• রোববার, ২৯ জানুয়ারি ২০২৩, ১৫ মাঘ ১৪২৯  |   ১৬ °সে
  • বেটা ভার্সন
sonargao

ময়মনসিংহ জংশনে একই বগি বারবার লাইনচ্যুত

  শফিয়েল আলম সুমন, ময়মনসিংহ

২৬ ডিসেম্বর ২০২২, ১৬:৪৯
ময়মনসিংহ জংশনে একই বগি বারবার লাইনচ্যুত

ময়মনসিংহ রেলওয়ে জংশন স্টেশনে একই বগি বারবার লাইনচ্যুত হওয়ায় ট্রেন চলাচলে বিঘ্ন হওয়াসহ ব্যস্ততা বেড়ে গেছে কেওয়াটখালি লোকোসেডের কর্মীদের। ময়মনসিংহ রেলওয়ে জংশন স্টেশন থেকে ছেড়ে যাওয়া চট্টগ্রামগামী ময়মনসিংহ এক্সপ্রেস ট্রেনটি চারবার লাইনচ্যুত হয়। বগিটির ত্রুটি নির্ধারণ করে তবে বগিটি উদ্ধার করা হয়েছে।

আজ সোমবার (২৬ ডিসেম্বর) সকাল ১০টা ৫ মিনিটে বগিটি উদ্ধার করা হয়। এতে আড়াই ঘণ্টা পর ময়মনসিংহ-গৌরীপুর সেকশনে ট্রেন চলাচল সচল হয়েছে।

একই দিন সকাল ৭টা ৩৫ দিকে নগরীর বলাশপুর এলাকায় ৩৮ ডাউন ময়মনসিংহ এক্সপ্রেসের একটি বগির দুটি চাকা লাইনচ্যুত হয়। এ ঘটনায় ময়মনসিংহ-ভৈরব, ময়মনসিংহ-গৌরীপুর, ময়মনসিংহ-মোহনগঞ্জ-জারিয়াগামী ট্রেন চলাচল বন্ধ ছিল।

এ নিয়ে ১৫ দিনের ব্যবধানে তিনবার এবং এ বছর চতুর্থবারের মতো বগিটি একই এলাকায় লাইনচ্যুত হলো। এর আগে গত ১৭ ও ১১ ডিসেম্বর এবং ১৮ সেপ্টেম্বর ট্রেনটির একই বগি নগরীর বলাশপুর এলাকায় লাইনচ্যুত হয়।

ময়মনসিংহের রেলওয়ের সহকারী নির্বাহী প্রকৌশলী নারায়ণ প্রসাদ সরকার বলেন, এক বছরে চারবার একই ট্রেনের একই বগি লাইনচ্যুত হলো। এতে ধারণা করা হচ্ছে সমস্যাটা বগিরই।

দুটি তদন্তের পর লাইনের ত্রুটির কথা বলা হলে রেললাইন ঠিক করা হয়। কিন্তু অন্য সব ট্রেন চললেও একই ট্রেনের একই বগি লাইনচ্যুত হচ্ছিল। তাই এবার ট্রেনটি চট্টগ্রামে মেরামত কারখানায় নেওয়া হচ্ছিল।

তিনি আরও জানান, বগিটি লাইনচ্যুত হওয়ার খবর পেয়ে কেওয়াটখালি লোকোসেডের কর্মীরা ঘটনাস্থলে গিয়ে কাজ শুরু করেন। পরে বগিটি উদ্ধার করে ময়মনসিংহ রেলওয়ে জংশন স্টেশনে নিয়ে যাওয়া হয়।

আপনার চারপাশে ঘটে যাওয়া নানা খবর, খবরের পিছনের খবর সরাসরি দৈনিক অধিকারকে জানাতে ই-মেইল করুন- [email protected] আপনার পাঠানো তথ্যের বস্তুনিষ্ঠতা যাচাই করে আমরা তা প্রকাশ করব।
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত

নির্বাহী সম্পাদক: গোলাম যাকারিয়া

 

সম্পাদকীয় কার্যালয় 

১৪৭/ডি, গ্রীন রোড, ঢাকা-১২১৫।

যোগাযোগ: 02-48118243, +8801907484702 

ই-মেইল: [email protected]

এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, অডিও, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি।

Developed by : অধিকার মিডিয়া লিমিটেড