• শুক্রবার, ১৯ আগস্ট ২০২২, ৪ ভাদ্র ১৪২৯  |   ৩১ °সে
  • বেটা ভার্সন
sonargao

ব্যবসায়ীকে গ্রেফতারের প্রতিবাদ

  মো. কামরুল ইসলাম মোস্তফা, চন্দনাইশ (চট্টগ্রাম)

১৪ জুন ২০২২, ১৪:১৯
ব্যবসায়ীকে গ্রেফতারের প্রতিবাদ
চট্টগ্রামের চন্দনাইশে লেপ-তোষক ব্যবসায়ীকে ষড়যন্ত্রমূলকভাবে মামলায় জড়ানোর প্রতিবাদে পরিবারের সংবাদ সম্মেলন (ছবি: অধিকার)

চট্টগ্রামের চন্দনাইশ উপজেলার দোহাজারী পৌরসভার লেপ-তোষক ব্যবসায়ী দক্ষিণ জিহস ফকির পাড়া এলাকার আবু তাহের সওদাগরের দুই ছেলে বাহাদুর মিয়া ও মঈন উদ্দীন হাসানকে ষড়যন্ত্রমূলকভাবে মামলায় জড়ানো ও বড় ছেলে বাহাদুর মিয়াকে গ্রেফতার করার প্রতিবাদে সংবাদ সম্মেলন করেছেন ভুক্তভোগী পরিবারবর্গ।

মঙ্গলবার (১৪ জুন) সকাল ১০টায় দোহাজারী প্রেসক্লাব হলরুমে এ সংবাদ সম্মেলন করেন তারা। এ সময় উপস্থিত ছিলেন, আবু তাহের, ফরিদা বেগম, শামীমা আক্তার, রমজান আলী, রেনু আক্তার, জেসমিন আক্তার, দিলুয়ারা বেগম, শিমু আক্তার, হোসনে আরা বেগম, পারভিন আক্তার ও শাহিদা বেগম। লিখিত বক্তব্যে বাহাদুর মিয়ার পিতা আবু তাহের বলেন, আমরা বিগত ৪৫/৫০ বছর ধরে দোহাজারীতে সুনামের সাথে লেপ-তোষকের ব্যবসা পরিচালনা করে আসছি। গত ১৮ জুন সন্ধ্যায় চন্দনাইশ পৌরসভার কুলাল পাড়া এলাকায় জাহেদ নামে এক ছেলেকে দুর্বৃত্তরা ছুরিকাঘাত করে। ওইদিন রাতে জাহেদ চমেক হাসপাতালে মারা যায়। এ ঘটনাকে কেন্দ্র করে আমার বড় ছেলে বাহাদুর মিয়া ও ছোট ছেলে মঈন উদ্দীন হাসানকে পূর্ব শত্রুতার জের ধরে প্রতিহিংসার বশবর্তী হয়ে ষড়যন্ত্রমূলকভাবে মামলায় জড়িয়ে দেয় এবং বাহাদুর মিয়াকে গ্রেফতার করে।

তিনি আরও বলেন, বাহাদুর মিয়া দ. জোয়ারা জিহস ফকির পাড়া সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের সভাপতি ও গাউছিয়া কমিটি বাংলাদেশ ৬নং ওয়ার্ড শাখার সভাপতিসহ সমাজ হিতৈষি কাজ করায় একটি কুচক্রী মহল ঈর্ষান্বিত হয়ে লেপ-তোষক ব্যবসায়ী দুই পুত্রকে ষড়যন্ত্রমূলকভাবে মামলায় জড়িয়ে দেয়। অথচ এ ঘটনার সময় বাহাদুর মিয়া ও মঈন উদ্দীন হাসান দোহাজারীতে তাদের নিজ ব্যবসা প্রতিষ্ঠানে অবস্থান করছিলেন। বিগত সময়ে তাদের বিরুদ্ধে সমাজ ও সরকার বিরোধী কোন রকম মামলা-মোকদ্দমা নেই। জাহেদ হত্যার বিচার দাবি করে প্রকৃত খুনিদের আইনের আওতায় এনে দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির দাবি জানান তিনি। পাশাপাশি তার বড় ছেলে বাহাদুরকে মুক্তিসহ তার দুই ছেলেকে মামলা থেকে অব্যাহতি দেওয়ার জন্য উর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষের নিকট দাবি করছেন।

আরও পড়ুন: মহাসড়কে থ্রি হুইলার চলাচল নিষিদ্ধ

এদিকে, বাহাদুর মিয়ার স্ত্রী শামিমা আক্তার বলেন, আমার স্বামী বাহাদুর মিয়াকে ষড়যন্ত্রমূলকভাবে মামলায় জড়িয়ে গ্রেফতার করায় আমার ৪ মেয়ে ও ১ ছেলেকে নিয়ে মানবেতর জীবন যাপন করছি। এছাড়া ব্যবসা প্রতিষ্ঠান বন্ধ থাকায় আর্থিকভাবে ব্যাপক ক্ষতি সাধনের পাশাপাশি আমার সন্তানদের শিক্ষা জীবন অনিশ্চিত হয়ে পড়েছে। তাই আমার স্বামীকে দ্রুত মুক্তি দেওয়ার জন্য প্রশাসনের উর্ধ্বতন মহলের সু-দৃষ্টি কামনা করছি।

ওডি/এমকেএইচ

আপনার চারপাশে ঘটে যাওয়া নানা খবর, খবরের পিছনের খবর সরাসরি দৈনিক অধিকারকে জানাতে ই-মেইল করুন- [email protected] আপনার পাঠানো তথ্যের বস্তুনিষ্ঠতা যাচাই করে আমরা তা প্রকাশ করব।
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত

সম্পাদক: মো. তাজবীর হোসাইন  

নির্বাহী সম্পাদক: গোলাম যাকারিয়া

 

সম্পাদকীয় কার্যালয় 

১৪৭/ডি, গ্রীন রোড, ঢাকা-১২১৫।

যোগাযোগ: 02-48118243, +8801907484702 

ই-মেইল: [email protected]

এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, অডিও, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি।

Developed by : অধিকার মিডিয়া লিমিটেড