• বুধবার, ৩০ নভেম্বর ২০২২, ১৫ অগ্রহায়ণ ১৪২৯  |   ২৯ °সে
  • বেটা ভার্সন
sonargao

সড়কে ছাত্রকে পিটিয়ে টিকটক প্রাকটিস করে রাহুল গ্যাং

  আবু ছালেহ (মুছা), শিবচর (মাদারীপুর)

০২ নভেম্বর ২০২২, ১৬:১৩
সড়কে ছাত্রকে পিটিয়ে টিকটক প্রাকটিস করে রাহুল গ্যাং
রাহুল গ্যাংয়ের সদসরা (ফাইল ছবি)

কিশোর গ্যাং এলাকায় ক্ষমতাবান ত্রাস হিসেবে নিজেদের প্রচার করতে টিকটকে মারপিটের ভিডিও করে তা সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ছড়িয়ে দেয়। এবার বাস্তব প্রয়োগ করে এক কলেজ ছাত্রকে মারধর করে আহত করার অভিযোগ উঠেছে রাহুল গ্যাং নামের একটি কিশোর গ্যাংয়ের উপর।

রাহুল গ্যাংয়ের হামলার শিকার হয়ে থানায় অভিযোগ দায়ের করা হলেও আমলে নেয়নি পুলিশ, এমন দাবি ভুক্তভোগী পরিবারের। এ ব্যাপারে মাদারীপুর পুলিশ সুপারের কাছে একটি লিখিত আবেদনপত্র দেয়া হয়েছে।

অভিযোগ সূত্রে জানা গেছে, শিবচর পৌর এলাকার কিছু তরুণ ও কিশোর তাদের আধিপত্য বিস্তারের জন্য নিজেরা মারধরের ভিডিও তৈরি করে টিকটক আকারে ফেসবুকে ছেড়ে দেয়।

রাহুল গ্যাং নামে এই গ্রুপের ভিডিয়ো নিয়ে ইতিমধ্যেই আলোচনা-সমালোচনা সৃষ্টি হয়েছে। এমন একটি ভিডিয়োতে দেখা যায়- একজন কিশোরকে লাঠি দিয়ে মারধর করছে পাঁচ থেকে সাতজনের একটি দল। এ সময় বলতে শোনা যায় যে, মাঝে মধ্যে নিজেদের হ্যাডম দেখানোর জন্য এইগুলো করা উচিত। রাস্তা থেকে কুত্তা ধইরা এনে বাইরাইয়া বাইরাইয়া সাইজ করা উচিত।

গত ২৩ অক্টোবর এই দলের কয়েকজন সদস্য সাইলেন্সারবিহীন (হলার লাগানো) মোটরসাইকেল নিয়ে বিকট শব্দে বেপরোয়া গতিতে চলার সময় শিবচরের সরকারি বরহামগঞ্জ কলেজের একাদশ শ্রেণীর শিক্ষার্থী হাসিব মাহমুদকে কাঁদাপানি জড়িয়ে দেয়। প্রতিবাদ করলে তারা দিপুকে ব্যঙ্গ-বিদ্রূপ করে এবং গালি-গালাজ করে চলে যায়। এরপর ২৬ অক্টোবর কলেজ থেকে পরীক্ষা দিয়ে বাড়ি যাওয়ার পথে উপশহর এলাকায় গতিরোধ করে পাশে নির্জন জায়গায় নিয়ে লোহার রড দিয়ে মাথার পেছনে আঘাত করে এবং শরীরের বিভিন্ন স্থানে এলোপাতাড়ি পিটিয়ে আহত করে। আহত হাসিব মাহমুদ দিপুকে শিবচর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে চিকিৎসা দেয়া হয় এবং শিবচর থানায় একটি অভিযোগ দায়ের করা হয়।

ভুক্তভোগী হাসিব মাহমুদ দিপুর অভিযোগ, কোনো ব্যক্তিগত বিরোধ না থাকা সত্ত্বেও আমাকে মারধর করা হয়েছে। এমনকি যারা আমাকে মারধর করেছে তাদের নামও তখন পর্যন্ত জানতাম না। পরে রাহুল, ফাহাদ, আব্দুল্লাহ, হামজা এই চারজনের নাম জানতে পারি। খোঁজ নিয়ে জানতে পারলাম তারা ৪ জন ছাড়াও আরও ৮ থেকে ১০ জন রাহুল গ্যাং নামে গ্রুপে চলে। এছাড়া নিজেদের ক্ষমতার প্রকাশের জন্য টিকটকে-ফেসবুকে মারধরের ভিডিয়ো দিয়ে থাকে। আমার মাথায় আঘাত করা হয়েছে, আমার সাথে অন্যায় করা হয়েছে। অন্য কারো সাথে যেন এমন না হয় তাই আমি নিজে থানায় লিখিত অভিযোগ দিয়েছি।

এ দিকে হাসিব মাহমুদ দিপুর বাবা আবুল হোসেন মৃধা বলেন, আমার ছেলের নিরাপত্তা নিয়ে শঙ্কিত আছি। থানায় লিখিত অভিযোগ দায়ের করলেও তা এফআইআর করা হয়নি। বরং থানায় অভিযোগ দেয়ায় আমাদের পরিবারকে বিভিন্ন লোকজন দিয়ে হুমকি দিচ্ছে। এ ব্যাপারে আইন-শৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনী কাছে আমাদের নিরাপত্তা ও ন্যায়বিচার দাবি করছি।

মাদারীপুরের শিবচর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মোহাম্মদ আনোয়ার হোসেন জানান, লিখিত অভিযোগ পাওয়ার পর একজন এসআইকে প্রাথমিক তদন্তের দায়িত্ব দেয়া হয়েছে। তদন্তের পরই এ ব্যাপারে ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

আপনার চারপাশে ঘটে যাওয়া নানা খবর, খবরের পিছনের খবর সরাসরি দৈনিক অধিকারকে জানাতে ই-মেইল করুন- [email protected] আপনার পাঠানো তথ্যের বস্তুনিষ্ঠতা যাচাই করে আমরা তা প্রকাশ করব।
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত

নির্বাহী সম্পাদক: গোলাম যাকারিয়া

 

সম্পাদকীয় কার্যালয় 

১৪৭/ডি, গ্রীন রোড, ঢাকা-১২১৫।

যোগাযোগ: 02-48118243, +8801907484702 

ই-মেইল: [email protected]

এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, অডিও, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি।

Developed by : অধিকার মিডিয়া লিমিটেড