• মঙ্গলবার, ০৭ ফেব্রুয়ারি ২০২৩, ২৪ মাঘ ১৪২৯  |   ১৬ °সে
  • বেটা ভার্সন
sonargao

পাবনা হোমিওপ্যাথিক কলেজে নিয়োগে অনিয়ম, অধ্যক্ষের ছেলেই প্রার্থী 

  রাকিব হাসনাত, পাবনা

১৯ জানুয়ারি ২০২৩, ১৬:১৫
পাবনা হোমিওপ্যাথিক কলেজে নিয়োগে অনিয়ম, অধ্যক্ষের ছেলেই প্রার্থী 

পাবনা হোমিওপ্যাথিক মেডিক্যাল কলেজ ও হাসপাতালে অনৈতিক লেনদেন ও স্বেচ্ছাচারিতার মাধ্যমে জনবল নিয়োগ দেয়ার পাঁয়তারার অভিযোগ উঠেছে। এছাড়া নিজের ছেলের নিয়োগ পরীক্ষা ও প্রক্রিয়া সহজ করতে ভারপ্রাপ্ত অধ্যক্ষ ডা. মো. আব্দুস সামাদের বিরুদ্ধে অন্য প্রার্থীকে বাদ দেয়ার অভিযোগ পাওয়া গেছে।

গত বছরের ২৫ সেপ্টেম্বর একটি জাতীয় দৈনিক পত্রিকায় ৬টি পদের জন্য নিয়োগ বিজ্ঞপ্তি দেয়া হয়। এতে প্রভাষক পদে ৩টি এবং মেডিক্যাল অফিসার, হিসাবরক্ষক, অফিস সহকারী কাম কম্পিউটার অপারেটর, নৈশ্য প্রহরী ও সুইপার পদে একজনের পদ উল্লেখ করা হয়। আগামী শুক্রবার (২০ জানুয়ারি) লিখিত পরীক্ষার জন্য তারিখ নির্ধারণ করা হয়েছে।

আবেদনে প্রায় ৪০ জনের অধিক প্রার্থী আবেদন করেন। তবে বাছাই প্রক্রিয়ায় অধিকাংশ প্রার্থীকেই বাদ দেয়া হয়েছে। এতে প্রভাষক পদে তিনজনের বিপরীতে আটজনকে পরীক্ষার জন্যে নির্ধারণ করা হয়, এই পদে ভারপ্রাপ্ত অধ্যক্ষের ছেলেও রয়েছে।

মেডিক্যাল অফিসার পদে একজনকেও রাখা হয়নি। হিসাব রক্ষক পদে ছয়জন ও অফিস সহকারী কাম কম্পিউটার অপারেটর পদে তিনজনকে পরীক্ষার জন্য বাছাই করা হয়েছে। এছাড়া নৈশ্য প্রহরী ও সুইপার পদের বিপরীতে শুধুমাত্র একজন করেই পরীক্ষা দিবেন।

বেশ কয়েকজন আবেদনকারী অভিযোগ করে বলেন, ভারপ্রাপ্ত অধ্যক্ষ ডা. মো. আবদুস সালাম নিজের ছেলেসহ অনৈতিকভাবে পছন্দের লোককে নিয়োগ দেয়ার পাঁয়তারা করছেন। এ জন্য যোগ্যতা থাকা সত্ত্বেও অধিকাংশ প্রার্থীকে বাদ দেয়া হয়েছে। আবার কয়েকটি পদে মাত্র একজনকেই পরীক্ষা দেয়ার সুযোগ দিয়েছেন। ৮টি পদের বিপরীতে মাত্র ১৯ জনকে রাখা হয়েছে। দেখা যাবে এই ১৯ জনের বেশ কয়েকজন পরীক্ষাই দিবে না। ফলে পছন্দের লোকদের নিয়োগ দিতে সুবিধা হবে।

যদিও অনৈতিকভাবে নিয়োগ দেয়ার বিষয়টি অস্বীকার করেছেন পাবনা হোমিওপ্যাথিক মেডিক্যাল কলেজ ও হাসপাতালের ভারপ্রাপ্ত অধ্যক্ষ ডা. মো. আব্দুস সামাদ। তিনি বলেন, সকল নিয়োগ প্রক্রিয়া অনুসরণ করেই নিয়োগ দেয়া হচ্ছে। আর পরীক্ষা হবে ডিসি অফিসে। আমার ছেলে পরীক্ষা দিলেও আমি নিয়োগ বোর্ডের থাকবো না, ফলে এই ব্যাপারে আমার কিছু করণীয়ও থাকবে না।

এ ব্যাপারে পাবনা জেলা প্রশাসক (ডিসি) ও কলেজের ম্যানেজিং কমিটির সভাপতি বিশ্বাস রাসেল হোসেন বলেন, আমি এই ব্যাপারে কিছু জানি না। আমি এখন এ বিষয়ে খোঁজখবর নিচ্ছি। খোঁজ নিয়ে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণ করছি।

আপনার চারপাশে ঘটে যাওয়া নানা খবর, খবরের পিছনের খবর সরাসরি দৈনিক অধিকারকে জানাতে ই-মেইল করুন- [email protected] আপনার পাঠানো তথ্যের বস্তুনিষ্ঠতা যাচাই করে আমরা তা প্রকাশ করব।
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত

নির্বাহী সম্পাদক: গোলাম যাকারিয়া

 

সম্পাদকীয় কার্যালয় 

১৪৭/ডি, গ্রীন রোড, ঢাকা-১২১৫।

যোগাযোগ: 02-48118243, +8801907484702 

ই-মেইল: [email protected]

এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, অডিও, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি।

Developed by : অধিকার মিডিয়া লিমিটেড