• সোমবার, ০৩ অক্টোবর ২০২২, ১৯ আশ্বিন ১৪২৯  |   ২৭ °সে
  • বেটা ভার্সন
sonargao

পিস্তল-গুলি-ককটেল-দেশীয় অস্ত্রসহ ৯ ডাকাত গ্রেফতার

  আব্দুল মালেক, স্টাফ রিপোর্টার (গাজীপুর)

২১ সেপ্টেম্বর ২০২২, ১১:০৫
পিস্তল-গুলি-ককটেল-দেশীয় অস্ত্রসহ ৯ ডাকাত গ্রেফতার
গ্রেফতারকৃত ডাকাত দলের সদস্যরা (ছবি : অধিকার)

গাজীপুর মেট্রোপলিটন পুলিশ মহানগরের কাশিমপুর থানা এলাকা থেকে গুলিবিদ্ধ একজনসহ ডাকাত দলের ৯ সদস্য গ্রেফতার করেছে। এ সময় উদ্ধার করা হয়েছে- পিস্তল, গুলি, ককটেলসহ দেশীয় অস্ত্র।

মঙ্গলবার দুপুরে গাজীপুর মেট্রোপলিটন পুলিশের সদর দফতরে এক প্রেস ব্রিফিংয়ে জিএমপি কমিশনার মোল্যা নজরুল ইসলাম এ সব তথ্য জানান।

গ্রেফতারকৃতরা হলেন- নীলফামারী সদরের নীলফামারী বাজার এলাকার আনোয়ার হোসেন ওরফে মিতা আনোয়ার (৩৫), মাদারীপুর সদরের চর গোবিন্দপুর এলাকার মো. রুবেল (৪০), ঢাকার কামরাঙ্গীরচর থানার পূর্ব রসুলপুর ৫নং গলি এলাকার বাবুল বেপারী ওরফে বাবু (৩৬), শরীয়তপুরের নড়িয়া থানার বিলদৈয়ানা এলাকার জাকির হোসেন ওরফে শুক্কুর ওরফে শুক্কুর ফরাজী (৪০), জেলা ও একই থানার কাজিকান্দি এলাকার সোলাইমান আকন ওরফে সোলেমান আকন (৪০), গোপালগঞ্জ কোটালিপাড়া থানার পশ্চিম নারিকেলবাড়ী এলাকার দুই সহোদর সাগর বাড়ই (৪১) ও মৃদুল বাড়ই ওরফে আকাশ (৪৫) এবং ইউসুফ আলী রানা (৩৫) ও বিধান হালদার (৩১)।

কমিশনার মোল্যা নজরুল ইসলাম জানান, গত ১৬ আগস্ট দুপুরে নগরীর কাশিমপুর থানাধীন এনায়েতপুর এলাকায় মোটর সাইকেল ও অটোরিকশা যোগে এসে ৬/৭ জন ডাকাত ককটেল বিস্ফোরণ ও চাপাতির আঘাতে আহত করে ডাচ বাংলা ব্যাংক মোবাইল ব্যাংকিং রকেট’র ডিএসএম শাহেদ শরীফের কাছ থেকে ৫ লাখ ২২ হাজার টাকা ডাকাতি করে নিয়ে যায়। এ ঘটনায় কাশিমপুর থানার মামলা হয়।

এ মামলার তদন্তকালে সোমবার রাতে গোপন সংবাদের ভিত্তিতে সন্দিগ্ধ আসামী ইউসুফ আলী রানা ও বিধান হালদারকে কাশিমপুরের তেতুইবাড়ী এলাকা থেকে গ্রেফতার করা হয়।

তিনি বলেছেন, গ্রেফতারকৃতদের জিজ্ঞাসাবাদের জানা যায় তাদের সঙ্গীরা ডাকাতি করার জন্য ওই রাত ১২টার দিকে কাশিমপুরের লস্করচালা এলাকার খান ব্রাদার্সের খেলার মাঠে দেশীয় অস্ত্রশস্ত্রসহ সমবেত হবে। পরে জিএমপির ৪টি টিম খান ব্রাদার্সের খেলার মাঠের আশেপাশে অবস্থান নেয়। রাত সাড়ে ১২টার দিকে কয়েকজন আসামি মাঠের ভেতরে প্রবেশের সময় পুলিশের উপস্থিতি টের পেয়ে যায়। তৎক্ষণাৎ পুলিশ তাদের গ্রেপ্তারের লক্ষ্যে চতুর্দিক থেকে ঘিরে ফেলে। এ সময় ডাকাত দলের সদস্যরা অতর্কিতভাবে পুলিশের উপর আক্রমণ করে। ডাকাতরা পুলিশকে লক্ষ্য করে গুলিবর্ষণ শুরু করে এবং বিস্ফোরক দ্রব্যের বিস্ফোরণ ঘটায়। পুলিশ নিজেদের জীবন ও সরকারি সম্পত্তি রক্ষার্থে ফাঁকা গুলিবর্ষণ করে। ডাকাত দলের সদস্যরা উপুর্যপরি গুলি ছুড়তে ছুড়তে পালাতে থাকলে তাদের ছোড়া গুলিতে বাম পায়ে গুলিবিদ্ধ হয় ডাকাত সদস্য সোলাইমান আকন ওরফে সোলেমান আকন।

এ সময় ডাকাত দলের বিস্ফোরক দ্রব্যের আঘাতে পুলিশ সদস্য মোস্তাফিজার রহমান ডান হাতের বাহুতে জখম প্রাপ্ত হয়। এ সময় ধাওয়া করে ৭ ডাকাতকে গ্রেফতার করা হয় এবং বাকিরা পালিয়ে যায়। গ্রেফতারকালে ডাকাতদের কাছ থেকে একটি বিদেশী পিস্তল, একটি ম্যাগজিন, এক রাউন্ড গুলি, ১২টি অবিস্ফোরিত ককটেল, তিনটি চাপাতি, দুইটি মোটরসাইকেল, দুইটি হেলমেট, একটি অটোরিকশা, দুই রাউন্ড পিস্তলের গুলির খোসা, ৭ রাউন্ড কার্তুজের খোসা, বিস্ফোরিত ককটেলের অংশবিশেষ ও ছেড়াফাঁটা স্কচটেপ, একটি ব্যাটারি চালিত ইজিবাইক উদ্ধার পূর্বক জব্দ করা হয়। তাৎক্ষণিকভাবে চিকিৎসার জন্য গুলিতে আহত ডাকাত সোলাইমান আকন ও সোলেমান আকন এবং আহত পুলিশ মোস্তাফিজারকে শহীদ তাজউদ্দিন আহমদ মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হয়।

এ বিষয়ে কাশিমপুর থানায় ডাকাতির প্রস্তুতি গ্রহণ, কর্তব্যরত পুলিশের উপর আক্রমণ, অবৈধ আগ্নেয়াস্ত্রের ব্যবহার এবং বিস্ফোরক দ্রব্য মজুদ ও বিস্ফোরণ ঘটানোর অপরাধে চারটি পৃথক মামলা প্রক্রিয়াধীন রয়েছে।

তিনি আরও বলেন, এ ডাকাত চক্রটি দীর্ঘদিন যাবৎ ককটেল ফাটিয়ে ও আগ্নেয়াস্ত্র ব্যবহার করে মানুষের মাঝে ভীতি সঞ্চারের মাধ্যমে অভিনব কায়দায় ঢাকা, গাজীপুর, ময়মনসিংহসহ দেশের বিভিন্ন জেলায় প্রকাশ্য দিবালোকে ডাকাতি করে আসছিল।

তাদের বিরুদ্ধে গাজীপুর, টাঙ্গাইল, ঢাকা, শরীয়তপুর, রংপুরসহ দেশের বিভিন্ন থানায় মামলা রয়েছে।

প্রেস ব্রিফিংয়ে উপস্থিত ছিলেন- জিএমপির অতিরিক্ত পুলিশ কমিশনার (প্রশাসন) মো. জিয়াউল হক, অতিরিক্ত পুলিশ কমিশনার (অপরাধ) মো. দেলোয়ার হোসেন, উপ পুলিশ কমিশনার (উত্তর) আবু তোরাব মো. শামছুর রহমান, উপ পুলিশ কমিশনার (ট্রাফিক ও মিডিয়া) মো. আলমগীর হোসেন প্রমুখ।

আপনার চারপাশে ঘটে যাওয়া নানা খবর, খবরের পিছনের খবর সরাসরি দৈনিক অধিকারকে জানাতে ই-মেইল করুন- [email protected] আপনার পাঠানো তথ্যের বস্তুনিষ্ঠতা যাচাই করে আমরা তা প্রকাশ করব।
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত

সম্পাদক: মো. তাজবীর হোসাইন  

নির্বাহী সম্পাদক: গোলাম যাকারিয়া

 

সম্পাদকীয় কার্যালয় 

১৪৭/ডি, গ্রীন রোড, ঢাকা-১২১৫।

যোগাযোগ: 02-48118243, +8801907484702 

ই-মেইল: [email protected]

এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, অডিও, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি।

Developed by : অধিকার মিডিয়া লিমিটেড