• মঙ্গলবার, ০৫ জুলাই ২০২২, ২১ আষাঢ় ১৪২৯  |   ৩০ °সে
  • বেটা ভার্সন
sonargao

রূপগঞ্জে তীব্র গ্যাস সঙ্কট, ভোগান্তিতে লাখো গ্রাহক

  সাইদুর রহমান, রূপগঞ্জ (নারায়ণগঞ্জ) প্রতিনিধি:

২১ জুন ২০২২, ১৭:২২
গ্যাস সংকট
গ্যাস না থাকায় লাকড়ির চুলায় রান্না করছে এক গৃহীনি। ছবি: অধিকার

নারায়ণগঞ্জের রূপগঞ্জে তীব্র গ্যাস সংকটে ভোগান্তিতে রয়েছেন লাখো বৈধ আবাসিক গ্রাহক। বৈধ গ্রাহকরা অভিযোগ করে বলেন, মাসে মাসে সরকারের দেয়া নির্ধারিত বিল পরিশোধ করে আসছেন তারা। কিন্তু গত পাচঁ দিন ধরে তাদের চুলা জ্বলছেনা। প্রায় বন্ধ খাওয়া-দাওয়া। এতে ভোগান্তি পোহাতে হচ্ছে এসকল আবাসিক গ্রাহকদের।

সরেজমিনে গিয়ে দেখা যায়, কেউ টিন কেটে চুলা বানিয়ে তাতে লাকরি দিয়ে, কেউবা আবার মাটির চুলায় কষ্ট করে রান্না-বান্নার কাজ শেষ করছেন। কিন্তু মাটির চুলায় রান্না করে অনেকেরই আবার কমস্থলে যেতে হচ্ছে দুই থেকে আড়াই ঘন্টা পরে। কিছু এলাকায় ভোর সকালে নিভু-নিভু গ্যাস থাকলেও তাতে হাড়িও গরম হয়না বলে জানান গৃহিণীরা। অনেকেরই খাওয়া দাওয়া করতে হচ্ছে হোটেলে।

ভুলতা এলাকার আবাসিক গ্রাহক আফসানা আক্তার বলেন, আজ পাচঁদিন যাবৎ গ্যাস নেই। রান্না বান্না একদমই বন্ধ হোটেল থেকে খাবার এনে খাওয়া দাওয়া করছি। এভাবে কয়দিন গ্যাস থাকবে না তা জানিনা। গ্যাস না থাকায় আমার দুই বছরের শিশুর বেশি সমস্যা হচ্ছে। কোনো রকম লেকটোজেন দুধ খাইয়ে রাখছি তাকে।

ভায়েলা এলাকার আবাসিক গ্রাহক রিনা বেগম বলেন, আমি সরকারের একজন বৈধ গ্রাহক। প্রতি মাসে মাসে নিয়মিত গ্যাস বিল পরিশোধ করি। কিন্তু গত পাচঁদিন ধরে গ্যাস বন্ধ থাকায় আমার ছেলে মেয়ে নিয়ে পড়েছি বিপাকে। বাচ্চারা সকালে স্কুলে যায় তাদের ঠিকমতো রান্না করে খাওয়াতে পারছি না। দুইদিন টানা হোটেল থেকে খাবার এনে বাচ্চাদের নিয়ে খেয়েছি।

এ ব্যাপারে তিতাস গ্যাস সোনারগাঁও আঞ্চলিক শাখার ব্যবস্থাপক প্রকৌশলী মিজবাহ-উর রহমান বলেন, গত শুক্রবার আদমজী ইপিজেডের পলমল ফ্যাশনের পাইলিং করার সময় গ্যাস পাইপ ফেটে যাওয়ার ঘটনায় মেরামত কাজ চলছে। সেখানে কাজ করার সময় ৪০ ফিট নিচে ২৪০ টন ওজনের পাইলিং রিগ ডেবে যায়। যার জন্য মেরামত কাজে সময় বেশি লাগছে। আশা করি দুই দিনের মধ্যে গ্যাস সরবরাহ স্বাভাবিক হবে।

আপনার চারপাশে ঘটে যাওয়া নানা খবর, খবরের পিছনের খবর সরাসরি দৈনিক অধিকারকে জানাতে ই-মেইল করুন- [email protected] আপনার পাঠানো তথ্যের বস্তুনিষ্ঠতা যাচাই করে আমরা তা প্রকাশ করব।
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত

সম্পাদক: মো: তাজবীর হোসাইন  

সহযোগী সম্পাদক: গোলাম যাকারিয়া

 

সম্পাদকীয় কার্যালয় 

১৪৭/ডি, গ্রীন রোড, ঢাকা-১২১৫।

যোগাযোগ: 02-48118241, +8801907484702 

ই-মেইল: [email protected]

এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, অডিও, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি।

Developed by : অধিকার মিডিয়া লিমিটেড