• বুধবার, ৩০ নভেম্বর ২০২২, ১৫ অগ্রহায়ণ ১৪২৯  |   ২৭ °সে
  • বেটা ভার্সন
sonargao

রাতের অন্ধকারে ঘরের সকলের হাত-পা বেঁধে দুর্ধর্ষ ডাকাতি

  আবুল মনছুর, হাটহাজারী (চট্টগ্রাম)

২৮ অক্টোবর ২০২২, ১২:৫৯
রাতের অন্ধকারে ঘরের সকলের হাত-পা বেঁধে দুর্ধর্ষ ডাকাতি

চট্টগ্রামের হাটহাজারী উপজেলার শিকারপুরে দুর্ধর্ষ ডাকাতির ঘটনা ঘটেছে। বুধবার দিবাগত রাতে ওই ইউনিয়নের ৪নং ওয়ার্ডের হাজি নজুমিয়া সওদাগরের বাড়ির মো. রাশেদের ঘরে ঘটনাটি ঘটে। এ সময় ডাকাতরা ২০ ভরি স্বর্ণালঙ্কার ও নগদ দুই লক্ষ টাকা নিয়ে যায় বলে ভুক্তভোগী পরিবার জানায়। মো. রাশেদ ওই বাড়ির মৃত আহমদ হোসেনের ছেলে। চট্টগ্রাম নগরে তার জুয়েলারি দোকান রয়েছে।

ভুক্তভোগী মো. রাশেদ জানান, ঘটনার দিন রাত ৩টা ২৫ মিনিটের দিকে বাড়ির লোহার জানালার একটি অংশ হাইড্রোলিক কাটার দিয়ে আটজনের একটি ডাকাত দল ঘরে প্রবেশ করেই তার রুমে ডুকে সস্ত্রীক ওড়না দিয়ে হাত পা বেঁধে ফেলে। ছিনিয়ে নেয় স্ত্রীর গলায় ও আলমারিতে থাকা ২০ ভরি স্বর্ণালঙ্কার। অপর দিকে ডাকাতরা দোতলায় উঠে আলমিরা তছনছ করে তার মেয়েকে দোতলা থেকে এনে পিতামাতার সাথে তাকেও ওড়না দিয়ে হাত পা বেঁধে ফেলে। ডাকাতদল মোবাইল, ল্যাপটপ না নিলেও বাচ্চাদের দুটি মাটির ব্যাঙ্ক ভেঙ্গে প্রায় চল্লিশ হাজার টাকা নিয়ে যায়।

তিনি আরও বলেন, ডাকাতদল গ্লাবস, থ্রি কোয়ার্টার পেন্ট, টি শার্ট ও মুখোশ পরিহিত ছিলেন। তাদের পায়ে কোনো জুতা কিংবা স্যান্ডেল ছিল না। আধ ঘণ্টার উপরে অবস্থান করা ডাকাতদল যাওয়ার সময় ঘরের বাতি নিভিয়ে ঘরের প্রধান দরজা দিয়ে বেরিয়ে যান। যাওয়ার সময় তাদের পোশাক বদলে নতুন কাপড় পরিধান করে বের হন। যাওয়ার সময় কোনো মামলা মোকাদ্দমা না করার কথা বলে তারা আমার স্ত্রী সুলতানাকে শাসিয়ে যান। পরে তাদের রেখে যাওয়া কাপড় পুলিশ আলামত হিসেবে নিয়ে যায়।

এ দিকে ঘটনার পর পর মদুনাঘাট পুলিশ ফাঁড়ি, স্থানীয় জনপ্রতিনিধি ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেন। এ ঘটনায় থানায় মামলা দায়ের করার প্রস্তুতি চলছে বলে জানা গেছে। এ দিকে মডেল থানার ওসি রুহুল আমিন ঘটনার সত্যতা স্বীকার করেন।

আপনার চারপাশে ঘটে যাওয়া নানা খবর, খবরের পিছনের খবর সরাসরি দৈনিক অধিকারকে জানাতে ই-মেইল করুন- [email protected] আপনার পাঠানো তথ্যের বস্তুনিষ্ঠতা যাচাই করে আমরা তা প্রকাশ করব।
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত

নির্বাহী সম্পাদক: গোলাম যাকারিয়া

 

সম্পাদকীয় কার্যালয় 

১৪৭/ডি, গ্রীন রোড, ঢাকা-১২১৫।

যোগাযোগ: 02-48118243, +8801907484702 

ই-মেইল: [email protected]

এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, অডিও, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি।

Developed by : অধিকার মিডিয়া লিমিটেড