• সোমবার, ২৮ নভেম্বর ২০২২, ১৩ অগ্রহায়ণ ১৪২৯  |   ২৯ °সে
  • বেটা ভার্সন
sonargao

মানিকগঞ্জে রাস্তার কাজ বন্ধ, দুর্ভোগে হাজারো মানুষ

  সাদিকুর রহমান, স্টাফ রিপোর্টার, মানিকগঞ্জ:

২৯ অক্টোবর ২০২২, ১৬:৩৬
গ্রামের রাস্তা

মানিকগঞ্জের সাটুরিয়া উপজেলার বরাইদ ইউনিয়নের ফাজিলাবাড়ী গ্রামের রাস্তা মেরামতের কাজ দীর্ঘদিন ধরে বন্ধ রয়েছে। ফলে ভোগান্তিতে রয়েছে কয়েকটি গ্রামের নানা শ্রেনী পেশার হাজারো মানুষ। চলাচলের একমাত্র রাস্তাটি এখন চলাচলের অনুপযোগী বিধায় অবরুদ্ধ এলাকাবাসী।রাস্তাটি আদৌ সম্পন্ন করা হবে কিনা তা নিয়ে এলাকাবাসীর মধ্যে গভীর ক্ষোভ বিরাজ করছে।

সরেজমিনে দেখা যায়, রাস্তার দুইপাশের ফসলি জমির মাটি কেটে রাস্তার বেড তৈরী করা হয়েছে। ফলে রাস্তাটিতে ড্রেনের ন্যায় জলাবদ্ধতার তৈরী হয়েছে। যার ফলে রাস্তাটি দিয়ে চলাচল অসম্ভব হয়ে পড়েছে।

এ বিষয়ে ফাজিলাবাড়ী প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক মোঃ জামাল হোসেন দৈনিক অধিকারকে বলেন,বিদ্যালয়ে যাতায়াতের একমাত্র রাস্তাটি পাকা হবে বলে দীর্ঘদিন ধরে মাটি খুরে ড্রেন বানিয়ে রেখেছে। যার ফলে চলাচল খুবই কষ্টকর। আর একটু বৃষ্টি হলেই জলাবদ্ধতা তৈরী হয় ফলে চলাচল অসম্ভব হয়ে পড়ে। ছোট শিশুদের পক্ষে তখন বিদ্যালয়ে উপস্থিত হওয়া সম্ভব হয় না।এমতাবস্থায় বিদ্যালয়ের শিক্ষক শিক্ষার্থীদের বিদ্যালয়ে আসা যাওয়া দুস্কর হয়ে পড়ায় শিক্ষার পরিবেশ মারাত্মক ব্যাহত হচ্ছে।

ফাজিলাবাড়ী মসজিদের ইমাম দৈনিক অধিকারকে জানান, এলাকার একমাত্র রাস্তাটি উন্নয়ের নামে বিকল হয়ে পড়ায় মানুষ প্রতিনিয়ত চরম দুর্ভোগের শিকার হচ্ছে, মসজিদে মুসুল্লিদের আসা খুবই কষ্টকর হয় পড়েছে। অনেক সময় অনেক মুসুল্লি বাড়ি থেকে অযু করে নামাজের উদ্যেশ্য রওনা দিলেও মসজিদ পর্যন্ত পৌঁছাতে আবার গোসল করার মতো অবস্থা হয়ে পড়ে।

স্থানীয় আওয়ামী লীগ নেতা আঃ আজিজ দৈনিক অধিকারকে বলেন, আবাদি জমি কেটে মাটি নেওয়ার নিয়ম না থাকলেও আমরা এলাকার রাস্তার স্বার্থে ঠিকাদার এবং ইঞ্জিনিয়ার অফিসের লোকদের কথা মত রাস্তার দুইপাশের ফসল নষ্ট করে মাটি দিতে সম্মতি দেই। পরে তারা রাস্তার দুইপাশ থেকে ভেকু দিয়ে মাটি নিয়ে রাস্তার দুইপাশের বেড তৈরী করে এবং কিছুদিনের মধ্যেই অন্যত্র থেকে মাটি এনে ভরাট করবে বলে চলে যায়। তারপর বিভিন্ন সময় কাজ শুরু করবে বলে নানা তাল-বাহানায় প্রায় এক বছর অতিবাহিত হয়ে যাচ্ছে কিন্তু কাজ শুরু হয়নি। ইদানিং সে আমাদের ফোনও রিসিভ করে না।

ঠিকাদারের এই গাফলতির কারনে রাস্তার কাজ বন্ধ থাকায় এলাকার ব্যাবসায়ী খামারি কৃষকসহ নানা শ্রেনী পেশার হাজারো মানুষকে প্রতিনিয়ত দুর্ভোগের কবলে পড়তে হচ্ছে। এতে করে অর্থনৈতিক ভাবেও আমাদের হুমকির মুখে পড়তে হচ্ছে। তাই সরকারের কাছে আমরা জোর দাবী জানাই আমাদের এলাকার চলাচলের একমাত্র রাস্তাটির বাকি কাজ যেন অতি দ্রুত সম্পন্ন করে এই ভোগান্তি থেকে আমাদের নিস্তার দেয়া হয়।

এ বিষয়ে কথা বলার জন্য ঠিকাদার মোঃ মিজানুর রহমানের ফোনে একাধিক বার কল দিলেও সে ফোন রিসিভ করে নাই। রাস্তার কাজে নিয়োজিত ঠিকাদারের ম্যানেজার মোঃ মেহেদি হাসান দৈনিক অধিকারকে অভিযোগ করে বলেন আমার কয় মাসের বেতন বাকি রাখছে, সে আমার কলও ধরে না।

এ ব্যাপারে এলজিইডির নির্বাহী প্রকৌশলী মোঃ ফয়জুল হক দৈনিক অধিকারকে দ্রুত রাস্তার কাজ চালু করার আশ্বাস দিয়ে বলেন,বিষয়টি আমি অবগত ছিলাম না।কোনভাবেই জনদুর্ভোগ তৈরী করা যাবে না। যদি এমনটি হয়ে থাকে তবে ঠিকাদারের বিরুদ্ধে আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

আপনার চারপাশে ঘটে যাওয়া নানা খবর, খবরের পিছনের খবর সরাসরি দৈনিক অধিকারকে জানাতে ই-মেইল করুন- [email protected] আপনার পাঠানো তথ্যের বস্তুনিষ্ঠতা যাচাই করে আমরা তা প্রকাশ করব।
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত

নির্বাহী সম্পাদক: গোলাম যাকারিয়া

 

সম্পাদকীয় কার্যালয় 

১৪৭/ডি, গ্রীন রোড, ঢাকা-১২১৫।

যোগাযোগ: 02-48118243, +8801907484702 

ই-মেইল: [email protected]

এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, অডিও, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি।

Developed by : অধিকার মিডিয়া লিমিটেড