• মঙ্গলবার, ০৭ ফেব্রুয়ারি ২০২৩, ২৪ মাঘ ১৪২৯  |   ১৬ °সে
  • বেটা ভার্সন
sonargao

মাঝরাতে ঘুমন্ত শিশুর প্রাণ কেড়ে নিল গাছবোঝাই ট্রাক

  হুমায়ুন কবির সূর্য, কুড়িগ্রাম

০৯ জানুয়ারি ২০২৩, ১৫:২০
মাঝরাতে ঘুমন্ত শিশুর প্রাণ কেড়ে নিল গাছবোঝাই ট্রাক

কুড়িগ্রামে লোড করা একটি ট্রাক নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে রাস্তা থেকে একটি বাড়িতে আছড়ে পরলে মুসা মিয়া (১০) নামে এক ঘুমন্ত শিশু ঘটনাস্থলেই মারা যায়।

গতকাল রবিবার (৮ জানুয়ারি) রাত আনুমানিক ১০টার দিকে ঘটনাটি সদর উপজেলার যাত্রাপুর ইউনিয়নের নয়ানী পাড়া গ্রামে ঘটেছে। নিহত শিশু ওই এলাকার শফিকুল ইসলামের ছেলে।

যাত্রাপুর ইউনিয়নের চেয়ারম্যান আব্দুল গফুর জানান, শিমুল গাছবোঝাই একটি ট্রাক নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে ওয়াপদা বাঁধের স্লোপে দিনমজুর শফিকুল ইসলামের দুটি ঘরের উপরে আছড়ে পরে। এ সময় ঘরের ভিতর ঘুমন্ত শিশু মুসা মিয়া গুরুতর আহত হয়। তাৎক্ষণিকভাবে তাকে কুড়িগ্রাম জেনারেল হাসপাতালে নেয়া হলে কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে মৃত বলে ঘোষণা করেন।

তিনি জানিয়েছেন, ট্রাকচাপায় পরিবারটির দুটি ঘরসহ আসবাবপত্র নষ্ট হয়ে গেছে। নিহত শিশুর নামাজে জানাজা শেষে সোমবার সকাল ১১টায় পার্শ্ববর্তী ঘোগাদহ ইউনিয়নের কালাইপাড়া গ্রামে দাদার পারিবারিক কবরস্থানে দাফন করা হয়।

নিহতের বাবা শফিকুল ইসলাম জানান, ঘটনার পর ট্রাকের মালিক বিশিষ্ট ব্যবসায়ী ও ঠিকাদার নজরুল ইসলামের ছেলে কাজলসহ জনপ্রতিনিধিরা রাতেই বাড়িতে এসেছিল। তারা দেড় লক্ষ টাকা ক্ষতিপূরণ দিবে বলে জানিয়েছে।

মামলার বিষয়ে শফিকুল ইসলাম জানান, গরীব মানুষ। মামলা করি কি হইবে। আল্লাহর মাল আল্লাহপাক নিছে। বিচার তার দরবার দিছি।

এ ব্যাপারে কুড়িগ্রাম সদর থানার অফিসার ইনচার্জ খান মো. শাহরিয়ার জানান, ঘটনাস্থলে পুলিশ পাঠানো হয়েছে। এ ব্যাপারে তদন্তকারী কর্মকর্তা এসআই জুয়েল সদর থানায় একটি জিডি করেছে। পরিবার থেকে এখনো কেউ মামলা করতে আসেনি।

আপনার চারপাশে ঘটে যাওয়া নানা খবর, খবরের পিছনের খবর সরাসরি দৈনিক অধিকারকে জানাতে ই-মেইল করুন- [email protected] আপনার পাঠানো তথ্যের বস্তুনিষ্ঠতা যাচাই করে আমরা তা প্রকাশ করব।
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত

নির্বাহী সম্পাদক: গোলাম যাকারিয়া

 

সম্পাদকীয় কার্যালয় 

১৪৭/ডি, গ্রীন রোড, ঢাকা-১২১৫।

যোগাযোগ: 02-48118243, +8801907484702 

ই-মেইল: [email protected]

এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, অডিও, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি।

Developed by : অধিকার মিডিয়া লিমিটেড