• শুক্রবার, ১৯ আগস্ট ২০২২, ৪ ভাদ্র ১৪২৯  |   ৩২ °সে
  • বেটা ভার্সন
sonargao

নদী দখল করে আ.লীগ নেতার বালু ব্যবসা

  মো. আকাশ, সিদ্ধিরগঞ্জ (নারায়ণগঞ্জ)

১১ জুন ২০২২, ২১:১০
নদী দখল করে আ.লীগ নেতার বালু ব্যবসা
সিদ্ধিরগঞ্জের শীতলক্ষ্যা নদীর মধ্য-অংশ পর্যন্ত ড্রেজারের ভাসমান ঘাট বসিয়ে ট্রলার দিয়ে বালু উত্তোলন করা হচ্ছে (ছবি: অধিকার)

নারায়ণগঞ্জের সিদ্ধিরগঞ্জ অংশে শীতলক্ষ্যা নদী দখল করে অবৈধভাবে বালু ব্যবসা করার অভিযোগ উঠেছে তাজিম বাবু নামের এক আওয়ামী লীগ নেতার বিরুদ্ধে। তিনি বাংলাদেশ অভ্যন্তরীণ নৌ-পরিবহন কর্তৃপক্ষের (বিআইডব্লিউটিএ) অনুমোদন না নিয়েই এভাবে দীর্ঘদিন ধরে নদী দখল করে বালুর ব্যবসা করে আসছেন।

তার এই বালু ব্যবসার কারণে শীতলক্ষ্যা নদীর ওয়াকওয়েসহ এলাকার রাস্তায় চলাচলে প্রতিবন্ধকতা সৃষ্টি হচ্ছে। এলাকার রাস্তার উপর দিয়ে যাওয়া ড্রেজারের পাইপের কারণে প্রতিনিয়ত সড়কে চলাচলকারীদের দুর্ভোগের শিকার হতে হচ্ছে।

তাজিম বাবু সিদ্ধিরগঞ্জ থানা আওয়ামী লীগের প্রচার সম্পাদক। তিনি প্রভাবশালী নেতা হওয়ায় সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষ নীরব ভূমিকা পালন করছে। এতে ক্ষুব্ধ এলাকাবাসী।

শনিবার (১১ জুন) সরেজমিনে গিয়ে দেখা যায়, সিদ্ধিরগঞ্জের শীতলক্ষ্যা নদীর পশ্চিম পাড় থেকে শুরু করে নদীর মধ্য-অংশ পর্যন্ত ড্রেজারের ভাসমান ঘাট বসিয়ে ট্রলার দিয়ে বালু উত্তোলন করা হচ্ছে। যার কারণে নদীতে ড্রেজার বসানো ওই অংশ দিয়ে নৌযান চলাচল করতে পারছে না। ড্রেজারের কারণে নদী সংকুচিত হয়ে যাওয়ায় যেকোনো সময় দুর্ঘটনা ঘটার আশঙ্কা রয়েছে। নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক ড্রেজারে কর্মরত এক শ্রমিক জানান, বিআইডব্লিউটিএর লোকজনকে ম্যানেজ করেই তারা এ ব্যবসা পরিচালনা করে আসছেন। তিনি বলেন, পাইপের মাধ্যমে বালু রংধনু সিনেমা হলের পাশে বালুর গদিতে রাখেন। অতঃপর সেই বালু ট্রাক দিয়ে সিদ্ধিরগঞ্জ, ডেমরাসহ আশেপাশের এলাকায় বিক্রি করা হয়।

ভোগান্তির শিকার হওয়া আব্দুল্লাহ নামে এক রিকশাচালক জানান, ড্রেজারের পাইপের কারণে রাস্তায় রিকশা নিয়ে চলাচল করতে খুব কষ্ট হয়। মাঝেমধ্যে এখানে ছোট ছোট দুর্ঘটনার ঘটনা ঘটে।

এলাকাবাসী জানান, শীতলক্ষ্যা নদী দখল এবং অবৈধ বালু ও পাথর ব্যবসা ঠেকাতে ২০১৪ সালে সিদ্ধিরগঞ্জের সাইলো এলাকা থেকে ঢাকার ডেমরা ঘাট পর্যন্ত প্রায় সাড়ে চার কিলোমিটার এলাকাজুড়ে নির্মাণ করা নির্মাণ করা হয় সৌন্দর্যমণ্ডিত ওয়াকওয়ে। ছুটির দিনগুলোতে এখানে দর্শণার্থীদের উপচেপড়া ভিড় লক্ষ্য করা যায়। কিন্তু তাজিম বাবুর এই ড্রেজারের পাইপের কারণে ওয়াকওয়ের একটি অংশ ভেঙে গিয়েছে। এতে করে পথচারীদের ওয়াকওয়েতে চলাচল করতে ভোগান্তির শিকার হতে হচ্ছে।

শাহেদ আলম নামে সিদ্ধিরগঞ্জের এক স্থানীয় বাসিন্দা জানান, শীতলক্ষ্যা নদীর পাড়ে এসব অবৈধ দখলদারিত্বের কারণে শীতলক্ষ্যা নদী জৌলুস হারাচ্ছে। মাঝেমধ্যে অবৈধ ড্রেজারসহ নদীর তীরে গড়ে উঠা এসব অবৈধ স্থাপনা উচ্ছেদ করা হলেও কিছুদিনের মধ্যেই তা আগের রূপ ফিরে আসে। এতে করে দিন দিন শীতলক্ষ্যা নদী সংকুচিত হচ্ছে।

এ বিষয়ে জানতে চাইলে সিদ্ধিরগঞ্জ থানা আওয়ামী লীগের প্রচার সম্পাদক তাজিম বাবু নদী দখলের বিষয়টি অস্বীকার করে জানান, আমি এ বিষয়ে কিছুই জানি না।

সিদ্ধিরগঞ্জ থানা আওয়ামী লীগের সভাপতি মজিবুর রহমান বলেন, তিনি প্রায় ১০ বছর ধরেই বালুর ব্যবসা করে আসছেন। কিন্তু শীতলক্ষ্যা নদী দখল করে বালুর ব্যবসা করে কিনা তা আমার জানা নেই।

বিআইডব্লিউটিএর নারায়ণগঞ্জ নদী বন্দরের যুগ্ম পরিচালক শেখ মাসুদ কামাল জানান, আমরা খোঁজ নিয়ে ব্যবস্থা নিচ্ছি।

আরও পড়ুন: চালু হলো ‘দোলনচাঁপা এক্সপ্রেস’

এ বিষয়ে নারায়ণগঞ্জ জেলা প্রশাসক মঞ্জুরুল হাফিজ রাজু জানান, আমরা শীঘ্রই আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণ করবো।

ওডি/এমকেএইচ

আপনার চারপাশে ঘটে যাওয়া নানা খবর, খবরের পিছনের খবর সরাসরি দৈনিক অধিকারকে জানাতে ই-মেইল করুন- [email protected] আপনার পাঠানো তথ্যের বস্তুনিষ্ঠতা যাচাই করে আমরা তা প্রকাশ করব।
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত

সম্পাদক: মো. তাজবীর হোসাইন  

নির্বাহী সম্পাদক: গোলাম যাকারিয়া

 

সম্পাদকীয় কার্যালয় 

১৪৭/ডি, গ্রীন রোড, ঢাকা-১২১৫।

যোগাযোগ: 02-48118243, +8801907484702 

ই-মেইল: [email protected]

এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, অডিও, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি।

Developed by : অধিকার মিডিয়া লিমিটেড