• বৃহস্পতিবার, ০১ ডিসেম্বর ২০২২, ১৬ অগ্রহায়ণ ১৪২৯  |   ২৪ °সে
  • বেটা ভার্সন
sonargao

পোশাক শ্রমিকের রক্তাক্ত লাশ উদ্ধার

  তুষার আহমেদ, নারায়ণগঞ্জ

২৯ অক্টোবর ২০২২, ১৬:৫২
পোশাক শ্রমিকের রক্তাক্ত লাশ উদ্ধার
উদ্ধারকৃত মরদেহ (ফাইল ছবি)

নারায়ণগঞ্জের চাষাঢ়া থেকে জয়নুর রহমান জনি নামে এক পোশাক শ্রমিকের রক্তাক্ত লাশ উদ্ধার করা হয়েছে। শনিবার (২৯ অক্টোবর) সকাল সোয়া ছয়টার দিকে চাষাঢ়া রেললাইনের পাশে প্রধান সড়কের উপর থেকে মরদেহটি উদ্ধার করে হয়েছে বলে জানিয়েছেন রেলওয়ে পুলিশের নারায়ণগঞ্জ স্টেশনের ইনচার্জ এসআই মোখলেসুর রহমান।

তার ধারণা, ছিনতাইকারীর ছুরিকাঘাতে নিহত হতে পারে ২৪ বছর বয়সী ওই তরুণ।

জানা গেছে, নিহত জয়নুর রহমান জনি কুষ্টিয়া জেলার দৌলতপুরের প্রাগপুর গ্রামের ইলিয়াস হোসেন লালটুর ছেলে। সে নারায়ণগঞ্জের বিসিক শিল্পাঞ্চলের একটি পোশাক কারখানায় জুনিয়র কোয়ালিটি ইনচার্জ পদে চাকরি করতেন।

নিহতের বড় ভাই মো. হাবিব বলেছেন, জনি ভোটার আইডি কার্ডের ছবি তোলার জন্য একদিনের ছুটিতে গ্রামে গিয়েছিলেন। শুক্রবার সন্ধ্যায় সে গ্রামের বাড়ি থেকে নারায়ণগঞ্জে আসার জন্য বাসে উঠে। আজ শনিবার সকালে পুলিশ ফোন করে ছোটভাইয়ের মৃত্যুর খবর জানায়। জনির সাথে সর্বোচ্চ দুই-তিনশ টাকার বেশি ছিল না। বেতনও এখনো পায়নি।

তিনি আরও বলেন, আমিই বাসের টিকিট কেটে দিয়েছিলাম। ওর সাথে একটা বাটন মোবাইল ফোন ছিল। এই কয়টা টাকা আর মোবাইলের জন্য আমার ভাইকে ছিনতাইকারীরা মেরে ফেলল!

প্রাথমিক তদন্ত ও স্থানীয়দের বরাতে এসআই মোখলেসুর রহমান বলেন, ছিনতাইকারীদের সঙ্গে ধস্তাধস্তির এক পর্যায়ে পায়ে ছুরিকাঘাতপ্রাপ্ত হন জনি। অতিরিক্ত রক্তক্ষরণে ঘটনাস্থলেই মারা যান ওই তরুণ। তার সঙ্গে একটি ব্যাগ থাকলেও টাকা বা মোবাইল ফোন সেখানে পাইনি। কর্মস্থলের একটি পরিচয়পত্র থেকে নিহতের পরিবারের সঙ্গে যোগাযোগ করি। এই ঘটনায় রেলওয়ে থানায় মামলা হবে।

আপনার চারপাশে ঘটে যাওয়া নানা খবর, খবরের পিছনের খবর সরাসরি দৈনিক অধিকারকে জানাতে ই-মেইল করুন- [email protected] আপনার পাঠানো তথ্যের বস্তুনিষ্ঠতা যাচাই করে আমরা তা প্রকাশ করব।
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত

নির্বাহী সম্পাদক: গোলাম যাকারিয়া

 

সম্পাদকীয় কার্যালয় 

১৪৭/ডি, গ্রীন রোড, ঢাকা-১২১৫।

যোগাযোগ: 02-48118243, +8801907484702 

ই-মেইল: [email protected]

এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, অডিও, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি।

Developed by : অধিকার মিডিয়া লিমিটেড