• সোমবার, ২৮ নভেম্বর ২০২২, ১৩ অগ্রহায়ণ ১৪২৯  |   ২০ °সে
  • বেটা ভার্সন
sonargao

ডিম বিক্রি করে দৈনিক আয় ৪৫০০ টাকা

কোয়েল পাখি পালনে সফল বাবর 

  সেলিম রেজা, সাপাহার (নওগাঁ)

০৬ নভেম্বর ২০২২, ১২:৪১
কোয়েল পাখি পালনে সফল বাবর 

বাণিজ্যিকভাবে কোয়েল পাখি পালন করে সাফল্যের মুখ দেখছেন নওগাঁর সাপাহার উপজেলার গোডাউন পাড়া গ্রামের বাবর। বাবরের খামারে বর্তমানে দুই হাজার দুইশ কোয়েল পাখি রয়েছে।

সরেজমিনে দেখা যায়, বাড়ির পাশেই কোয়েল পাখির জন্য তিনি একটি আড়ৎঘর ভাড়া নিয়ে খামার তৈরি করেছেন। তিনি ও তার পরিবারের লোকজন এগুলোর দেখাশুনা করছেন।

বাবর জানান, এই বছরের মাঝামাঝি সময়ে তিনি কোয়েল পালন শুরু করেন। সাপাহার সদর কাঁচাবাজারে তার একটি ডিমের দোকান রয়েছে। যার ফলে দেশের বিভিন্ন প্রান্ত থেকে তাকে ডিম আমদানি করা লাগে। এই চিন্তা চেতনা থেকে মূলত কোয়েল পাখি পালন শুরু করেন তিনি। আর যেহেতু শীত মৌসুমে প্রচুর ডিমের চাহিদা থাকে তাই তিনি এই সিদ্ধান্ত নেন।

জানা যায়, বাবর দীর্ঘদিন ধরে কাঁচামালের ব্যবসা করেছেন। ২ বছর আগে থেকে মূলত তিনি কাঁচামালের ব্যবসা ছেড়ে ডিমের ব্যবসা শুরু করেন এবং সাফল্যও পান। কোয়েল পাখি পালনের পাশাপাশি তিনি ফাউমি মুরগীও পালন শুরু করেছেন। প্রথমে ৫০০০ কোয়েল পাখির বাচ্চা নিয়ে খামার তৈরি করেন। পরে কিছুটা বড় হলে পুরুষ পাখি গুলো তিনি বিক্রি করে দেন। এখন তার খামারে ২২০০ কোয়েল পাখি আছে। এখন তিনি একটি বাচ্চা ফোটানোর মেশিন কিনে বাচ্চা উৎপাদন করারও পরিকল্পনা করছেন।

বাবর জানান, একটি কোয়েল বছরে প্রায় ২০০ ডিম দেয়। প্রতিটি ডিমের ওজন ১৫ থেকে ২০ গ্রাম। ২ মাস বয়স থেকেই কোয়েল পাখি ডিম দিতে শুরু করে। মুরগির ডিমের চেয়ে তিনগুণ বেশি ক্যালরি থাকে কোয়েলের ডিমে। এছাড়া কোয়েল পাখির মাংস খুবই সুস্বাদু এবং পুষ্টিকর হওয়ায় দিন দিন কোয়েলের চাহিদা দ্রুত বৃদ্ধি পাচ্ছে। তাছাড়া মুরগির ও কোয়েলের ডিম বা মাংসের দামে পার্থক্যও বেশি না।

প্রতিবেশী জিল্লুর রহমান মাস্টার জানান, বাবরকে দেখে উদ্বুদ্ধ হয়ে তিনিও কোয়েল পাখি পালন করার পরিকল্পনা করছেন। ভালোভাবে লালন-পালন করলে কোয়েল পাখি পালন করে আর্থিক সচ্ছলতা আনা সম্ভব বলেও মনে করেন তিনি।

এ ব্যাপারে উপজেলা প্রাণিসম্পদ কর্মকর্তা ডা. গোলাম রব্বানী বলেন, বাবর আসলে এ বিষয়ে আমাদের কাছে কোনো সহযোগিতা চাননি। আমাদের সহযোগিতা ছাড়াই তিনি সফলতা পেয়েছেন। যদি তিনি আমাদের সঙ্গে আলোচনা করতেন তাহলে আমরা পাখিদের ইনজেকশন দেওয়াসহ বিভিন্ন ধরনের পরিচর্যা করার প্রয়োজনীয় পরামর্শ প্রদান করতে পারতাম।

তিনি আরও জানান, বর্তমানে কোয়েলের ডিম ও কোয়েল পাখির মাংসের ব্যাপক চাহিদা রয়েছে। তাই কোয়েল পালন করে উপজেলার অনেকেই এখন স্বাবলম্বী হচ্ছেন, দিনে দিনে এটি লাভজনক ব্যবসায় পরিণত হচ্ছে।

আপনার চারপাশে ঘটে যাওয়া নানা খবর, খবরের পিছনের খবর সরাসরি দৈনিক অধিকারকে জানাতে ই-মেইল করুন- [email protected] আপনার পাঠানো তথ্যের বস্তুনিষ্ঠতা যাচাই করে আমরা তা প্রকাশ করব।
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত

নির্বাহী সম্পাদক: গোলাম যাকারিয়া

 

সম্পাদকীয় কার্যালয় 

১৪৭/ডি, গ্রীন রোড, ঢাকা-১২১৫।

যোগাযোগ: 02-48118243, +8801907484702 

ই-মেইল: [email protected]

এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, অডিও, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি।

Developed by : অধিকার মিডিয়া লিমিটেড