাজার নারী ও শিশু নির্যাতন দমন ট্রাইব্যুনাল (৩) আদালতে একটি মামলা দায়ের করেছেন।

মামলা ও ভুক্তভোগী ওই নারী অভিযোগ থেকে জানা যায়, গত সোমবার (২৯ মে) রাত আনুমানিক ৩টার দিকে নিজের বাড়িতে অতর্কিত ভাবে ঘরে প্রবেশ করে ঘুমন্ত অবস্থায় একা পেয়ে মুখে কাপড় পেঁচিয়ে জোরপূর্বক ধর্ষণের চেষ্টা করেন। তখন আমি ঘুম থেকে জেগে উঠে চিৎকার করলে আমার মা-বাবা হৈ হুল্লোড় করলে ওরা পালিয়ে যায়।

তিনি আরও বলেন, পরে আমার বাবা কক্সবাজার সদর হাসপাতালে ভর্তি হয়ে চিকিৎসা শেষে। কক্সবাজার আদালতে আমি বাদী হয়ে মামলা করি।

ভুক্তভোগী নারীর দাবি, আমাকে দীর্ঘদিন ধরে প্রেমের প্রস্তাব দিয়ে আসছে। এবং বিভিন্ন সময় আমাকে হুমকি দিত শহিদুল ইসলাম এবং শহিদুল ইসলাম সবসময় বলত একদিন তোমাকে আমি নির্যাতন করে ছাড়ব। তাই সে আমি প্রেমের কু-প্রস্তাবে রাজি না হওয়ায় আমাকে ধর্ষণের চেষ্টা ও নির্যাতন করে এলাকায় ঘুরে বেড়াচ্ছে। আমার পরিবারকে নানা ধরনের হুমকি দিয়ে আসছে। আমি আমার পরিবারের নিরাপত্তা ও সুষ্ঠুভাবে বিচার চাই।

এ অবস্থায় অভিযুক্ত শহিদুল ইসলামসহ জনপ্রতিনিধিকেও গ্রেফতারের দাবি জানান ভুক্তভোগীর পরিবার। তাদের দাবি- আলীর ডেইল এলাকায় সংঘটিত প্রায় সব অপরাধের ক্ষেত্রেই অপরাধীরা কোনো না কোনোভাবে রাজনৈতিক ছত্রছায়ায় পার পেয়ে যায়। ফলে এলাকায় দিন দিন ধর্ষণের মতো অপরাধও বেড়ে চলেছে।

এছাড়া মামলা করার পর ভিকটিমের পরিবারের সদস্য ও স্বজনদের হুমকি দেওয়ার অভিযোগ এনে ভুক্তভোগীর বাবা আবদু সালাম বলেন, কোনো বিবেকবান মানুষ কোনোভাবে একজন ধর্ষকের পক্ষে কথা বলতে পারেন না। মানববন্ধন শেষে অভিযুক্ত শহিদুলসহ তার 'আশ্রয়দাতাদের' গ্রেফতারের স্লোগান তুলে একটি বিক্ষোভ মিছিল করেন।

মানববন্ধন চলাকালে ভুক্তভোগী বোন সাদিয়া ও এলাকাবাসীরা অভিযোগ করে বলেন, চরিত্রহীন ওই ইউপি সদস্য দায়িত্ব পাওয়ার পর থেকেই এলাকায় বিভিন্ন অপকর্মসহ মাদক সেবন, নেশা ও জুয়ার আসর পরিচালনা করে আসছেন। তার এসব অপকর্মের জন্য এলাকার যুব সমাজ নষ্ট হয়ে যাচ্ছে।

এ সময় তারা অতি দ্রুত চরিত্রহীন আসা মেম্বার ও শহিদুলকে আইনের আওতায় এনে দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি দাবি জানান।

এ বিষয়ে প্রধান অভিযুক্ত শহিদ উল্লাহ সাথে মুঠোফোনে একাধিকবার যোগাযোগ করা হলেও মোবাইল ফোন রিসিভ না করায় বক্তব্য নেওয়া সম্ভব হয়নি।

অভিযুক্ত স্থানীয় ইউপির সদস্য ছিদ্দিক আহমদ বলেন, ঘটনা সত্য কি-না; আপনারা এলাকায় প্রবেশ করে তদন্ত করেন। যেটা সত্য সেটাই লিখবেন। এ সময় তার বিরুদ্ধে আনা অভিযোগগুলো মিথ্যা বলেও দাবি করেন।

টেকনাফ মডেল থানার (ওসি) আব্দুল হালিম জানান, থানায় কোনো পক্ষ থেকে অভিযোগ পাওয়া যায়নি। যেহেতু আদালতে মামলা চলমান রয়েছে। ভুক্তভোগী পরিবার নিরাপত্তা ও আসামিদের বিরুদ্ধে তদন্ত পূর্বক আইনানুগ ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

আপনার চারপাশে ঘটে যাওয়া নানা খবর, খবরের পিছনের খবর সরাসরি দৈনিক অধিকারকে জানাতে ই-মেইল করুন- [email protected] আপনার পাঠানো তথ্যের বস্তুনিষ্ঠতা যাচাই করে আমরা তা প্রকাশ করব।
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত

নির্বাহী সম্পাদক: গোলাম যাকারিয়া

 

সম্পাদকীয় কার্যালয় 

১৪৭/ডি, গ্রীন রোড, ঢাকা-১২১৫।

যোগাযোগ: 02-48118243, +8801907484702 

ই-মেইল: [email protected]

এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, অডিও, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি।

Developed by : অধিকার মিডিয়া লিমিটেড