• সোমবার, ২৮ নভেম্বর ২০২২, ১৩ অগ্রহায়ণ ১৪২৯  |   ২০ °সে
  • বেটা ভার্সন
sonargao

অবাধে বালু উত্তোলনে বিলীন হচ্ছে যমুনা পাড়ের ফসলি জমি

  সোহেল রানা, সিরাজগঞ্জ

০৭ নভেম্বর ২০২২, ১৩:৫৩
অবাধে বালু উত্তোলনে বিলীন হচ্ছে যমুনা পাড়ের ফসলি জমি

সিরাজগঞ্জ সদর উপজেলার ভাটপিয়ারী এলাকায় সরকার দলীয় প্রভাবশালী একটি মহল বাংলা ড্রেজার দিয়ে অবৈধভাবে বালু উত্তোলন করছে। দীর্ঘদিন যাবত নদীতীর এলাকা থেকে বালু উত্তোলন অব্যাহত রাখায় ইতোমধ্যে কয়েক হাজার বিঘা ফসলি জমি নদীগর্ভে বিলীন হয়ে গেছে।

তীরে নদীর গভীরতা বেড়ে যাওয়ায় কয়েকদিন আগে ভাঙ্গনে অন্তত ১০টি বসতভিটাও বিলীন হয়ে গেছে। অবৈধ বালু উত্তোলন বন্ধে প্রতিবাদ করার কারণে প্রভাবশালীরা এলাকাবাসীকে মারপিট ও মিথ্যা মামলা দিয়ে হয়রানি করছে। কৃষি জমিসহ বসতভিটা রক্ষায় বালু উত্তোলন বন্ধে রবিবার সকালে নদী তীর এলাকায় জমির মালিকগন মানববন্ধন কর্মসূচি পালন করেছে।

ভাটপিয়ারী এলাকার আব্দুস সালাম ও ইসহাক মুন্সী জানান, প্রায় ৬ মাস যাবত সিরাজগঞ্জ শহরের সরকার দলের প্রভাবশালী কিছু ব্যক্তি তিন-চারটি বাংলা ড্রেজার দিয়ে অবৈধভাবে বালু উত্তোলন করছে। এতে কয়েক হাজার বিঘা ফসলী ইতোমধ্যে জমি বিলীন হয়ে গেছে। আমরা আখ আবাদ করেছিলাম। আখসহ জমি বিলীন হয়ে গেছে। ফসলি জমি হারিয়ে আমরা নিঃস্ব হয়ে পড়েছে।

একই গ্রামের শামীম হোসেন, মাসুদ ও জয়নাল আবেদীন জানান, ভাটপিয়ারী মৌজায় কোনো বালু মহাল নেই। জোরপূর্বক বালু উত্তোলন করা হচ্ছে। বাঁধা দিলে ককটেল ফাটিয়ে আমাদের ভয় দেখায়। আমরা গ্রামের মানুষ। শহরে গেলে মারপিট করে। মিথ্যা মামলা দিয়ে আমাদের হয়রানি করে থাকে।

ভাটপিয়ারী আজিজুল হক, আবু বকর সিদ্দিক ও সাইদুল ইসলাম জানান, প্রশাসন কিছুদিন আগে এসে জরিমানা করেছিল। কিন্তু বালু উত্তোলন বন্ধ করেনি। এরা দিনের বেলায় নদী তীর থেকে আধা কিলোমিটার দুর থেকে বালু উত্তোলন করে। আর সন্ধ্যার পর তীর ঘেঁষে বালু উত্তোলন করে। এতে নদীতে বিলীন হচ্ছে ফসলি জমি। এতে আমরা কৃষকরা চরম ক্ষতিগ্রস্ত হয়ে পড়েছি। এভাবে বালু উত্তোলন করলে আমাদের জমির পাশাপাশি বসতভিটাও নদীগর্ভে বিলীন হয়ে যাবে।

তারা বলছেন, মাত্র এক সপ্তাহ আগে ১০টি বসতভিটা বিলীন হয়ে গেছে। দ্রুত অবৈধ বালু উত্তোলন বন্ধ করা না হলে এলাকাবাসীর সাথে ড্রেজারের লোকজনের সংঘাত প্রাণহানির ঘটনা ঘটতে পারে। এলাকাবাসীর অভিযোগ প্রশাসন সবকিছু জেনেও না দেখার ভান করেছে।

সিরাজগঞ্জর সদর সহকারী কমিশনার (ভূমি) এসএম রকিবুল হাসান জানান, ভাটপিয়ারী এলাকায় কোনো সরকারি বালু মহাল নেই। এর আগেও সেখান থেকে কিছু লোকজন অবৈধভাবে বালু উত্তোলন করায় জরিমানা করা হয়েছে। এখনো যদি উত্তোলন করে তবে সরেজমিনে গিয়ে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

আপনার চারপাশে ঘটে যাওয়া নানা খবর, খবরের পিছনের খবর সরাসরি দৈনিক অধিকারকে জানাতে ই-মেইল করুন- [email protected] আপনার পাঠানো তথ্যের বস্তুনিষ্ঠতা যাচাই করে আমরা তা প্রকাশ করব।
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত

নির্বাহী সম্পাদক: গোলাম যাকারিয়া

 

সম্পাদকীয় কার্যালয় 

১৪৭/ডি, গ্রীন রোড, ঢাকা-১২১৫।

যোগাযোগ: 02-48118243, +8801907484702 

ই-মেইল: [email protected]

এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, অডিও, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি।

Developed by : অধিকার মিডিয়া লিমিটেড