• মঙ্গলবার, ০৯ আগস্ট ২০২২, ২৫ শ্রাবণ ১৪২৯  |   ৩০ °সে
  • বেটা ভার্সন
sonargao

পাবনা জেলা শিক্ষা কর্মকর্তাকে স্ট্যান্ড রিলিজ

  রাকিব হাসনাত, পাবনা:

২৬ জুলাই ২০২২, ১৩:১৮
পাবনা
পাবনা জেলা শিক্ষা কর্মকর্তা এস এম মোসলেম উদ্দিন।

অনৈতিক কাজে যুক্ত থাকার অভিযোগ প্রমাণিত হওয়ায় পাবনা জেলা শিক্ষা কর্মকর্তা এস এম মোসলেম উদ্দিনকে স্ট্যান্ড রিলিজ করা হয়েছে। স্ট্যান্ড রিলিজ করে তাকে মাধ্যমিক ও উচ্চ শিক্ষা অধিদফতরের বিশেষ ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওএসডি) হিসেবে বদলি করা হয়েছে।

মঙ্গলবার (২৭ জুলাই) সকালে এতথ্য নিশ্চিত করেছেন পাবনা জেলা প্রশাসক (ডিসি) বিশ্বাস রাসেল হোসেন। এর আগে সোমবার (২৬ জুলাই) মাধ্যমিক ও উচ্চ শিক্ষা অধিদফতরের মহাপরিচালক (রুটিন দায়িত্ব) প্রফেসর শাহেদুল খবির চৌধুরী স্বাক্ষরিত এ সংক্রান্ত একটি প্রজ্ঞাপন জারি করা হয়।

এতে বলা হয়েছে, মাধ্যমিক ও উচ্চ শিক্ষা অধিদফতরাধীন বিদ্যালয় ও পরিদর্শন শাখায় কর্মরত উল্লেখিত (পাবনা জেলা শিক্ষা কর্মকর্তা এস এম মোসলেম উদ্দিন) কর্মকর্তাকে বর্ণিত পদ ও কর্মস্থলে নিজ বেতন স্কেল ও বেতনক্রমে বদলিভিত্তিক পদায়ন করা হলো। তিনি তাৎক্ষণিকভাবে বিমুক্ত বলে গণ্য হবেন।

ঠিক কি কারণে তাকে স্ট্যান্ড রিলিজ ও ওএসডি করা হয়েছে তা জানা যায়নি। তবে জেলা শিক্ষা অফিসের একাধিক সূত্র জানিয়েছে, তার বিরুদ্ধে অনৈতিক কাজের সঙ্গে যুক্ত থাকার অভিযোগ ছিল। বেশ কয়েকজন নারী তার বিরুদ্ধে লিখিত অভিযোগ দিয়েছিলেন। পরে এ সংক্রান্ত তদন্ত কমিটির এসব সত্যতা পায়।

এবিষয়ে স্ট্যান্ড রিলিজকৃত পাবনা জেলা শিক্ষা কর্মকর্তা এস এম মোসলেম উদ্দিন বলেন, ‘হ্যাঁ, এ সংক্রান্ত আদেশ আমি পেয়েছি। কিন্তু আমি জানি না কেন আমাকে স্ট্যান্ড রিলিজ করা হয়েছে। আমার বিরুদ্ধে কোন অভিযোগ ছিল কি-না আমি জানি না। ২-৩ দিনের মধ্যে আমি অধিদফতর যাবো, তারপর বিষয়টি নিয়ে বলতে পারবো।’

আপনার চারপাশে ঘটে যাওয়া নানা খবর, খবরের পিছনের খবর সরাসরি দৈনিক অধিকারকে জানাতে ই-মেইল করুন- [email protected] আপনার পাঠানো তথ্যের বস্তুনিষ্ঠতা যাচাই করে আমরা তা প্রকাশ করব।
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত

সম্পাদক: মো. তাজবীর হোসাইন  

নির্বাহী সম্পাদক: গোলাম যাকারিয়া

 

সম্পাদকীয় কার্যালয় 

১৪৭/ডি, গ্রীন রোড, ঢাকা-১২১৫।

যোগাযোগ: 02-48118243, +8801907484702 

ই-মেইল: [email protected]

এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, অডিও, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি।

Developed by : অধিকার মিডিয়া লিমিটেড