• মঙ্গলবার, ০৪ অক্টোবর ২০২২, ২০ আশ্বিন ১৪২৯  |   ২৮ °সে
  • বেটা ভার্সন
sonargao

বর ও তার বাবাকে কান ধরিয়ে উঠবস করানোর ভিডিয়ো ভাইরাল 

  সুমন খান, লালমনিরহাট

২১ সেপ্টেম্বর ২০২২, ১০:৪১
বর ও তার বাবাকে কান ধরিয়ে উঠবস করানোর ভিডিয়ো ভাইরাল 
বর ও তার বাবাকে কান ধরিয়ে উঠবস করানোর হচ্ছে (ছবি : অধিকার)

লালমনিরহাটের পাটগ্রাম উপজেলায় বর ও তার বাবাকে কান ধরে উঠবস করার ভিডিয়ো ধারণ করে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে প্রকাশ করায় পাটগ্রাম থানায় অভিযোগ দিয়েছে ভুক্তভোগী বরের বাবা ফজলুল হক (৫৫)।

বাল্যবিয়ে ও যৌতুকের অভিযোগ তুলে প্রকাশ্যে কান ধরিয়ে উঠবস করান ওই উপজেলার জোংড়া ইউনিয়নের আওয়ামী লীগের শিক্ষা বিষয়ক সম্পাদক রাকিবুল হাসান আশরাফী সোহেল।

জানা গেছে, জোংড়া ইউনিয়নের সরকারেরহাট এলাকার আজিজুল ইসলাম অলির মেয়ের সাথে বাউরা ইউনিয়নের হোসেনাবাদ এলাকার ফজলুল হকের ছেলে ফরিদুল ইসলামের বিয়ের কথা হয়।

গত শুক্রবার (১৬ সেপ্টেম্বর) রাতে বর ও বরের বাবা লোকজন নিয়ে কনের বাড়িতে যান। বিয়ের আগে যৌতুকের টাকা নিয়ে দুই পক্ষের মধ্যে বাদানুবাদের সৃষ্টি হয়। এ সময় রাকিবুল হাসান আশরাফী সোহেল খবর পেয়ে কনের বাড়িতে যান। বাল্যবিয়ে ও যৌতুকের টাকার জন্য চাপ প্রয়োগের কথা শুনে বর ও তার বাবাকে মামলা দিয়ে পুলিশে দিতে চান তিনি (রাকিবুল হাসান আশরাফী সোহেল)।

এ সময় বর ফরিদুল ইসলাম ও বরের বাবা ফজলুল হক ভুল স্বীকার করলে আশরাফী সোহেল কান ধরে উঠবস করার কথা বলেন। বর ও বরের বাবা ও ঘটক কান ধরে উঠবস করার সময় বাল্যবিয়ে ও যৌতুক চাবোনা বলে বর ও বরের বাবাকে শপথ বলাতে থাকেন।

গভীর রাতে ওই সময় আশরাফী সোহেল তার নিজের মোবাইল ফোনে ভিডিয়ো ধারণ ও নিজের ফেসবুক আইডি দিয়ে লাইভ প্রচার করতে থাকেন। সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ভিডিয়োটি ভাইরাল হলে গোটা উপজেলায় মিশ্র প্রতিক্রিয়ার তৈরি হয়। এ ঘটনায় গত রবিবার (১৮ সেপ্টেম্বর) রাতে পাটগ্রাম থানায় অভিযোগ দেন বরের বাবা ফজলুল হক।

ফজলুল হক দাবি করেন- ঘটনার দিন সোহেল তাদের কান ধরিয়ে উঠবস করার ভিডিয়ো ছড়িয়ে দিবেন বলে হুমকি দিয়ে ৩০ হাজার টাকা দাবি করেন। মান-সম্মানের ভয়ে বাধ্য হয়ে পরদিন ১৭ সেপ্টেম্বর ৩০ হাজার টাকা সোহেলকে দেওয়া হয়। টাকা নেওয়ার পরও তিনি ভিডিয়োটি নিজের সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ছেড়ে দিয়েছেন।

তিনি আরও বলেন, ভিডিয়ো দেখে এলাকার লোকজন নানা কথা বলছেন। লজ্জায় কোথাও যেতে পারছি না। মনে হয় আত্মহত্যা করি। এ কারণে পাটগ্রাম থানায় অভিযোগ দিয়েছি।

আজিজুল ইসলাম অলি বলেন, বরের বাবা জোর করেই বিয়ে ঠিক করে। ঠিক করার দিন ১৫ হাজার টাকা বরের বাবাকে দিই। বিয়ের দিন ৫০ হাজার ও পরবর্তীতে বাকি টাকা দেওয়ার কথা হয়। কিন্তু বিয়ে করতে এসে এক লাখ চায় না হলে বিয়ে হবে না বলে বরের বাবা জানায়। গরীব মানুষ টাকা কোথায় পাই। ঘটনা সোহেল ভাইকে জানালে তিনি এসে তাদেরকে থানায় দিতে চাইলে তারা নিজেরাই কান ধরে উঠবস করে।

রাকিবুল হাসান আশরাফী সোহেল বলেন, এলাকার হতদরিদ্র ভ্যান চালক অলির নাবালিকা মেয়ের সাথে বিয়ে ঠিক করে বরের বাবা ফরিদুল ইসলাম। পরবর্তীকালে নগদে যৌতুকের দ্বিগুণ টাকা দাবি করে। বিষয়টি জেনে ঘটনাস্থলে গিয়ে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তার সাথে কথা বলি।

বাল্যবিয়ে ও যৌতুকের টাকার চাপের কথা বর ও বরের বাবা এবং ঘটক স্বীকার করেন। এ কারণে থানায় দিতে চাইলে তাঁরা নিজেরাই ভুল স্বীকার করে কান ধরে উঠবস করেছে। আমি এসব ভিডিও করে আমার ফেসবুক আইডিতে লাইভ করি। ফেসবুকে লাইভ করাটা আমার ঠিক হয়নি। আমি কোনো টাকা নিইনি। যৌতুকের নেওয়া অগ্রিম টাকা ও খরচ বাবদ পাঁচ হাজারসহ ২০ হাজার টাকা বরের বাবা কনের বাবাকে দিয়েছে।

পাটগ্রাম থানার অফিসার ইনচার্জ ওমর ফারুক বলেন, কান ধরিয়ে উঠবস করানোর একটি অভিযোগ পেয়েছি। ঘটনাস্থলে পুলিশ পাঠানো হয়েছে। তদন্ত চলছে।

আপনার চারপাশে ঘটে যাওয়া নানা খবর, খবরের পিছনের খবর সরাসরি দৈনিক অধিকারকে জানাতে ই-মেইল করুন- [email protected] আপনার পাঠানো তথ্যের বস্তুনিষ্ঠতা যাচাই করে আমরা তা প্রকাশ করব।
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত

সম্পাদক: মো. তাজবীর হোসাইন  

নির্বাহী সম্পাদক: গোলাম যাকারিয়া

 

সম্পাদকীয় কার্যালয় 

১৪৭/ডি, গ্রীন রোড, ঢাকা-১২১৫।

যোগাযোগ: 02-48118243, +8801907484702 

ই-মেইল: [email protected]

এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, অডিও, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি।

Developed by : অধিকার মিডিয়া লিমিটেড