• শুক্রবার, ১৯ আগস্ট ২০২২, ৪ ভাদ্র ১৪২৯  |   ৩২ °সে
  • বেটা ভার্সন
sonargao

কুষ্টিয়ায় ভাগ্নের হাতুড়ির আঘাতে মামার মৃত্যু

  আলমগীর মন্ডল, মিরপুর (কুষ্টিয়া):

০২ জুলাই ২০২২, ১৩:০৯
খুন

বাজার করে মোটরসাইকেলে ফিরছিলেন মামা। রাস্তার পাশ থেকে হঠাত হাতুড়ি নিয়ে ঝোঁপ থেকে বেরিয়ে আসে ভাগ্নে। ভাগ্নে হাতে হাতুড়ি দেখে জোরে মোটরসাইলে নিয়ে চলে যেতে চায় মামা। কিন্তু ভাগ্নে মোটরসাইকেল লাথি দিয়ে ফেলে দেয়। মামা রাস্তার ধারে পড়ে গেলে হাতুড়ি দিয়ে মুখে আর মাথায় আঘাত করে ভাগ্নে। মারা গেছে ভেবে সেখান থেকে চলে যায় ভাগ্নে। পরে স্থানীয়রা তাকে মুমুর্ষ অবস্থায় দেখে হাসপাতালে নিয়ে যায়।

ঘটনাটি ঘটেছে শুক্রবার বিকালে কুষ্টিয়ার মিরপুর উপজেলার আমলা ইউনিয়নের চৌদুয়ার বিলপাড়া এলাকায়। শনিবার (২জুলাই) সকালে রাজশাহী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় তিনি মারা যায়। নিহত ওই ব্যক্তির নাম আয়ূব আলী (৫৫)। বাড়ি কুষ্টিয়ার মিরপুর উপজেলার আমলা ইউনিয়নের চৌদুয়ার বিলপাড়া এলাকায়। তিনি উক্ত এলাকার মৃত ইয়াকুব আলীর ছেলে।

আয়ূব আলীর ভাতিজা নাজমুল হক জানান, “বিকেলে নিমতলা বাজার থেকে বাজার করে মোটরসাইকেল চালিয়ে বাড়ি ফিরছিলেন আয়ূব আলী। পথিমধ্যে ঝোপের আড়াল থেকে হাতুড়ি হাতে রাস্তার উপরে আসে আয়ূব আলীর চাচাতো বোনের ছেলে সাজু। তারপর তাকে লাথি দিয়ে ফেলে হাতুড়ি দিয়ে মেরে রক্তাক্ত করে মারাত্বকভাবে আহত করে। মরে গেছে ভেবে সেখানে ফেলে রেখে চলে যায় সাজু। পরে পথচারিরা তাকে পড়ে থাকতে দেখে লোকজনকে খবর দেয় এবং প্রথমে মিরপুর পরে কুষ্টিয়ায় হাসপাতালে পাঠায়। সেখান থেকে উন্নত চিকিৎসার জন্য রাজশাহী মেডিকেলে ভর্তি করা হয়। সেখানে চিকিৎসাধীন অবস্থায় শনিবার সকালে মারা তিনি যান।

ঘটনার কারণ সম্পর্কে নাজমুল জানান, দীর্ঘদিন ধরে সাজুর মা অসুস্থ্য ছিলো। তার চিকিৎসার জন্য গরু বিক্রি করেছে। সাজু এলাকায় না থাকায় তার মামারা গরু বিক্রি করে সাজুর মায়ের চিকিৎসা করায় রাগ ছিলো সাজুর মামা আয়ূব আলীর উপরে। এদিকে এ ঘটনার পর থেকেই পলাতক রয়েছে অভিযুক্ত ভাগ্নে রাজ্জাক আলীর ছেলে সাজু। সে পূর্বের একটি হত্যা মামলার আসামী হওয়ায় দীর্ঘদিন ধরে ভারতে পলাতক ছিল। মিরপুর থানার অফিসার ইনচার্জ গোলাম মোস্তফা জানান, এ ঘটনায় মামলার প্রস্তুতি চলছে। মরদেহ রাজশাহী মেডিকেলে কলেজ হাসপাতালের মর্গে রয়েছে।

এ ব্যাপারে নিহতের ভাতিজা হুমায়ূন কবিরের সঙ্গে কথা হলে তিনি বলেন, চাচার চিকিৎসা ব্যবস্থার জন্য দৌড়াদৌড়ি করায় থানায় অভিযোগ দিতে পারিনি। তবে থানায় মৌখিকভাবে জানিয়েছি। এখন থানায় হত্যা মামলা দায়ের করা হবে।

মিরপুর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) গোলাম মোস্তফা জানান, এখনও থানায় কোন অভিযোগ পাওয়া যায়নি। অভিযোগ পেলে ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

আপনার চারপাশে ঘটে যাওয়া নানা খবর, খবরের পিছনের খবর সরাসরি দৈনিক অধিকারকে জানাতে ই-মেইল করুন- [email protected] আপনার পাঠানো তথ্যের বস্তুনিষ্ঠতা যাচাই করে আমরা তা প্রকাশ করব।
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত

সম্পাদক: মো. তাজবীর হোসাইন  

নির্বাহী সম্পাদক: গোলাম যাকারিয়া

 

সম্পাদকীয় কার্যালয় 

১৪৭/ডি, গ্রীন রোড, ঢাকা-১২১৫।

যোগাযোগ: 02-48118243, +8801907484702 

ই-মেইল: [email protected]

এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, অডিও, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি।

Developed by : অধিকার মিডিয়া লিমিটেড