• মঙ্গলবার, ০৯ আগস্ট ২০২২, ২৫ শ্রাবণ ১৪২৯  |   ২৮ °সে
  • বেটা ভার্সন
sonargao

সুন্দরগঞ্জে চাঞ্চল্যকর শিহাব হত্যায় জড়িত ৩ জন গ্রেফতার

  মিজানুর রহমান, সুন্দরগঞ্জ (গাইবান্ধা) :

২০ জুলাই ২০২২, ২২:৪৯
সুন্দরগঞ্জ

গাইবান্ধার সুন্দরগঞ্জ উপজেলার পূর্ব বেলকা গ্রামের বিশিষ্ট ব্যবসায়ী আনিছুর রহমানের ছেলে শাহরিয়ার রহমান শিহাব (১৫) হত্যা রহস্য উন্মোচনপূর্বক এ হত্যাকাণ্ডে জড়িত ৩ কিশোরকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ।

বুধবার জেলা পুলিশের পক্ষ থেকে প্রেস ব্রিফিংকালে এ হত্যাকাণ্ডের চাঞ্চল্যকর তথ্য প্রদান করা হয় । তিনি জানান, টাকা আদায়ের উদ্দেশ্যে শিহাবকে অপহরণ করে ঘাতকরা। তবে শিহাবের অভিভাবকের কাছে টাকা দাবী করার আগেই প্রতিকুল পরিস্থিতিতে পরে শিহাবকে হত্যা করে তিস্তা নদীতে ফেলে দেয় তারা।

প্রযুক্তির সাহায্যে নানা তথ্য উপাত্ত সংগ্রহ করে মঙ্গলবার (১৯ জুলাই) রাতে ঘটনার সাথে জড়িত ৩ জনকে গ্রেফতার করে এবং শিহাবের মোবাইল ফোন উদ্ধার করে পুলিশ। গ্রেফতারকৃতরা একই বিদ্যালয়ের দশম শ্রেণির ছাত্র। এরা হলেন উপজেলার শান্তিরাম গ্রামের আতাউর রহমানের ছেলে আব্দুর রাজ্জাক, মনজু মিয়ার ছেলে জিন্নাহ ও ফরিদুল ইসলামের ছেলে বাদশা।

গ্রেফতারকৃতদের স্বীকারোক্তি মোতাবেক প্রেস কনফারেন্সে অপহরণ ও হত্যা ঘটনার বর্ণনা দেন পুলিশ সুপার। এর আগে, গত ১৪ জুলাই রাতে নিখোঁজ হন সুন্দরগঞ্জ উপজেলার পূর্ব বেলকা গ্রামের বিশিষ্ট ব্যবসায়ি আনিছুর রহমানের ছেলে অষ্টম শ্রেণির ছাত্র শাহরিয়ার রহমান শিহাব। গভীর রাতেও ছেলে বাড়িতে না ফেরায় সম্ভাব্য স্থানে খোঁজাখুজি করে না পেয়ে ছেলের সন্ধান চেয়ে সুন্দরগঞ্জ থানায় সাধারণ ডায়েরি করেন শিহাবের বাবা আনিছুর।

পরদিন ১৫ জুলাই বিকালে উপজেলার লালচামার খেয়াঘাট এলাকায় তিস্তা নদী থেকে শিহাবের মরদেহ উদ্ধার করে পুলিশ। বিকালে গ্রেফতারকৃতদের আদালতে নেয়া হয়েছে।

আপনার চারপাশে ঘটে যাওয়া নানা খবর, খবরের পিছনের খবর সরাসরি দৈনিক অধিকারকে জানাতে ই-মেইল করুন- [email protected] আপনার পাঠানো তথ্যের বস্তুনিষ্ঠতা যাচাই করে আমরা তা প্রকাশ করব।
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত

সম্পাদক: মো. তাজবীর হোসাইন  

নির্বাহী সম্পাদক: গোলাম যাকারিয়া

 

সম্পাদকীয় কার্যালয় 

১৪৭/ডি, গ্রীন রোড, ঢাকা-১২১৫।

যোগাযোগ: 02-48118243, +8801907484702 

ই-মেইল: [email protected]

এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, অডিও, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি।

Developed by : অধিকার মিডিয়া লিমিটেড