• মঙ্গলবার, ০৪ অক্টোবর ২০২২, ২০ আশ্বিন ১৪২৯  |   ২৮ °সে
  • বেটা ভার্সন
sonargao

অবৈধভাবে বালু তোলায় হুমকিতে কৃষি জমি-বসতবাড়ি

  মিলন মাহমুদ, সিঙ্গাইর (মানিকগঞ্জ)

২২ সেপ্টেম্বর ২০২২, ১৪:০০
অবৈধভাবে বালু তোলায় হুমকিতে কৃষি জমি-বসতবাড়ি
ড্রেজার মেশিন দিয়ে অবৈধভাবে বালু তোলা হচ্ছে (ছবি : অধিকার)

মানিকগঞ্জের সিঙ্গাইর উপজেলার বলধারা ইউনিয়নে ৮টি অবৈধ ড্রেজার মেশিন বসিয়ে বালু উত্তোলন করে চলছে মাটি ভরাট। এতে হুমকিতে পড়ছে কৃষি জমি ও বসতবাড়ি। স্থানীয়রা এ বিষয়ে দ্রুত প্রশাসনের হস্তক্ষেপ কামনা করছেন।

সরেজমিনে দেখা যায়, বলধারা ইউনিয়নের চারটি গ্রামে চলছে অবৈধ ৮টি ড্রেজার মেশিন। এগুলো হলো মো. কুদ্দুসের মালিকানাধীন খোলাপাড়া এলাকার A.A.B ইট ভাটায় ৩টি, মো. আকবরের মালিকানাধীন বেরুন্ডি এলাকার K.B.C ইট ভাটায় ২টি, বলধারা এলাকার আব্দুল জলিলের ইট ভাটায় ২টি ও মানিকদহ এলাকার আব্দুল আজিজের ইট ভাটায় ১টি ড্রেজার মেশিন বসিয়ে কৃষি জমির মাটি ও বালু তোলা হচ্ছে।

এসব ড্রেজার মেশিন দিয়ে কৃষি জমি ও পুকুর থেকে অবাধে মাটি ও বালু তোলে বিভিন্ন জায়গা ভরাট করা হচ্ছে। জমিগুলো ৬০/৭০ ফিট গভীর করে খনন করায় পাশের কৃষি জমি ও বসতবাড়ি ভেঙে পড়ার আশঙ্কা করছেন স্থানীয়রা। অনেক কৃষক তাদের শেষ সম্বল কৃষিজমি বাধ্য হয়ে নাম মাত্র মূল্যে বিক্রি করে দিচ্ছেন ওই মাটি ব্যবসায়ীদের কাছে।

রামকান্তুপুর এলাকার মো. আরশেদ বলেন, দীর্ঘদিন ধরে অবাধে চলছে অবৈধ এসব ড্রেজার মেশিন। জমিগুলো এতো গভীর করে কাটা হচ্ছে যে কোন সময় পাশের জমিগুলো ধসে পড়বে। প্রশাসনের কোনো ধরনের হস্তক্ষেপ চোখে পড়ছে না।

স্থানীয় আজিজ, সিদ্দিক, হাসমত, হামিদুর রহমানসহ বেশ কয়েকজন ভুক্তভোগী বলেন- ইট ভাটার মালিকরা ড্রেজার দিয়ে এমনভাবে গভীর করে মাটি কাটে পাশের কৃষি জমি বিক্রি করতে বাধ্য হয়। আবার কেউ যদি ইচ্ছা করে জমি দিতে না চায়, তাহলে সেখানে জোর পূর্বক মাটি কাটা শুরু করে দেয়। তখন কারো কিছু করার থাকে না। অবশেষে ওই ড্রেজার মালিকদের কাছেই কম মূল্যে জমি ছেড়ে দিতে হয় কৃষকদের। প্রশাসনকে জানালেও তেমন ব্যবস্থা হয় না।

অভিযুক্ত K.B.C ইট ভাটার মালিক মো. আকবর হোসেন বলেন, অল্প কিছু বালু তুলেছি এতে পাশের জমির তেমন কোন ক্ষতি হবে না। এছাড়া বলধারার সব ইট ভাটার মালিকরাই তো ড্রেজার দিয়ে মাটি কাটে।

বলধারা এলাকার ভাটা মালিক আব্দুল জলিল বলেন, জমিতে পানি থাকায় মনে হচ্ছে গভীর করে বালু তুলেছি। পানি কমলে বুঝতে পারবেন ড্রেজার দিয়ে অল্প গভীর করে মাটি কাটা হয়েছে।

সিঙ্গাইর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা দিপন দেবনাথ বলেন, খোলাপাড়া সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের মাঠে বালু ফেলার বিষটি আমার জানা আছে। তবে এর বাইরে ড্রেজার মেশিন দিয়ে যদি কেউ একটি বালুও ফেলে তাদের বিরুদ্ধে অতিদ্রুত ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

আপনার চারপাশে ঘটে যাওয়া নানা খবর, খবরের পিছনের খবর সরাসরি দৈনিক অধিকারকে জানাতে ই-মেইল করুন- [email protected] আপনার পাঠানো তথ্যের বস্তুনিষ্ঠতা যাচাই করে আমরা তা প্রকাশ করব।
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত

সম্পাদক: মো. তাজবীর হোসাইন  

নির্বাহী সম্পাদক: গোলাম যাকারিয়া

 

সম্পাদকীয় কার্যালয় 

১৪৭/ডি, গ্রীন রোড, ঢাকা-১২১৫।

যোগাযোগ: 02-48118243, +8801907484702 

ই-মেইল: [email protected]

এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, অডিও, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি।

Developed by : অধিকার মিডিয়া লিমিটেড