• বৃহস্পতিবার, ০২ ফেব্রুয়ারি ২০২৩, ১৯ মাঘ ১৪২৯  |   ২৭ °সে
  • বেটা ভার্সন
sonargao

১১ মাস বেতন না পেয়ে গ্রাম পুলিশের সদস্যদের মানবেতর জীবনযাপন

  এম এ মোতালিব ভুঁইয়া, দোয়ারাবাজার (সুনামগঞ্জ)

২৫ অক্টোবর ২০২২, ১৫:১১
১১ মাস বেতন না পেয়ে গ্রাম পুলিশের সদস্যদের মানবেতর জীবনযাপন

সুনামগঞ্জের দোয়ারাবাজার উপজেলায় ৮১ জন গ্রাম পুলিশ সদস্য প্রায় ১১ মাস ধরে ইউনিয়ন পরিষদের (ইউপি) অংশের বেতন-ভাতা পাচ্ছেন না। যা তাদের বেতনের অর্ধেক। নিয়মিত কাজ করে বেতন-ভাতা না পেয়ে তারা মানবেতর জীবন যাপন করছেন। এছাড়া চার বছর ছয় মাস ধরে হাজিরা ভাতাও বন্ধ রয়েছে।

গ্রাম পুলিশ সূত্রে জানা গেছে, উপজেলার ৯টি ইউনিয়নে মোট ৮১ জন গ্রাম পুলিশ সদস্য। তাদের মধ্যে সাতজন দফাদার এবং ৭৪ জন মহল্লাদার রয়েছেন। সরকারি নির্দেশ অনুযায়ী দফাদারেরা প্রতি মাসে সাত হাজার টাকা ও মহল্লাদাররা ছয় হাজার ৫০০ টাকা বেতন পেয়ে থাকেন। মোট বেতনের অর্ধেক ইউপি থেকে দেওয়া হয়। কিন্তু ১১ মাস ধরে ইউপি অংশের বেতন-ভাতা বকেয়া পড়ে আছে।

গ্রাম পুলিশ দোয়ারাবাজার উপজেলা কমিটির সভাপতি মফিজুর রহমান জানান, গ্রাম পুলিশের সদস্যরা উপজেলা পরিষদ, ইউপিসহ গ্রাম-মহল্লায় দিন-রাত কষ্ট করে দায়িত্ব পালন করে যাচ্ছেন, কিন্তু বেতন-ভাতা পাচ্ছেন না। বেতন ভাতা না পেয়ে মানবেতর জীবনযাপন করছেন তারা।

উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা ফারজানা প্রিয়াংকা জানান, ইউপি চেয়ারম্যানগণ ট্যাক্স আদায়ের পরিমাণ থেকে অর্থাৎ ১% থেকে যে টাকা আসে তা দিয়ে ইউপি অংশের বেতন ভাতা দেওয়া হয়। করোনা ও বন্যার কারণে পর্যাপ্ত ট্যাক্স আদায় করা সম্ভব হয়নি বিধায় তহবিলে টাকার স্বল্পতা রয়েছে তাই সময়মত তাদেরকে বেতন-ভাতা দেয়া যায়নি। বিষয়টি দ্রুত সমাধান করা হবে।

আপনার চারপাশে ঘটে যাওয়া নানা খবর, খবরের পিছনের খবর সরাসরি দৈনিক অধিকারকে জানাতে ই-মেইল করুন- [email protected] আপনার পাঠানো তথ্যের বস্তুনিষ্ঠতা যাচাই করে আমরা তা প্রকাশ করব।
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত

নির্বাহী সম্পাদক: গোলাম যাকারিয়া

 

সম্পাদকীয় কার্যালয় 

১৪৭/ডি, গ্রীন রোড, ঢাকা-১২১৫।

যোগাযোগ: 02-48118243, +8801907484702 

ই-মেইল: [email protected]

এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, অডিও, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি।

Developed by : অধিকার মিডিয়া লিমিটেড