• মঙ্গলবার, ২৭ সেপ্টেম্বর ২০২২, ১২ আশ্বিন ১৪২৯  |   ২৯ °সে
  • বেটা ভার্সন
sonargao

নরসিংদীতে বরযাত্রীকে খাওয়াতে গাভী কেনায় বৃদ্ধকে থাপ্পড় দিয়ে হত্যা

  তন্ময় কুমার সাহা, রায়পুরা (নরসিংদী)

১২ সেপ্টেম্বর ২০২২, ১১:০৬
নরসিংদীতে বরযাত্রীকে খাওয়াতে গাভী কেনায় বৃদ্ধকে থাপ্পড় দিয়ে হত্যা
স্বজনদের আর্তনাদ (ছবি : অধিকার)

নরসিংদীর রায়পুরায় ভাগ্নির বিয়েতে মেহমানদের খাওয়ানোর জন্য আনা একটি গাভী (গাই গরু) নিয়ে রসিকতা করার জেরে তর্কে জড়িয়ে প্রতিপক্ষের দেওয়া থাপ্পড়ে আবু কালাম (৫০) নামে এক ব্যক্তির মৃত্যু হয়েছে।

শুক্রবার (৯ সেপ্টেম্বর) সন্ধ্যা সাড়ে ৭টার দিকে উপজেলার অলিপুরা উত্তরপাড়া এলাকায় হায়দার আলীর মুদি দোকানের সামনে ঘটনাটি ঘটে। নিহত আবুল কালাম একই এলাকার মৃত নুর চাঁন মিয়ার ছেলে ও পেশায় একজন কৃষক।

পারিবারিক ও স্থানীয় সূত্র জানায়, আগামী সোমবার আবু কালামের এক ভাগ্নির বিয়ে। ওই বিয়েতে কনে ও বরপক্ষের মেহমানদের খাওয়ানোর জন্য একটি গাভী কেনে তার ভগ্নীপতি। ঘটনার দিন রাতে এশার নামাজ শেষে বাড়ির পাশে হায়দার আলীর দোকানে চা খেতে যান কালাম। ওই সময় সেখানে ছিলেন একই এলাকার মৃত সোলেমান মিয়ার ছেলে জয়ধর আলীসহ তিন থেকে চারজন।

ওই সময় সবার সামনেই বিয়ের জন্য আনা ওই গরু নিয়ে বিরূপ মন্তব্য করছিলেন জয়ধর। গাভীর কথা জানাজানি হলে ভগ্নীপতির ইজ্জত যাবে ভেবে জয়ধরকে এ ধরনের সমালোচনা না করতে বারণ করেন তিনি। এতে তার প্রতি ক্ষিপ্ত হন জয়ধর। এ নিয়ে দুজনের কথা কাটাকাটি শুরু হয়।

মূলত এরই জেরে কালামের কান বরাবর সজোরে থাপ্পড় মারেন জয়ধর। এতে তিনি মাটিতে লুটিয়ে পড়েন। এরপর তার ভাই ইমান আলীসহ চার থেকে পাঁচ মিলে কালামকে ঘিরে ধরে শরীরের বিভিন্ন স্থানে কিল-ঘুষি ও লাথি দেন। পরে খবর পেয়ে স্বজনরা গিয়ে তাকে উদ্ধার করে স্থানীয় এক পল্লী চিকিৎসকের কাছে নেওয়ার পথে তার মৃত্যু হয়।

এ ঘটনার পর ঘরে তালা দিয়ে এলাকা ছেড়ে পালিয়েছেন অভিযুক্ত জয়ধর আলীসহ তার পরিবার ও জড়িত বাকি ব্যক্তিরা।

নিহতের মেয়ে রুনা আক্তার বলেন, বিয়েতে আসা মেহমানরা জানতে পারলে ওই গাভীর মাংস নাও খেতে পারেন। তাই এ নিয়ে লোকজনের সামনে সমালোচনা না করতে জয়ধরকে বারণ করেছিলেন বাবা। এতে ক্ষিপ্ত হয়ে বাবার কানে ও শরীরের বিভিন্ন স্থানে থাপ্পড়, কিল-ঘুষি ও লাথি দিয়ে মাটিতে ফেলে দেন তারা। ওই সময় তিনি শ্বাস নিতে পারছিলেন না। পরে স্থানীয় এক পল্লী চিকিৎসকের কাছে নেওয়ার পথে মৃত্যু হয় বাবার। এ ঘটনায় জড়িতদের শাস্তি দাবি করছি।

নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক ঘটনার প্রত্যক্ষদর্শী দুজন ব্যক্তি জানান, কথা কাটাকাটির এক পর্যায়ে জয়ধর ও তার লোকজন কালামকে ঘিরে ফেলেন। এ সময় তার কানে থাপ্পড় ও শরীরের কিল-ঘুষি ও লাথি মারেন তারা। এতে তিনি মাটিতে পড়ে গড়াগড়ি দিচ্ছিলেন।

সহকারী পুলিশ সুপার (রায়পুর সার্কেল) সত্যজিৎ কুমার ঘোষ বলেন, বিয়ের অনুষ্ঠানে মেহমানদের খাওয়ানো জন্য আনা গরু নিয়ে একটি দোকানে দুজনের মধ্যে কথা কাটাকাটি হয়। এক পর্যায়ে প্রতিপক্ষের থাপ্পড়ে কালাম নামে ওই ব্যক্তির মারা যান। এ ঘটনায় জড়িত ব্যক্তিদের আইনের আওতায় আনা হবে। তবে নিহতের পরিবারের পক্ষ থেকে এখনো লিখিত কোনো অভিযোগ পাননি।

আপনার চারপাশে ঘটে যাওয়া নানা খবর, খবরের পিছনের খবর সরাসরি দৈনিক অধিকারকে জানাতে ই-মেইল করুন- [email protected] আপনার পাঠানো তথ্যের বস্তুনিষ্ঠতা যাচাই করে আমরা তা প্রকাশ করব।
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত

সম্পাদক: মো. তাজবীর হোসাইন  

নির্বাহী সম্পাদক: গোলাম যাকারিয়া

 

সম্পাদকীয় কার্যালয় 

১৪৭/ডি, গ্রীন রোড, ঢাকা-১২১৫।

যোগাযোগ: 02-48118243, +8801907484702 

ই-মেইল: [email protected]

এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, অডিও, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি।

Developed by : অধিকার মিডিয়া লিমিটেড