• বৃহস্পতিবার, ০২ ফেব্রুয়ারি ২০২৩, ১৯ মাঘ ১৪২৯  |   ২৫ °সে
  • বেটা ভার্সন

সর্বশেষ :

sonargao

মাদকের ছোবলে যুবসমাজ, প্রশাসনের ভূমিকা প্রশ্নবিদ্ধ

  মো. আকাশ, সিদ্ধিরগঞ্জ (নারায়ণগঞ্জ)

২১ জানুয়ারি ২০২৩, ১৪:৩০
সিদ্ধিরগঞ্জ

সহজলভ্য হওয়ায় মাদকে ঝুঁকছেন নারায়ণগঞ্জের সিদ্ধিরগঞ্জের যুবসমাজ। দীর্ঘদিন যাবত মুড়ি-মোয়ার মতো বিক্রি হচ্ছে নেশাজাতক এইসব মাদকদ্রব্য। তবে স্থানীয়দের অভিযোগ, মাদকের অভিযানে মাথাব্যাথা নেই আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর।

বাংলাদেশের শিল্পনগরীর মধ্যে অন্যতম গুরুত্বপূর্ণ জেলা নারায়ণগঞ্জ। এ জেলার অধীনে থাকা গুরুত্বপূর্ণ থানা হচ্ছে সিদ্ধিরগঞ্জ। কারণ এই থানা এলাকাতেই আদমজী ইপিজেড, বিদ্যুৎ কেন্দ্র, ডিপিডিসি, র‍্যাব-১১ এর সদর দপ্তর, বিভিন্ন স্কুল-কলেজ ও সরকারি-বেসরকারীর মতো অসংখ্য প্রতিষ্ঠান অবস্থিত।

একাধিক শিল্প প্রতিষ্ঠান ও স্কুল-কলেজ থাকায় ঘনবসতিপূর্ণ এরিয়ায় পরিণত হয়েছে সিদ্ধিরগঞ্জ। সিটি করপোরেশনের হিসাব অনুযায়ী, ২ লাখ ৫৬ হাজারের মতো জনসংখ্যা থাকলেও তার চেয়ে অধিক জনসংখ্যা রয়েছেন এ থানা এলাকায়।

সারা দেশের আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনী যেখানে মাদকের উপর জিরো টলারেন্স চালু রেখেছেন। সেখানে এ থানার অলিগলিতে প্রকাশ্যে মাদকের রমরমা কারবার করে যাচ্ছেন মাদক ব্যবসায়ীরা। মাদকের ছােবলে ধ্বংস হচ্ছে উদীয়মান শিক্ষার্থীরা। অলিগলিতে হাতের নাগালেই মিলছে সমাজ নষ্টের এইসব অস্ত্র।

বিভিন্ন অনুসন্ধানে জানা যায়, মাদকের হট স্পটগুলো হলো নারায়ণগঞ্জ সিটি করপোরেশন (নাসিক) ১ নং ওয়ার্ডের হীরাঝিল পচারখ্যাত মাঠ ও পুরোনো পট্টি, মিজমিজি টিসি রোডস্থ হোসেনের বাড়ির আশপাশ, পাগলাবাড়ি, বাতানপাড়া ক্যানেলপাড়, মজিববাগ, সিআইখোলা ও পাইনাদী নতুন মহল্লা কলশি বিল্ডিংয়ের খালপার।

২ নং ওয়ার্ডের মিজমিজি দক্ষিণপাড়া, পশ্চিমপাড়া বিল, দশপাইপ শহীদ নগর ডাম্পিং ও হাজেরা মার্কেট।

৩ নং ওয়ার্ডের রসূলবাগ, বিক্রমপুর বোডিং এর আশপাশ, গ্রীন গার্ডেনের রেস্টুরেন্টের পেছনে, বায়তুল সালাম জামে মসজিদ পাশস্থ চান্দু মিয়ার বাড়ির সামনে এবং আদর্শ নগরের রিকশার গ্যারেজ।

৪ নং ওয়ার্ডস্থ আটি হাউজিং, বাগানবাড়ি, শিমরাইল মোড় ট্রাক স্ট্যান্ড, পরিত্যক্ত টাইগার মিল, মনোয়ার জুট মিল ও তাজ জুট মিল।

৫ নং ওয়ার্ডের শীতলক্ষ্যা নদীরপাড়, সাইলোগেট ট্রাকস্ট্যান্ড, আজীবপুর এবং কলাবাগ এলাকা।

নাসিের ৬ নং ওয়ার্ডের বিহারী ক্যাম্প, চরশিমুলপাড়া, নতুনবাজার, মুনলাইট এবং সাতঘোড়া সিমেন্ট কোম্পানির আশেপাশের এলাকা।

৭ নং ওয়ার্ডের কদমতলী ১০ তলা সংলগ্ন এমডব্লিউ কলেজের পিছন অংশ, কদমতলী মধ্যপাড়ার মনিরের মাঠ।

৮ নং ওয়ার্ড এনায়েত নগরের মেম্বার বাড়ির পেছনে এবং ক্যানেলপাড় এলাকা।

সিদ্ধিরগঞ্জ বাজার এলাকার বিশ্ববিদ্যালয় পড়ুয়া ছাত্র আমানের সঙ্গে কথা হলে তিনি জানান, একসময় আমাদের এলাকার ছেলেমেয়ে ফুটবল ক্রিকেটে মগ্ন ছিলেন। আর এখন তারা মাদকে আক্রান্ত। এটার জন্যে দিন দিন সমাজ নষ্ট হয়ে যাচ্ছে। এখনই যদি মাদক নিয়ন্ত্রণে না আনা হয় তাহলে সামনে আরো ভয়াবহ দিন আসবে।

মিজমিজি বাতানপাড়া এলাকার বাসিন্দা আবুবকর সিদ্দিক সিয়াম জানান, আমাদের ঘর থেকে বের হলেই দেখি মাদক কেনাবেচা। দিবারাত্রি সার্বক্ষণিক চলে এর রমরমা ব্যবসা। তবে নাম পরিচয় বললে হয়তো আমাকেই নানান ক্ষতির শিকার হওয়া লাগবে।

নাসিক ৩ নং ওয়ার্ডের গ্রীন গার্ডেনের পাশস্থ বাসিন্দা মোঃ জীবন মিয়া বলেন, আমাদের যুবসমাজ ধ্বংসের মুখে। আমরা চাই প্রশাসন দ্রুত মাদক ব্যবসায়ীদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা গ্রহণ করুক।

সিদ্ধিরগঞ্জ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) গোলাম মোস্তফা দৈনিক অধিকারকে জানান, প্রশাসন সবসময় মাদকের বিরুদ্ধে জিরো টলারেন্স চালু রেখেছে। আমরা ইতিমধ্যে মাদকের অভিযানের জন্য মিটিং করেছি। মাদকের সঙ্গে জড়িত থাকা কাউকে ছাড় দেওয়া হবে না। দ্রুত সময়ের মধ্যে মাদক সেবন ও কারবারিদের গ্রেফতার করা হবে। আমি এ থানায় সদ্য যোগদান করেছি। তাই ইতিমধ্যে এখানকার কারবারিদে তথ্য সংগ্রহ করা শুরু করেছি। আমাদের অভিযান অব্যাহত থাকবে।

এ বিষয়ে নারায়ণগঞ্জ জেলা পুলিশ সুপার (এসপি) গোলাম মোস্তফা রাসেলকে একাধিকবার ফোন দিলে তিনি ফোনটি রিসিভ করেননি।

আপনার চারপাশে ঘটে যাওয়া নানা খবর, খবরের পিছনের খবর সরাসরি দৈনিক অধিকারকে জানাতে ই-মেইল করুন- [email protected] আপনার পাঠানো তথ্যের বস্তুনিষ্ঠতা যাচাই করে আমরা তা প্রকাশ করব।
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত

নির্বাহী সম্পাদক: গোলাম যাকারিয়া

 

সম্পাদকীয় কার্যালয় 

১৪৭/ডি, গ্রীন রোড, ঢাকা-১২১৫।

যোগাযোগ: 02-48118243, +8801907484702 

ই-মেইল: [email protected]

এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, অডিও, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি।

Developed by : অধিকার মিডিয়া লিমিটেড