• শুক্রবার, ১২ আগস্ট ২০২২, ২৮ শ্রাবণ ১৪২৯  |   ৩০ °সে
  • বেটা ভার্সন
sonargao

যুবলীগ ও ছাত্রলীগের কেন্দ্রীয় কমিটিতে দুই সহোদর অনিক ও পনিক

  নিজস্ব প্রতিবেদক

০৪ আগস্ট ২০২২, ১৫:৩১
ছাত্রলীগ
বেল্লাল আহমেদ ভূঞা অনিক (বামে) ও জাহিদুল ইসলাম ভূঞা পনিক (ডানে)। ছবি- সম্পাদিত

বাংলাদেশ আওয়ামী যুবলীগের কেন্দ্রীয় কমিটির সদস্য বেল্লাল আহমেদ ভূঞা অনিক এর সহোদর জাহিদুল ইসলাম ভূঞা পনিক সম্প্রতি বাংলাদেশ ছাত্রলীগের কেন্দ্রীয় কমিটির সহসম্পাদক হিসেবে মনোনীত হয়েছে। নরসিংদী জেলার মনোহরদী উপজেলার নামাগোতাশিয়া গ্রামের মুক্তিযুদ্ধের চেতনায় বিশ্বাসী রাজনৈতিক পরিবারে বেড়ে ওঠা বেল্লাল আহমেদ ভূঞা অনিক এবং জাহেদুল ইসলাম ভূঞা পনিকের। পিতা সামসুল হক ভূঞা ১৯৭১ সালের মহান মুক্তিযুদ্ধে মুজিব বাহিনীর মাধ্যমে অংশগ্রহণ করেন। দায়িত্ব পালন করেন গোতাশিয়া ইউনিয়ন ছাত্রলীগের প্রতিষ্ঠাতা সাধারণ সম্পাদক হিসেবে (১৯৭০-১৯৭৪)। ছাত্ররাজনীতি শেষে গোতাশিয়া ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের প্রতিষ্ঠাকালীন আহ্বায়ক কমিটির সদস্য হিসেবে দায়িত্ব পালন করেন। পিতার রাজনৈতিক সাহচর্যের পাশাপাশি সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের শিক্ষক মাতা মাকসুদা বেগমের অনুপ্রেরণায় ছাত্ররাজনীতিতে সক্রিয় হন দুই ভাই অনিক ও পনিক।

বেল্লাল আহমেদ ভূঞা অনিক ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের দর্শন বিভাগের সহকারী অধ্যাপক হিসেবে কর্মরত। শিক্ষকতার পাশাপাশি রাজনৈতিক সম্পৃক্ততা হিসেবে বাংলাদেশ আওয়ামী যুবলীগের কেন্দ্রীয় কমিটির সদস্য হিসেবে দায়িত্ব পালন করছেন। ছাত্রজীবনে অনিক ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের মুহসিন হল ছাত্রলীগের কার্যকরী সদস্য, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় ছাত্রলীগের কার্যকরী সদস্য, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় ছাত্রলীগের সহ-সভাপতি হিসেবে দায়িত্ব পালন করেন। এছাড়া মুক্তিযুদ্ধের চেতনায় বিশ্বাসী প্রগতিশীল শিক্ষক সংগঠন ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় নীল দলের কলা অনুষদের সদস্য হিসেবে দায়িত্ব পালন করছেন।

বেল্লাল আহমেদ ভূঞা অনিক তার রাজনৈতিক সম্পৃক্ততার বিষয়ে বলেন, মাধ্যমিক স্কুলে পড়াকালীন সময়ে ২০০৪ সালে গোতাশিয়া ইউনিয়নের ৬নং ওয়ার্ড ছাত্রলীগের সহ-সভাপতি নির্বাচিত হওয়ার মধ্য দিয়ে ছাত্র রাজনীতির যাত্রা শুরু হয়। রাজনৈতিক পরিবারের সন্তান হওয়ায় প্রত্যক্ষ ও পরোক্ষভাবে প্রতিটি আন্দোলন, সংগ্রাম ও নির্বাচনে সক্রিয় ভূমিকায় অবতীর্ণ হয়েছি। বাংলাদেশের ছাত্র রাজনীতির প্রাণকেন্দ্র ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ে ভর্তি হয়ে আমি বাংলাদেশ ছাত্রলীগের প্রতিটি আন্দোলন সংগ্রামে রাজপথে ছিলাম। এছাড়া ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের দর্শন বিভাগে প্রভাষক হিসেবে যোগদান করি। বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষকতা শুরু করার সময় থেকে বঙ্গবন্ধুর আদর্শ ও মুক্তিযুদ্ধের চেতনায় বিশ্বাসী আওয়ামী প্রগতিশীল শিক্ষকদের সংগঠন নীলদলের সক্রিয় সদস্য হিসেবে বিভিন্ন কার্যক্রমে যুক্ত আছি।

তিনি আরও বলেন, মুক্তিযুদ্ধ ও অসাম্প্রদায়িক চেতনায় বিশ্বাসী আমার পরিবারের অন্যান্য সদস্যরা আওয়ামী রাজনীতির সাথে জড়িত। গণতন্ত্রের মানসকন্যা, দেশরত্ন জননেত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে- সমৃদ্ধ আগামীর পথযাত্রায় বাংলাদেশের রাষ্ট্রদর্শন হচ্ছে, ক্ষুধামুক্ত, শোষণহীন-বৈষম্যহীন, অসাম্প্রদায়িক সোনার বাংলাদেশ বিনির্মাণের উন্নয়ন-প্রগতির দর্শন। সোনার বাংলাদেশ গড়ার লক্ষ্যে আমি আমার কর্মজীবনে আওয়ামী পরিবারের জন্য একনিষ্ঠ ও আপোসহীন থাকার বিষয়ে বদ্ধপরিকর।

বাংলাদেশ ছাত্রলীগের কেন্দ্রীয় কমিটির সহ-সম্পাদক জাহেদুল ইসলাম ভূঞা পনিক ঢাকা কলেজ শাখা ছাত্রলীগের রাজনীতিতে সক্রিয় যুক্ত থাকার পাশাপাশি মনোহরদী উপজেলা ছাত্রলীগের যুগ্ম আহ্বায়ক হিসেবে দায়িত্ব পালন করছেন। এছাড়া তিনি নামাগোতাশিয়া ইউনিয়ন এর ৬ নং ওয়ার্ড ছাত্রলীগের সাবেক বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিষয়ক সম্পাদক হিসেবে দায়িত্ব পালন করেন।

জাহেদুল ইসলাম ভূঞা পনিক তার রাজনৈতিক পথচলার অনুপ্রেরণা হিসেবে তার বাবা সাবেক ছাত্রনেতা সামসুল হক ভূঞা এর কথা উল্লেখ করে বলেন, রাজনৈতিক পরিবারে বেড়ে ওঠা এবং আমার বড়ভাই এর রাজনৈতিক সাহচর্য আমাকে এগিয়ে নিতে সহায়তা করেছে। জননেত্রী শেখ হাসিনার হাতকে শক্তিশালী করতে রাজপথে সক্রিয় ছিলাম যা ভবিষ্যতে অব্যাহত থাকবে। মুক্তিযুদ্ধের অসাম্প্রদায়িক চেতনার বাংলাদেশ গঠনে তার সক্রিয় অংশগ্রহণ থাকবে বলে তিনি উল্লেখ করেন।

নরসিংদী জেলার মনোহরদী উপজেলার রাজনৈতিক পরিবারে বেড়ে ওঠা বেল্লাল আহমেদ ভূঞা অনিক এবং জাহেদুল ইসলাম ভূঞা পনিক এর কেন্দ্রীয় নেতৃত্বের বিষয়টি জনসাধারণ ইতিবাচক হিসেবে দেখছে।

আপনার চারপাশে ঘটে যাওয়া নানা খবর, খবরের পিছনের খবর সরাসরি দৈনিক অধিকারকে জানাতে ই-মেইল করুন- [email protected] আপনার পাঠানো তথ্যের বস্তুনিষ্ঠতা যাচাই করে আমরা তা প্রকাশ করব।
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত

সম্পাদক: মো. তাজবীর হোসাইন  

নির্বাহী সম্পাদক: গোলাম যাকারিয়া

 

সম্পাদকীয় কার্যালয় 

১৪৭/ডি, গ্রীন রোড, ঢাকা-১২১৫।

যোগাযোগ: 02-48118243, +8801907484702 

ই-মেইল: [email protected]

এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, অডিও, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি।

Developed by : অধিকার মিডিয়া লিমিটেড