• বৃহস্পতিবার, ০২ ফেব্রুয়ারি ২০২৩, ১৯ মাঘ ১৪২৯  |   ২৭ °সে
  • বেটা ভার্সন
sonargao

আমন সংগ্রহে ব্যর্থ সরকারি খাদ্য গুদাম

  কাজী শাহরিয়ার রুবেল, আমতলী (বরগুনা)

১১ জানুয়ারি ২০২৩, ১০:৩৩
আমন সংগ্রহে ব্যর্থ সরকারি খাদ্য গুদাম
সরকারি খাদ্য গুদাম (ছবি : অধিকার)

বরগুনার আমতলী উপজেলার সরকারি খাদ্য গুদাম চলতি আমন মৌসুমের কোনো ধান সংগ্রহ করতে পারেনি। প্রকল্প অনুযায়ী ২০২২-২৩ অর্থবছরের নির্ধারিত সময়ের প্রায় দুই মাস অতিক্রম হলেও কৃষকদের থেকে তেমন সাড়া মেলেনি।

সরকার নির্ধারিত ধানের দাম বর্তমান বাজার থেকে কম এবং নানা বিধি-নিষেধ থাকায় কৃষকরা উপজেলার খাদ্য গুদামে মৌসুমি আমন ধান দিতে অনীহা প্রকাশ করেছেন।

উপজেলার কৃষকদের তথ্য মতে, নানাবিধ বিধি-নিষেধ ও প্রশ্নের সম্মুখীন হয়ে তারা ধান দিতে আগ্রহী নয়। তাছাড়া তৃণমূলে সরকারি ধান ক্রয়ের বিষয়ে অবগত না থাকায় এমন সমস্যার সৃষ্টি হয়েছে।

অন্য দিকে বাজার দরের সাথে সরকার কর্তৃক নির্ধারিত মূল্যে সামঞ্জস্য না থাকায় মৌসুমি এ সংগ্রহ অভিযান মুখ থুবরে পড়েছে বলে জানান কৃষকরা।

উপজেলা খাদ্য নিয়ন্ত্রণ অফিস সূত্রে জানা গেছে, সারা দেশের ন্যায় উপজেলার সরকার নির্ধারিত ধানের কেজি প্রতি দাম নির্ধারণ করা হয়েছে ২৮ টাকা। প্রকল্প অনুযায়ী ২০২২-২৩ অর্থবছরের আমন সংগ্রহের নির্ধারিত লক্ষ্যমাত্রা এক হাজার ৩৯৭ টন।

কৃষকদের কাছ থেকে আমন সংগ্রহের সময় ১৭ নভেম্বর থেকে শুরু হয়ে ২৮ ফেব্রুয়ারি পর্যন্ত থাকলেও এখন পর্যন্ত উপজেলা খাদ্য গুদাম ধান সংগ্রহ করতে ব্যর্থ। তাছাড়া উপজেলার ৭টি ইউনিয়ন ও একটি পৌরসভার কোন কৃষক সরকার নির্ধারিত মূল্যে দান দিতে রাজি হয়নি।

সরজমিনে কৃষকদের সঙ্গে কথা বলে জানা গেছে, সরকার কর্তৃক নির্ধারিত মূল্য এক হাজার একশত বিশ টাকা মণ। কিন্তু বাড়ি থেকে ব্যাপারীরা প্রতি মণ ধান কিনছেন এক হাজার দুইশত পঞ্চাশ টাকা করে। তাছাড়া আর্দ্রতা পরিমাপের জটিলতায় অনেক দূর থেকে সরকারি খাদ্য গুদামে ধান দিতে গিয়ে ফিরে আসতে হয়েছে ধান নিয়েই।

যা এক প্রকারের হয়রানি বলে দাবি কৃষকদের। তৃণমূল পর্যায়ে ধান সংগ্রহের নামমাত্র কমিটি থাকলেও তাদের কোনো প্রচার-প্রচারণা নেই। আবার অনেকেই জানেন না ধান দেওয়ার নির্ধারিত সময়।

এ বিষয়ে আমতলী উপজেলা খাদ্য গুদামের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা মো. হুমায়ুন কবির বলেন, ধানের বাজার মূল্যের চেয়ে সরকার নির্ধারিত মূল্য কম হওয়ায় আমন মৌসুমে ধান সংগ্রহ করতে পারিনি। তবে ধান সংগ্রহে কৃষকদের আগ্রহ বাড়ানোর চেষ্টা অব্যাহত আছে।

আমতলী নির্বাহী কর্মকর্তা ও ধান-চাল সংগ্রহ কমিটির সভাপতি মো. আশরাফুল আলম জানান, বিষয়টি খোঁজ নিয়ে যথাযথ ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

আপনার চারপাশে ঘটে যাওয়া নানা খবর, খবরের পিছনের খবর সরাসরি দৈনিক অধিকারকে জানাতে ই-মেইল করুন- [email protected] আপনার পাঠানো তথ্যের বস্তুনিষ্ঠতা যাচাই করে আমরা তা প্রকাশ করব।
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত

নির্বাহী সম্পাদক: গোলাম যাকারিয়া

 

সম্পাদকীয় কার্যালয় 

১৪৭/ডি, গ্রীন রোড, ঢাকা-১২১৫।

যোগাযোগ: 02-48118243, +8801907484702 

ই-মেইল: [email protected]

এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, অডিও, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি।

Developed by : অধিকার মিডিয়া লিমিটেড