• বুধবার, ৩০ নভেম্বর ২০২২, ১৫ অগ্রহায়ণ ১৪২৯  |   ২৭ °সে
  • বেটা ভার্সন
sonargao

সন্তানের হত্যাকারীকে গ্রেফতারের দাবিতে র‍্যাব প্রধানের কাছে মায়ের আকুতি

  রাফিকুর রহমান লালু, রাজশাহী

০২ নভেম্বর ২০২২, ১২:৫৪
সন্তানের হত্যাকারীকে গ্রেফতারের দাবিতে র‍্যাব প্রধানের কাছে মায়ের আকুতি

নিজের সন্তানের খুনিদের গ্রেফতারের দাবি তুলে র‍্যাবের মহাপরিচালক (ডিজি) বরাবর লিখিত আবেদন করেছেন এক মা। চলতি বছরের ৬ মে রাজশাহীর বেলপুকুর থানার বেলপুকুর মধ্যপাড়া গ্রামের সাহাদতের একাদশ পড়ুয়া ছেলে হাসিবুর রহমান সাগরকে হত্যা করে অজ্ঞাত ব্যক্তিরা।

ঈশ্বরদী জি আরপি থানা সূত্রে জানা যায়, সাগরকে খুন করে রেললাইনের উপর ফেলে রেখে যায় হত্যাকারীরা। সাগর নিখোঁজের ঘটনা নিয়ে সগরের পরিবার পূর্বেই থানায় একটি জিডি করে রেখেছিলে।

সাগর নিখোঁজের দুইদিন পর সাগরের মা রেললাইনের উপর পড়ে থাকতে দেখেন সাগরের লাশ। পরে পুলিশকে খবর দিলে ঈশ্বরদী জি আরপি থানা পুলিশ নিহত সাগরের লাশ উদ্ধার করে মর্গে পাঠায়। ময়না তদন্তে বেরিয়ে আসে সাগরকে দুইদিন আগেই হত্যা করা হয়েছিল। তবে হত্যার ঘটনা পুলিশ শনাক্ত করতে সক্ষম হলেও হত্যাকারীরা দীর্ঘ ৬ মাসের বেশি সময় ধরে রয়েছে ধরা-ছোঁয়ার বাহিরে।

নিহত সাগরের মায়ের দাবি, ছেলে হত্যার জন্য তিনি কয়েকজন সন্দেহ ভাজন আসামিদের নাম ও দিয়েছিলেন জিআরপি থানার ওসি গোপালের কাছে। তিনি বলেন- পুলিশ বলেছিলেন সন্দেহভাজন আসামিদের দেখলে খবর দিতে। পরে জিআরপি থানায় আসামিদের আটকের বিষয়ে খবর দিলে পুলিশ বলে- জিআরপি থানা থেকে ঘটনাস্থল ১২ কিলোমিটার দূরে। এছাড়া জনবল সংকট সাথে রয়েছে গাড়ির জটিলতা। এ সময় তারা নিহতের মা ও মামলার বাদী হাসি বেগমকে মামলাটি অন্য সংস্থার কাছে হস্তান্তরের পরামর্শ দেন।

পুলিশের এমন উদাসীনতা দেখে হাসি বেগম রাজশাহীতে সংবাদ সম্মেলন করেছেন কিছুদিন পূর্বে। হাসি বেগমের দাবি- আমার ছেলেকে প্রতিবেশী সুজন দম্পতি হত্যা করেছেন। হাসি বেগমের স্বামী সাহাদত হোসেন বলেন- সাগর অধিক সময় সেই সুজন দম্পতির বাড়িতে যাওয়া আসা করত। বেলপুকুর এলাকায় সুজন একজন ভয়ংকর প্রকৃতির ব্যক্তি।

তার নামে প্রশাসনের নিকট পূর্বে নানা অভিযোগ রয়েছে। হাসি বেগম বলেন, আমার ছেলে নিহত হওয়ার পর সুজনের কথা চলাচল সব কিছু সন্দেহের দিকে ইশারা দেয়। সুজন ও তার স্ত্রী সন্দেহ থেকে বাঁচতে ছুটে যান পত্রিকা অফিসে। যে সকল গণমাধ্যম এই হত্যার ঘটনা নিয়ে ধারাবাহিক সংবাদ প্রকাশ করছে তাদের সংবাদ ভিন্ন দিকে ঘুরানোর চেষ্টা করেন এই দম্পতি।

এই হত্যার ঘটনা নিয়ে ঈশ্বরদী থানার সাবেক ওসি বর্তমানে রাজশাহী জি আরপি থানায় কর্মরত গোপালের সাথে কথা বললে তিনি গণমাধ্যম কর্মীদের জানান- দীর্ঘ ২৫ বছর পরেও হত্যার ঘটনা নিষ্পত্তি হওয়ার উদাহরণ রয়েছে। তাই হয়ত এই ঘটনা উদ্ঘাটন হবে এক সময়। তিনি অন্যত্র বদলী হওয়ার কারণে এর বেশি কথা বলতে নারাজ।

হাসি বেগম কান্না জড়িত কণ্ঠে বলেন, সরকার সব কিছুতেই সুনামের খাতা ভারিকরে তুলেছেন, অথচ আমি আমার ছেলের হত্যাকারীকে আটকের বিষয় নিয়ে পাগলের মত ঘুরছি। শেষে ৩০ অক্টোবর র‍্যাবের মহাপরিচালকের নিকট আবেদন করেছি হত্যাকারীদের গ্রেফতারের দাবি নিয়ে।

আপনার চারপাশে ঘটে যাওয়া নানা খবর, খবরের পিছনের খবর সরাসরি দৈনিক অধিকারকে জানাতে ই-মেইল করুন- [email protected] আপনার পাঠানো তথ্যের বস্তুনিষ্ঠতা যাচাই করে আমরা তা প্রকাশ করব।
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত

নির্বাহী সম্পাদক: গোলাম যাকারিয়া

 

সম্পাদকীয় কার্যালয় 

১৪৭/ডি, গ্রীন রোড, ঢাকা-১২১৫।

যোগাযোগ: 02-48118243, +8801907484702 

ই-মেইল: [email protected]

এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, অডিও, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি।

Developed by : অধিকার মিডিয়া লিমিটেড