• মঙ্গলবার, ০৯ আগস্ট ২০২২, ২৫ শ্রাবণ ১৪২৯  |   ৩০ °সে
  • বেটা ভার্সন
sonargao

পরী’র খবর কেউ রাখেনা

  কাজী কামাল হোসেন,ব্যুরো চিফ, নওগাঁ:

১৭ জুলাই ২০২২, ১৫:৫৫
পরী

নওগাঁ শহরের সুলতানপুর মহল্লার সন্তোষ চন্দ্র সুত্রধরের ছেলে পরিতোষ চন্দ্র সুত্রধর। পরী নামেই ডাকেন সবাই। আশির দশকে পরী প্রতিদিন বগুড়া থেকে প্রকাশিত বিভিন্ন পত্রিকা এনে পৌঁছে দিত এজেন্টসহ পাঠকদের হাতে। সে সময় নওগাঁয় ছিলেন হাতে গোনা মাত্র কয়েকজন সাংবাদিক।

বিশেষ করে বগুড়া থেকে প্রকাশিত কাগজে যারা কাজ করতেন, পরীই ছিল তাদের একমাত্র ভরসা। নওগাঁর সাংবাদিকসহ অন্যরা সারাদিনের সংবাদ সংগ্রহ করে নিউজ প্রিন্ট কাগজে লিখে খামে প্যাকেট করে রেখে অপেক্ষা করতেন পরী কখন আসে। প্রতিদিন সন্ধ্যা লগ্নে তাদের কাছে পরীর উপস্থিতি ছিল অনিবার্য। নিউজের খাম, দু’একটি সাদা-কালো ছবি আর বিজ্ঞাপন নিয়ে রাতেই পরীর বাসযোগে বগুড়া অভিমুখে ছুটে চলা।

বগুড়া পৌঁছে প্রতিটি অফিস ঘুরে সেগুলো বিলি করা ছিল তার নিত্যদিনের কাজ। রাতে সেখানে অবস্থান করে পরদিন কাকডাকা ভোরে সকল পত্রিকার বান্ডিল নিয়ে বাসযোগে নওগাঁয় এসে তা তুলে দিত পত্রিকা এজেন্টদের হাতে। নিজেও বিলি করতো কাগজগুলো। পরীর বয়স তখন ছিল মাত্র ১০/১১ বছর। ১৯৮৩ সাল থেকে প্রায় একযুগ পরী এ পেশার সাথে জড়িত ছিল। কিন্তু কালের বিবর্তনে পরবর্তীতে হারিয়ে গেছে সবকিছু। উন্নত প্রযুক্তি আর প্রতিযোগিতার বাজারে হারিয়ে গেছে পরীও। কিন্তু যে পরী একদিন নওগাঁর মানুষের হাতে প্রতিদিনের পত্রিকা তুলে দিতে মুখ্য ভুমিকা রাখতো, অন্যদের খবর জানান দিতো-এখন তারই খবর কেউ রাখেনা।

পরিতোষ চন্দ্র সুত্রধর ওরফে পরীর বয়স এখন ৪৬ বছর। মুখে কাচা-পাকা খোঁচা খোঁচা দাড়ি। বয়স আর অভাব-অনটনে জর্জরিত। পত্রিকা সংশ্লিষ্ট অনেকেই এখন প্রতিষ্ঠিত হলেও পরীর জীবন-জীবিকা এখন অনিশ্চিৎ। বৃদ্ধ মা-বাবা, স্ত্রী, ২ ছেলে ও স্কুল পড়ুয়া ১ মেয়ের মুখে আহার যোগাতে কখনও ফুটপাতে পেয়ারা বিক্রি, কখনও রাজমিস্ত্রির যোগারী অর্থাৎ কায়িক পরিশ্রম করেই চলে অর্ধাহারে-অনাহারে তার সংসার। আস্তে আস্তে তার শরীরও অচল হয়ে যাচ্ছে। চলার পথে রাস্তা-ঘাটে দেখা মেলে পরীর সাথে। পেটে ক্ষুধা থাকলেও স্বভাবগত ভাবেই তার মুখে হাসি। কষ্টের কথা সহজে কারও কাছে প্রকাশ করে না।

আপনার চারপাশে ঘটে যাওয়া নানা খবর, খবরের পিছনের খবর সরাসরি দৈনিক অধিকারকে জানাতে ই-মেইল করুন- [email protected] আপনার পাঠানো তথ্যের বস্তুনিষ্ঠতা যাচাই করে আমরা তা প্রকাশ করব।
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত

সম্পাদক: মো. তাজবীর হোসাইন  

নির্বাহী সম্পাদক: গোলাম যাকারিয়া

 

সম্পাদকীয় কার্যালয় 

১৪৭/ডি, গ্রীন রোড, ঢাকা-১২১৫।

যোগাযোগ: 02-48118243, +8801907484702 

ই-মেইল: [email protected]

এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, অডিও, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি।

Developed by : অধিকার মিডিয়া লিমিটেড