• বুধবার, ৩০ নভেম্বর ২০২২, ১৫ অগ্রহায়ণ ১৪২৯  |   ২৭ °সে
  • বেটা ভার্সন
sonargao

প্রকাশ্যে অবৈধ গ্যাস লাইন দিয়ে চলছে তুলার কারখানা 

  সাইদুর রহমান, রূপগঞ্জ (নারায়ণগঞ্জ)

২২ নভেম্বর ২০২২, ১৩:৩৫
প্রকাশ্যে অবৈধ গ্যাস লাইন দিয়ে চলছে তুলার কারখানা 

নারায়ণগঞ্জের রূপগঞ্জে নিয়ম নীতির তোয়াক্কা না করে দীর্ঘদিন ধরে তিতাস গ্যাসের অবৈধ সংযোগ নিয়ে বাণিজ্যিকভাবে তামিম টেক্সটাইল নামে একটি তুলা কারখানা চলছে বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে।

স্থানীয়রা জানান, কারখানাটি দীর্ঘদিন ধরে প্রকাশ্যে চললেও প্রশাসন ও তিতাস কর্তৃপক্ষ এ ব্যাপারে কোনো প্রকার পদক্ষেপ গ্রহণ করেনি। তিতাস গ্যাস অফিসের কর্মকর্তা কর্মচারীদের প্রতিমাসে মোটা অংকের মাসোয়ারা দিয়ে ম্যানেজ করে এ কারখানা চলছে বলেও জানান তারা। এতে করে প্রতিবছর লাখ লাখ টাকা রাজস্ব হারাচ্ছে সরকার।

জানা গেছে, উপজেলার তারাব পৌরসভার রূপসী কলাবাগান এলাকায় তামিম টেক্সটাইল নামে কারখানাটি অবস্থিত। কারখানাটিতে ৮-১০ জন শ্রমিক কাজ করেন। কারখানাটির মালিক নূর হোসেন নামে স্থানীয় এক প্রভাবশালী ব্যক্তি। বিভিন্ন গার্মেন্টস থেকে পরিত্যক্ত ও ময়লা তুলা কিনে এনে কারখানাতে ব্রয়লারের মাধ্যমে তুলাগুলো পরিষ্কার করা হয়।

কারখানাটিতে ৩টি ব্রয়লার রয়েছে। কারখানার ৩টি ব্রয়লারই চলে দিনরাত। কারখানার গ্যাস লাইনটি নিম্নমানের পাইপের মাধ্যমে আনা হয়েছে ওখানকার স্থানীয় আবাসিক লাইন থেকে। এতে করে যে কোনো সময় ঘটতে পারে বড় ধরনের দুর্ঘটনা।

কারখানাটিতে চলা ব্রয়লার তিনটিতে প্রতিমাসে ৪০ হাজার টাকার মতো বিল আসতে পারে। এছাড়া বাণিজ্যিকভাবে গ্যাস সংযোগ নিতে খরচ হয় কয়েক লাখ টাকা। এ কারণে কারখানাটির মালিক স্থানীয় প্রভাব খাটিয়ে অবৈধ গ্যাস ব্যবহার করে কারখানা চালাচ্ছেন।

কারখানার মালিক নুর হোসেন স্থানীয়ভাবে প্রভাবশালী হওয়ার কারণে সাধারণ মানুষ তার অবৈধ গ্যাস ব্যবহারের বিরুদ্ধে প্রতিবাদ করার সাহস পায় না।

এ দিকে গত ৩ বছর ধরে তার কারখানায় তিতাস গ্যাসের যাত্রামুড়া জোনাল অফিসের কিছু অসাধু কর্মকর্তা কর্মচারীদের মাসোয়ারার মাধ্যমে ম্যানেজ করে কারখানা চালাচ্ছেন বলে জানান স্থানীয়রা।

স্থানীয়রা অভিযোগ করে বলেন, কারখানাটিতে তিনটি ব্রয়লার রয়েছে। ব্রয়লারগুলো বিস্ফোরণ হলে বড় ধরনের ক্ষতি হয়ে যেতে পারে। আমরা সবসময় আতঙ্কে থাকি। কারখানাটির মালিক প্রভাবশালী হওয়ার কারণে আমরা এলাকাবাসী প্রতিবাদ করার সাহস পাচ্ছিনা। দ্রুত গ্যাস সংযোগটি বিচ্ছিন্নের দাবি জানাচ্ছি।

এ ব্যাপারে বক্তব্য নিতে কারখানায় গিয়ে ভারপ্রাপ্ত ব্যবস্থাপক সোহাগের সঙ্গে কথা বললে তিনি বলেন, আমি কয়েক মাস ধরে এ কারখানার দায়িত্বে আছি। গ্যাস সংযোগটি অবৈধ কি-না তা আমার জানা নেই।

অবৈধ গ্যাস সংযোগের ব্যাপারে কারখানাটির মালিক কাছে জানতে চাইলে তিনি প্রতিবেদকের সঙ্গে রাগ দেখিয়ে এ ব্যাপারে কোনো মন্তব্য করতে রাজি হয়নি।

তিতাস গ্যাস সোনারগাঁও আঞ্চলিক শাখার ব্যবস্থাপক প্রকৌশলী মিজবাউর রহমান বলেন, রূপসী এলাকায় ব্যান্ডেজ কারখানা অবৈধ গ্যাসে চলছে বলে তথ্য পেয়েছি। শীঘ্রই নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট নিয়ে এ গ্যাস সংযোগ গুলো বিচ্ছিন্ন করতে অভিযান পরিচালনা করা হবে।

আপনার চারপাশে ঘটে যাওয়া নানা খবর, খবরের পিছনের খবর সরাসরি দৈনিক অধিকারকে জানাতে ই-মেইল করুন- [email protected] আপনার পাঠানো তথ্যের বস্তুনিষ্ঠতা যাচাই করে আমরা তা প্রকাশ করব।
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত

নির্বাহী সম্পাদক: গোলাম যাকারিয়া

 

সম্পাদকীয় কার্যালয় 

১৪৭/ডি, গ্রীন রোড, ঢাকা-১২১৫।

যোগাযোগ: 02-48118243, +8801907484702 

ই-মেইল: [email protected]

এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, অডিও, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি।

Developed by : অধিকার মিডিয়া লিমিটেড