• মঙ্গলবার, ২৮ মে ২০২৪, ১৪ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১  |   ৩৪ °সে
  • বেটা ভার্সন
sonargao

চীনা নাগরিকের মৃত্যু, ক্ষতিপূরণ চেয়ে কারখানার ফটকে স্বজনদের অবস্থান

  মনিরুজ্জামান, নরসিংদী

১৩ মে ২০২৩, ১৪:৪৬
লি রোং হোয়া

নরসিংদীতে রপ্তানিমুখী একটি সুতা তৈরির কারখানায় মেশিন চালু অবস্থায় মেরামত করার সময় এর ভেতরে পড়ে দ্বিখন্ডিত হয়ে লি রোং হোয়া (৫৭) নামে নিহত হওয়া চীনা শ্রমিকের স্বজনেরা ঘটনার তদন্ত ও ৫ কোটি টাকা ক্ষতিপূরণের দাবিতে দুই দিন ধরে কারখানাটির প্রধান ফটকের সামনে অবস্থান করছেন।

এরই মধ্যে প্রতিষ্ঠানটি ১ কোটি ৪০ লাখ টাকা ক্ষতিপূরণ দিতে রাজি হলেও নিহত ব্যক্তির স্বজনেরা এতে সন্তুষ্ট নন। তারা ঘটনার তদন্তসহ ৫ কোটি টাকা ক্ষতিপূরণ দাবি করেন।

এর আগে গত ৩ মে দিবাগত রাত ১০টা ৪০ মিনিটেন রসিংদীর ঢাকা-সিলেট মহাসড়কের পাশে সদর উপজেলার দক্ষিণ শিলমান্দী এলাকায় ফুজিয়ান ওনান টেক্সটাইল কোম্পানি বাংলাদেশ লিমিটেডে এ ঘটনা ঘটে।

তবে তারা কাউকেই বিষয়টি অবগত করেনি। নিহতের স্বজনেরা কারখানার প্রধান ফটকের সামনে অবস্থান নেওয়ার পরই তাঁর মৃত্যুর ঘটনাটি জানাজানি হয়।

নরসিংদীর ঢাকা-সিলেট মহাসড়কের পাশে সদর উপজেলার দক্ষিণ শিলমান্দী এলাকায় ফুজিয়ান ওনান টেক্সটাইল কোম্পানি বাংলাদেশ লিমিটেড নামে প্রতিষ্ঠানটি দুই বছর আগে প্রতিষ্ঠিত হয়। কারখানাটির মালিকের নাম চেন ঝং হো, তিনিও চীনা নাগরিক।

নিহত লি রোং হোয়া চীনের জিয়াংসু এলাকার নাগরিকচীনের জিয়াংসু প্রদেশের ফেংচেন টাউনের বাসিন্দা। গত ৮ মাস ধরে কারখানাটিতে কাজ করছিলেন তিনি। লি রোং হোয়া কারখানাটির চায়না বেল্ট মেশিন অপারেট করতেন। তাঁর লাশ ৯ দিন ধরে রাজধানী ঢাকার একটি বেসরকারি হাসপাতালে ফ্রিজিং করে রাখা রয়েছে। শুক্রবার দুপুর কারখানাটির সামনে গিয়ে দেখা যায়, লি রোং হোয়ার স্ত্রী ঝিং মেইলিং, ছেলে লি রংইয়ান ও পুত্রবধূ লি জিজি ফটকের সামনে বসে আছেন। পুলিশের ১০-১২ জন সদস্য তাঁদের ঘিরে রেখেছেন। এ সময় ঝিং মেইলিংকে মাটিতে বসে কাঁদতে ও অন্য দুজনকে মাথায় হাত দিয়ে চেয়ারে বসে থাকতে দেখা যায়। তার বৃহস্পতিবার থেকে এই অবস্থান নেয় বলে স্থানীয়রা জানায়।

কারখানাটির প্রশাসনিক কর্মকর্তা আসাদুল ইসলাম জানান, পুরো কারখানাটি সিসিটিভি ক্যামেরা নিয়ন্ত্রিত। ঘটনার ফুটেজে দেখা গেছে, গত ৩ মে দিবাগত রাত ১০টা ৪০ মিনিটে লি রোং হোয়া বেল্ট মেশিনে কাজ করছিলেন। সে সময় মেশিনে ত্রুটি দেখা দিলে তিনি মেশিন বন্ধ না করে চালু অবস্থাতেই সেটি মেরামত করতে শুরু করেন। মেশিনের উপর দাঁড়িয়ে মেরামত করার একপর্যায়ে তিনি এর ভেতরে পড়ে যান। এতে কোমর বরাবর দ্বিখণ্ডিত হয়ে ঘটনাস্থলে তাঁর মৃত্যু হয়। খবর পেয়ে পুলিশ নিহত ব্যক্তির লাশ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য নরসিংদী সদর হাসপাতালের মর্গে পাঠায়। পরদিন ময়নাতদন্ত শেষে পুলিশ লাশ কারখানা কর্তৃপক্ষের কাছে হস্তান্তর করে। এরপর স্বজনদের অপেক্ষায় লাশ রাজধানী ঢাকার একটি বেসরকারি হাসপাতালে ফ্রিজিং করে রাখা হয়।

নরসিংদী সদর মডেল থানা ও ইন্ড্রাস্ট্রিয়াল পুলিশ জানায়, চীনা ওই ব‍্যক্তির নিহত হওয়ার ঘটনায় নরসিংদী সদর মডেল থানায় একটি অপমৃত্যু মামলা রুজু হয়েছে। নিহতের মরদেহ ময়নাতদন্তের পর কারখানা কর্তৃপক্ষের কাছে হস্তান্তর করা হলে পরে তা উত্তরার একটি হিমাগারে রাখা হয়। এই ঘটনার পর নিহতের পরিবারের সদস‍্যরা সংবাদ পেয়ে নিহতের স্ত্রী, মেয়ে, ছেলে, ছেলের বৌ ও ভাই বাংলাদশে আসে। তারা আসার পর কারখানা কর্তৃপক্ষ ও একজন চীনা আইনজীবিকে নিয়ে পুলিশের সাথে কথা বলে। পুলিশ তাদেরকে আইনানুগ প্রক্রিয়ার বিষয়ে অবহিত করেছে। ইতিমধ্যে তারা বিভিন্ন দাবীতে কারখানার গেইটে অবস্থান করে। কারখানা কর্তৃপক্ষের সাথে এখন পর্যন্ত বিষয়টি নিয়ে মিমাংসা হয়নি। কোন ধরনরে অপ্রীতিকর ঘটনা এড়াতে ওই স্থানে পুলিশ মোতায়েন রয়েছে।

ইন্ডাস্ট্রিয়াল পুলিশের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার ইমরান বলেন, আমরা সকাল থেকে বিষয়টি দেখছি। নিহত চীনা ব‍্যক্তির স্বজনরা কারখানার সামনে অবস্থান করছে। আমরা তাদেরকে বোঝানোর চেষ্টা চালাচ্ছি। প্রতিষ্ঠানটির মালিকের সাথেও যোগাযোগ করার চেষ্টা করছি।

আপনার চারপাশে ঘটে যাওয়া নানা খবর, খবরের পিছনের খবর সরাসরি দৈনিক অধিকারকে জানাতে ই-মেইল করুন- [email protected] আপনার পাঠানো তথ্যের বস্তুনিষ্ঠতা যাচাই করে আমরা তা প্রকাশ করব।
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত

নির্বাহী সম্পাদক: গোলাম যাকারিয়া

 

সম্পাদকীয় কার্যালয় 

১৪৭/ডি, গ্রীন রোড, ঢাকা-১২১৫।

যোগাযোগ: 02-48118243, +8801907484702 

ই-মেইল: [email protected]

এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, অডিও, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি।

Developed by : অধিকার মিডিয়া লিমিটেড