• বুধবার, ২৮ সেপ্টেম্বর ২০২২, ১৩ আশ্বিন ১৪২৯  |   ২৮ °সে
  • বেটা ভার্সন
sonargao

নরসিংদীর হাজিপুরে 'সুজিত হত্যা' মামলায় ইউপি চেয়ারম্যান কারাগারে

  মনিরুজ্জামান, নরসিংদী

০৬ সেপ্টেম্বর ২০২২, ১২:২১
কারাগার

নরসিংদীর হাজিপুরে পূর্ব শত্রুতার জের ধরে সাবেক ইউপি সদস্য সুজিত সূত্রধরকে (৫৩) প্রকাশ্যে কুপিয়ে হত্যার ঘটনায় হাজিপুর ইউপি চেয়ারম্যান ইফসুফ খান পিন্টু'র জামিন নামঞ্জুর করে কারাগারে পাঠিয়েছে আদালত।

সোমবার (৫ সেপ্টেম্বর) সকাল ১১টার দিকে জেলা ও দায়রা জজ আদালতের বিচারক মোস্তাক আহাম্মদের আদালতে হত্যামামলায় চেয়ারম্যান ও তার ভাই জামিনের আবেদন করলে আদালত তাদের জামিন না মঞ্জুর করে কারাগারে প্রেরনের নির্দেশ প্রদান করেন।

এদিকে তাদের জামিন আবেদন নামঞ্জুর হওয়ার পর এজলাস থেকে বের হয়েই মামলার বাদি নিহতের ছেলে সুজন সূত্রধরকে হুমকি দিয়েছেন বলে অভিযোগ উঠেছে ইউপি চেয়ারম্যানের ভাই মনিরুজ্জামান খানের বিরুদ্ধে।

অভিযুক্ত ইউসুফ খান পিন্টু হাজিপুর ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সভাপতি ও বর্তমান হাজিপুর ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান। ২০০৬ সালে হাজিপুর ইউনিয়নের তৎকালিন বিএনপির চেয়ারম্যান সাইফুল ইসলাম সরকার ও তার ভাই রিপন সরকারকে প্রকাশ্যে গুলি করে ও কুপিয়ে হত্যা করে পিন্টু ও তার সমর্থকরা। জোড়া হত্যা মামলার ঘটনায় ইউসুফ খান পিন্টুর বিরুদ্ধে আদালতে মামলা চলমান রয়েছে।

আদালত সূত্রে জানা যায়, নিহত সুজিত সুত্রধর ইউপি সদস্য থাকাকালিন সময়ে পরিষদের চাল ও গম বিতরনের অনিয়মসহ নানা বিষয়ে হাজিপুর ইউনিয়নের বর্তমান চেয়ারম্যান ইউসুফ খান পিন্টুর সাথে বিরোধ ছিল। বিরোধের জের ধরে পিন্টু চেয়ারম্যানের নামে একাধিক মামলা করেন নিহত সুজিত সুত্রধর। মামলার জের ধরে সুজিতের উপর একাধিক বার হামলার ঘটনা ঘটেছে বলে সুজিত সূত্রধরের পরিবারের পক্ষ থেকে জানিয়েছেন। এরই মধ্যে গত ২২ই জুন বুধবার সন্ধ্যার পর ইউপি সদস্য সুজিত সূত্রধর বাড়ি থেকে হাজিপুর কাঠবাজারের নিজ ব্যবসা প্রতিষ্ঠানে যান। দোকানে ছেলের সঙ্গে ব্যবসা নিয়ে আলোচনা করেন। রাত ৮টার দিকে পিন্টুর ভাই মনিরুজ্জামানের নেতৃত্বে একদল সন্ত্রাসী ধারালো অস্ত্র নিয়ে সাবেক ইউপি সদস্য সুজিত সুত্রধরের উপর হামলা চালায়। ওই সময় সস্ত্রাসীরা সুজিত মেম্বারকে এলোপাথারী কুপাতে থাকে। ওই সময় নিহতের ছেলে সুজন সূত্রধর ও দোকানের কর্মচারীরা তাদের বাঁধা দিতে এগিয়ে গেলে তাদেরকেও পিটিয়ে আহত করে। পরে আহত সুজিত মেম্বারকে উদ্ধার করে নরসিংদী সদর হাসপাতালে নিয়ে গেলে কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করেন।

এ ঘটনায় হাজিপুর ইউপি চেয়ারম্যান ইফসুফ খান পিন্টুকে প্রধান আসামী করে ১৬ জনের নামে একটি হত্যা মামলা দায়ের করেন নিহতের ছেলে সুজন সূত্রধর। এরই প্রেক্ষিতে আজ সোমবার অভিযুক্তরা জেলা ও দায়রা জজ আদালতে আগাম জামিন নিতে আসেন। সকাল ১১টার দিকে তারা জামিনের আবেদন করলে আদালতের বিচারক জামিন না মঞ্জুর করে অভিযুক্ত হাজিপুর ইউনিয়নের বর্তমান চেয়ারম্যান ইফসুফ খান পিন্টু ও তার ভাই মনিরুজ্জামান খানকে কারাগারে প্রেরনের নির্দেশ প্রদান করেন।

মামলার বাদি নিহতের ছেলে সুজন সূত্রধর জানিয়েছেন, জামিন নামঞ্জুর হওয়ার পর এজলাস থেকে বের হয়েই ইউপি চেয়ারম্যানের ভাই মনিরুজ্জামান খান আমাকে এলাকা ছাড়া করার হুমকি দিয়েছেন। একই সাথে বাড়িঘর পুড়িয়ে দেওয়া সহ আমাকে মেরে ফেলার হুমকিও দেন। ওই সময় গনমাধ্যম কর্মীরা ছবি তুলতে গেলে তাদেরকেও দেখে নেওয়ার হুমকি প্রদান করেন।

কোর্ট ইন্সপেক্টর দেলোয়ার হোসেন জানিয়েছেন, ইউপি সদস্য হত্যামামলায় চেয়ারম্যান সহ দুইজন আগাম জামিনের আবেদন করেন। আদালতের বিজ্ঞ বিচারক তাদের জামিন নামঞ্জুর করে কারাগারে প্রেরনের নির্দেশ প্রদান করেন।

আপনার চারপাশে ঘটে যাওয়া নানা খবর, খবরের পিছনের খবর সরাসরি দৈনিক অধিকারকে জানাতে ই-মেইল করুন- [email protected] আপনার পাঠানো তথ্যের বস্তুনিষ্ঠতা যাচাই করে আমরা তা প্রকাশ করব।
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত

সম্পাদক: মো. তাজবীর হোসাইন  

নির্বাহী সম্পাদক: গোলাম যাকারিয়া

 

সম্পাদকীয় কার্যালয় 

১৪৭/ডি, গ্রীন রোড, ঢাকা-১২১৫।

যোগাযোগ: 02-48118243, +8801907484702 

ই-মেইল: [email protected]

এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, অডিও, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি।

Developed by : অধিকার মিডিয়া লিমিটেড