• শনিবার, ২০ আগস্ট ২০২২, ৫ ভাদ্র ১৪২৯  |   ২৮ °সে
  • বেটা ভার্সন
sonargao

অস্ত্র দেখিয়ে সোনা লুট, পুলিশ সদস্যসহ দুইজন কারাগারে

  জিল্লুর রহমান, ফরিদপুর

১৫ জুলাই ২০২২, ০০:৪৮
অস্ত্র দেখিয়ে সোনা লুট, পুলিশ সদস্যসহ দুইজন কারাগারে
সোনার বার (ফাইল ছবি)

ফরিদপুরের ভাঙ্গায় রাতের আঁধারে অস্ত্রের ভয় দেখিয়ে এক ব্যবসায়ীর ৪০ ভরি সোনা ছিনিয়ে নেওয়ার মামলায় ভাঙ্গা থানা পুলিশের এক এএসআইসহ দুই জন কারাগারে।

বুধবার (১৩ জুলাই) ফরিদপুর জেলা ও দায়রা জজ আদালতের বিচারক সহকারী উপপরিদর্শক (এএসআই) মো. বাবুল হোসেন ও তার সহযোগী মেহেদী হাসান মৃদুল মুন্সীকে কারাগারে পাঠিয়েছেন।

গ্রেফতার এএসআই মো. বাবুল হোসেন (৩৫) ঢাকা জেলার ধামরাই থানার গাংগুটিয়া গ্রামের হারুন অর রশিদের ছেলে। অপরজন ভাঙ্গা পৌরসভার হোগলাডাঙ্গী সদরদীর মিজানুর রহমান মুন্সির ছেলে মেহেদী হাসান মৃদুল মুন্সী (২৫)।

জানা যায়, বুধবার সকালে পাপ্পু বিশ্বাস নামের ভুক্তভোগী ব্যবসায়ী ভাঙ্গা থানায় মামলা দায়ের করলে দুপুরে প্রধান আসামি সহকারী উপপরিদর্শক (এএসআই) বাবুল স্বীকারোক্তি দেন। পরে পৌরসভার কাপুড়িয়া সদরদীর গ্রামের একটি ভাড়া বাসা থেকে ছিনতাই হওয়া চারটি সোনার বারসহ মোট ৪০ ভরি সোনা উদ্ধার করে পুলিশ।

পুলিশ ও মামলার এজাহার সূত্রে জানা যায়, গত ৭ জুলাই রাতে ভাঙ্গা পৌর বাজারের স্বর্ণকারপট্টির পলাশ বণিকের সোনারতরী জুয়েলার্স থেকে কয়েকটি সোনার পিণ্ডবার কেনেন নড়াইলের লোহাগড়ার পাপ্পু বিশ্বাস নামের এক স্বর্ণ ব্যবসায়ী। সেখান থেকে রাত সাড়ে ১২টায় একটি ভ্যানগাড়িতে পাপ্পু ও তার বন্ধু বিজয় লোহাগড়ার উদ্দেশে রওনা দেন।

স্বর্ণপট্টি পার হতেই সহকারী উপপরিদর্শক (এএসআই) বাবুল ও তার সহযোগী যুবক তাদের গতিরোধ করেন। এ সময় চোরাই স্বর্ণ পাচার করছেন, এমন অভিযোগ তুলে পাপ্পুকে অস্ত্রের মুখে ভয় দেখান এএসআই বাবুল। পরে তার পকেটে থাকা মোট ১১টি সোনার বারের মধ্যে চারটি বার ছিনিয়ে নেন এএসআই। এ সময় তাদের চুপচাপ চলে যেতে বলেন তারা।

এ বিষয়ে ফরিদপুরের ভাঙ্গা বাজারের স্বর্ণ ব্যবসায়ী পলাশ জানান, ছিনতাই হওয়া সোনার বারগুলোর ওজন প্রায় ৪০ ভরি, যার বাজার মূল্য ২৮ লাখ ৬২ হাজার টাকা।

বুধবার ভুক্তভোগী ব্যবসায়ী ভাঙ্গা থানায় তাদের বিরুদ্ধে মামলা দায়ের করলে দুপুরে প্রধান আসামি এএসআই বাবুল স্বীকারোক্তি দেন। পরে পৌরসভার কাপুড়িয়া সদরদীর গ্রামের একটি ভাড়া বাসা থেকে ছিনতাই হওয়া চারটি সোনার বারসহ মোট ৪০ ভরি সোনা উদ্ধার করে পুলিশ।

ভাঙ্গা বাজারের স্বর্ণ ব্যবসায়ী পলাশ জানান, ছিনতাই হওয়া সোনার বারগুলোর ওজন প্রায় ৪০ ভরি, যার বাজার মূল্য ২৮ লাখ ৬২ হাজার টাকা।

এ বিষয়ে ভাঙ্গা বাজার বণিক সমিতির সভাপতি ও পৌর আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক শহিদুল হক মিরুসহ ব্যবসায়ীরা এ চক্রের মূল হোতাদের দ্রুত আইনের আওতায় আনার দাবি জানান।

এ বিষয়ে মামলার তদন্তকরী কর্মকর্তা উপপরিদর্শক (এসআই) মুন্তাছীর মারুফ জানান, তাদের ফরিদপুর আদালত থেকে কারাগারে পাঠানো হয়েছে।

ফরিদপুরের ভাঙ্গা থানার ওসি সেলিম রেজা জানান, এ ঘটনায় ভাঙ্গা থানায় মামলা হয়েছে। এএসআই বাবুল হোসেন ও তার সোর্স মেহেদী হাসানকে আটক করে জেলহাজতে প্রেরণ করা হয়েছে। এএসআই বাবুল হোসেনের বাসা থেকে ৪০ ভরি স্বর্ণ উদ্ধার করা হয়েছে।

আপনার চারপাশে ঘটে যাওয়া নানা খবর, খবরের পিছনের খবর সরাসরি দৈনিক অধিকারকে জানাতে ই-মেইল করুন- [email protected] আপনার পাঠানো তথ্যের বস্তুনিষ্ঠতা যাচাই করে আমরা তা প্রকাশ করব।
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত

সম্পাদক: মো. তাজবীর হোসাইন  

নির্বাহী সম্পাদক: গোলাম যাকারিয়া

 

সম্পাদকীয় কার্যালয় 

১৪৭/ডি, গ্রীন রোড, ঢাকা-১২১৫।

যোগাযোগ: 02-48118243, +8801907484702 

ই-মেইল: [email protected]

এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, অডিও, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি।

Developed by : অধিকার মিডিয়া লিমিটেড