• মঙ্গলবার, ২৭ সেপ্টেম্বর ২০২২, ১২ আশ্বিন ১৪২৯  |   ২৯ °সে
  • বেটা ভার্সন
sonargao

জমির দখল নিতে নানামুখী ষড়যন্ত্র

  মো. মেহেদী হাসান সুমন, কেশবপুর (যশোর)

৩১ আগস্ট ২০২২, ১৭:৩৫
জমির দখল নিতে নানামুখী ষড়যন্ত্র
জমি দখল (ছবি : প্রতীকী)

যশোরের কেশবপুর সাতবাড়িয়া ইউনিয়নের জাহানপুর দাসপাড়ায় পাঁচু দাসের জমি দখলে নিতে গভীর ষড়যন্ত্রে লিপ্ত হয়েছে একটি পক্ষ। পাঁচু দাসের আপন ভাই কার্তিক দাস ও মৃত কানাই দাসের মেয়ে লতা রানী দাস এবং ববিতা দাসীকে বিভিন্নভাবে হয়রানি করা হচ্ছে।

জানা গেছে, উপজেলার জাহানপুর মৌজার ৩৪ ও ৮২৯ নং খতিয়ান, ২২৯৬ নং সিএস দাগের ৬২ শতক জমি ১৯২৭ সালে জয়নাল মোল্ল্য ও আনোয়ারা খাতুন পৈত্রিক সূত্রে প্রাপ্ত হয়। ১৯৬২ সালে উক্ত সম্পত্তির মালিক হন পাঁচু দাস। এস এ ৪০ নং খতিয়ানে, ২২৯৬ দাগে উক্ত ৬২ শতক জমির মালিক পাঁচু দাস। আরএস ২৬৫৫ দাগের ১৯ শতক এবং ২৬৫৮ দাগে ৪ শতক মালিক হন পাঁচু দাস।

আরএস ৪৬৮ দাগের ২৩ শতক মালিক হন পাঁচু দাস। পূর্ণ চন্দ্র দাস মৃত্যুকালে ৩ ছেলে পাঁচু দাস, কানাই দাস ও কার্তিক দাস এবং এক মেয়ে রেখে যান। কানাই দাস মারা যাওয়ায় এবং কার্তিক দাস অর্থাভাবে পাঁচু দাসের কাছে বিভিন্ন সময়ে প্রায় ১৪টি দলিলের মাধ্যমে ৬২ শতক জমির মধ্যে তাদের অংশের অধিকাংশ জমি বিক্রি করে দেয়।

এলাকার একটি কুচক্রী মহলের ইন্ধনে পরবর্তীকালে বিক্রি করা ওই জমি ফিরিয়ে নিতে নানামুখী ষড়যন্ত্র শুরু করে। গৌর দাস জমি দখলের লক্ষে ভোটার আইডি কার্ডে নাম পরিবর্তন করে পাঁচু দাস সেজে অন্য দুই ভাইয়ের জমি দখলে রেখেছে বলে অপপ্রচার চালিয়ে আসছে তারা।

অপপ্রচারকারীদের নেতৃত্ব দিচ্ছেন কার্তিক দাস ও লতা দাস। অপপ্রচার করলেও কার্তিক দাস ও লতা দাসের বাবা কানাই দাস জীবিত থাকাকালীন নিজেদের অংশের জমি পাঁচু দাসের কাছে বিক্রি করেছেন ১৪টি দলিলে সেটা উল্লেখ রয়েছে। হয়রানি বন্ধে প্রশাসনের ঊর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষের হস্তক্ষেপ কামনা করেছেন পাঁচু দাসসহ তার পরিবারের সদস্যরা।

আপনার চারপাশে ঘটে যাওয়া নানা খবর, খবরের পিছনের খবর সরাসরি দৈনিক অধিকারকে জানাতে ই-মেইল করুন- [email protected] আপনার পাঠানো তথ্যের বস্তুনিষ্ঠতা যাচাই করে আমরা তা প্রকাশ করব।
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত

সম্পাদক: মো. তাজবীর হোসাইন  

নির্বাহী সম্পাদক: গোলাম যাকারিয়া

 

সম্পাদকীয় কার্যালয় 

১৪৭/ডি, গ্রীন রোড, ঢাকা-১২১৫।

যোগাযোগ: 02-48118243, +8801907484702 

ই-মেইল: [email protected]

এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, অডিও, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি।

Developed by : অধিকার মিডিয়া লিমিটেড