• সোমবার, ০৬ ফেব্রুয়ারি ২০২৩, ২৩ মাঘ ১৪২৯  |   ১৬ °সে
  • বেটা ভার্সন
sonargao

প্রসূতিকে অপারেশনের পর পেটে গজ রেখে সেলাই করলেন চিকিৎসক!

  ইয়ার হোসেন সোহান, ঝিকরগাছা (যশোর)

২৪ জানুয়ারি ২০২৩, ১৫:৩১
প্রসূতিকে অপারেশনের পর পেটে গজ রেখে সেলাই করলেন চিকিৎসক!

যশোরের ঝিকরগাছার বাঁকড়ায় সায়েরা ক্লিনিকের বিরুদ্ধে সিজারিয়ান অপারেশনের সময় মুসলিমা খাতুন (২৮) নামে এক নারীর পেটে গজ রেখে সেলাই করার অভিযোগ উঠেছে।

উপজেলার উজ্জলপুর গ্রামের বাসিন্দা মুসলিমা খাতুনের স্বামী মিজানুর রহমান জানান, গত ১৪ নভেম্বর তার গর্ভবতী স্ত্রীকে বাঁকড়া বাজারের অদূরে ফারুফ হোসেনের পরিচালিত সায়েরা ক্লিনিকে ভর্তি করা হয়। সেদিনই ওই ক্লিনিকের কর্তব্যরত চিকিৎসক ডা. নাইমুর রহমান সিজারিয়ান অপারেশন করান।

অপারেশনের কয়েকদিন পর মুসলিমা খাতুনের সিজারিয়ান অপারেশনের স্থানে ব্যথা অনুভূতি হতে থাকে। এছাড়া সেখান থেকে পুজরক্ত ঝরতে থাকে। পরবর্তীকালে তারা জানতে পারেন সিজারিয়ান অপারেশনের সময় পেটের মধ্যে জিকিৎসকরা ভুলবশত গজ রেখে সেলাই করে দিয়েছে। পরে বিষয়টি সায়েরা ক্লিনিকের কর্মরত চিকিৎসককে জানালে তিনি ভুলবশত পেটের ভিতর গজ থেকে যাওয়ার কথা স্বীকার করেন। সম্প্রতি একতা ক্লিনিক কর্তৃপক্ষ দ্বিতীয়বার অপারেশনের মাধ্যমে ওই রোগীর পেট থেকে গজ অপসারণ করে দিয়েছেন বলে জানা গেছে।

জানতে চাইলে ক্লিনিকের পরিচালক মারুফ হাসান জানান, ভুল তো ভুলই, কেউই ভুলের ঊর্ধ্বে না। ডাক্তাররা কখনো ইচ্ছে করে ভুল করে না বলে জানান। বিষয়টি বিশ্বাসযোগ্য নয় বলে ডা. নাইমুর রহমান জানিয়েছেন।

জানতে চাইলে ঝিকরগাছা উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা ডা. রাশিদুল ইসলাম জানান, রোগীর পরিবারের পক্ষ থেকে অভিযোগ পেলে ব্যবস্থা নেয়া হবে। বিষয়টির সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষের দৃষ্টি আকর্ষণ করে তদন্ত পূর্বক ব্যবস্থা গ্রহণের দাবি জানিয়েছেন স্থানীয় এলাকাবাসীসহ ক্ষতিগ্রস্ত পরিবার।

আপনার চারপাশে ঘটে যাওয়া নানা খবর, খবরের পিছনের খবর সরাসরি দৈনিক অধিকারকে জানাতে ই-মেইল করুন- [email protected] আপনার পাঠানো তথ্যের বস্তুনিষ্ঠতা যাচাই করে আমরা তা প্রকাশ করব।
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত

নির্বাহী সম্পাদক: গোলাম যাকারিয়া

 

সম্পাদকীয় কার্যালয় 

১৪৭/ডি, গ্রীন রোড, ঢাকা-১২১৫।

যোগাযোগ: 02-48118243, +8801907484702 

ই-মেইল: [email protected]

এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, অডিও, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি।

Developed by : অধিকার মিডিয়া লিমিটেড