• রোববার, ১৪ আগস্ট ২০২২, ৩০ শ্রাবণ ১৪২৯  |   ২৯ °সে
  • বেটা ভার্সন
sonargao

ট্রেন-মাইক্রোবাস সংঘর্ষ 

থামছে না স্বজন হারানোদের আহাজারি, হাটহাজারীতে শোকের মাতম

  নাজিম উদ্দীন, স্টাফ রিপোর্টার (চট্টগ্রাম)

৩১ জুলাই ২০২২, ২০:৫২
থামছে না স্বজন হারানোদের আহাজারি, হাটহাজারীতে শোকের মাতম
স্বজন হারানোদের আহাজারি (ছবি : অধিকার)

চট্টগ্রামের মিরসরাইয়ে ট্রেন-মাইক্রোবাস সংঘর্ষের ঘটনায় নিহতদের স্বজনদের আহাজারি যেন থামছেই না, নিস্তব্ধ হাটহাজারীর চীকনদন্ডী খন্দকিয়া গ্রাম। ১১ জনের দাফন কাফন সম্পন্ন হয়েছে ৩০ জুলাই কিন্তু এখনো থামছে না স্বজনদের আহাজারি।

নিহতদের বাড়িতে গিয়ে দেখা যায়, কেউ কাঁদছেন ছেলের মৃত্যুতে; আর কেউ কাঁদছেন ভাইয়ের মৃত্যুতে। তাদের কান্নায় শোকে মাতম পুরো খন্দকিয়া গ্রাম। বাড়িতে বাড়িতে কান্নার রোল। শান্তনা দেওয়ার ভাষাও হারিয়ে ফেলছেন শুভাকাক্সক্ষী ও স্বজনেরা আর এমন অকাল ও মর্মান্তিক মৃত্যুতে কিবা আছে সান্ত্বনার? দু তিন মাস পরে কেউ বা যাবে রোমানিয়ায় কেউ যাবে কানাডায় নিহতের অনেকে যাবে বিদেশে ফিরে এসে বাড়ি বানাবে ছোট বোনদের লেখাপড়া শিখিয়ে বড় করে তুলবে; একটি দুর্ঘটনায় তাদের বিয়ের ব্যবস্থা করবে সে সব স্বপ্ন আজ ধুলোর সঙ্গে মিশে গেছে।

নিহত ড্রাইভারের ৬ বছরের ছোট মেয়ে এখনো জানে না বাবা আর ফিরবে কি-না? তাই মায়ের কাছে বাইনা ধরেছে বাবা আসলে সে খাবার খাবো। আমার বাবা আসে না কেন? সে বা হলেন মাইক্রোবাসের ড্রাইভার, মোস্তফা গোলাম নিরু। তিনি দুর্ঘটনার আগের দিন সমাজের বৈঠক ডেকে জানিয়েছিলেন- তিনি মিরসরাই থেকে ফিরে সমাজের নানা বিষয়ে আলোচনা করবেন; এ জন্য সবাইকে রাত ৮টায় উপস্থিত থাকার অনুরোধ জানিয়েছিলেন। কিন্তু তিনি ফিরেছেন তার নিয়ে যাওয়া মাইক্রোবাসে চালক হয়ে নয়, বরং লাশবাহী মাইক্রোবাসে যাত্রী হয়ে সে দিন সবাই উপস্থিত হয়েছেন ঠিকই কিন্তু বৈঠক করার জন্য নয় তার মরা দেহ দেখতে কথাগুলো বলছেন তারই প্রতিবেশীরা।

এ দিকে নিহত হাসানের বাবা কাঁদছেন আর কাঁদছেন। হাসান তার একমাত্র আদরের ছোট বোনকে বলেছিলেন আমি এসে তোকে বেড়াতে নিয়ে যাব কিন্তু তা আর হলো না। বোন তার আব্বুকে বলছে ভাইয়া কি আর আমাদের কাছে আসবে না? আমাকে বেড়াতে নিয়ে যাবে না?

শিকারপুর মুসাখন বাড়ির নিহত রাকিব, তিনি ছিলেন কোচিং সেন্টারের শিক্ষক ২ মাস পর চলে যাওয়ার কথা ইউরোপের দেশ রোমানিয়াতে ২ ভাই ১ বোন সে সাবার বড় রাকিবের তার ছোট বোন এবার এসএসসি পরীক্ষার্থী ছোট ভাইয়ের বয়স ৯ বছর সে মেঝেতে পড়ে পড়ে কাঁদছে আর বাবাকে বলছে ভাইয়াকে এনে দাও। এ দিকে দুর্ঘটনায় আহতদের ৬ জনের মধ্যে চারজনের অবস্থা আশংকাজনক বলে জানা যায়।

আহতরা হলেন- ড্রাইভারের সহকারী তৌহিদ ইবনে শাওন (১৬), তানভীর হাসান রিদয় (১৭), মো. মাহিন (১৮), তাসমির হাসান (১৬), মো. ইমন (১৭), মো. সৈকত তাদের মধ্য তাসমির হসান পাভেল ভর্তি আছে আই সি ও তে মাহিনের অবস্থা আশংকাজনক বলে পরিবার সূত্রে জানা যায়।

আপনার চারপাশে ঘটে যাওয়া নানা খবর, খবরের পিছনের খবর সরাসরি দৈনিক অধিকারকে জানাতে ই-মেইল করুন- [email protected] আপনার পাঠানো তথ্যের বস্তুনিষ্ঠতা যাচাই করে আমরা তা প্রকাশ করব।
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত

সম্পাদক: মো. তাজবীর হোসাইন  

নির্বাহী সম্পাদক: গোলাম যাকারিয়া

 

সম্পাদকীয় কার্যালয় 

১৪৭/ডি, গ্রীন রোড, ঢাকা-১২১৫।

যোগাযোগ: 02-48118243, +8801907484702 

ই-মেইল: [email protected]

এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, অডিও, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি।

Developed by : অধিকার মিডিয়া লিমিটেড