• বুধবার, ০৬ জুলাই ২০২২, ২২ আষাঢ় ১৪২৯  |   ৩৩ °সে
  • বেটা ভার্সন
sonargao

বিএনপির দু’পক্ষের সংঘর্ষে আহত ১২

  মোস্তাকিম আল রাব্বি সাকিব, মনিরামপুর (যশোর)

০৮ জুন ২০২২, ২১:৩২
বিএনপির দু’পক্ষের সংঘর্ষে আহত ১২
যশোরের মণিরামপুরে বিএনপির ওয়ার্ড কমিটি গঠন নিয়ে দু’পক্ষের সংঘর্ষে আহত কয়েকজন (ছবি: অধিকার)

যশোরের মণিরামপুরে বিএনপির ওয়ার্ড কমিটি গঠন নিয়ে দু’পক্ষের মধ্যে হামলা-পাল্টা হামলাসহ দলের অস্থায়ী কার্যালয়ের আসবাবপত্র ভাংচুরের ঘটনা ঘটেছে। মঙ্গলবার (৭ জুন) সন্ধ্যা থেকে মধ্যরাত পর্যন্ত এ ঘটনা ঘটে। এতে উভয় পক্ষের কমপক্ষে ১২জন আহত হয়েছেন। এ ঘটনায় দুই পক্ষের মধ্যে টানটান উত্তেজনা বিরাজ করছে। দলের সাধারণ নেতাকর্মীরা আতঙ্কিত হয়ে পড়েছেন।

সংশ্লিষ্ট একাধিক সূত্র জানায়, মঙ্গলবার থানা বিএনপির যুগ্ম আহ্বায়ক জি এম মিজানুর রহমান ও খান শফিয়ার রহমানসহ দলের কতিপয় নেতা উপজেলার ভোজগাতী ইউনিয়নের ওয়ার্ড কমিটি করতে যান। এ সময় স্থানীয় যুবদল নেতা জামির হোসেনের নেতৃত্বে একদল যুবক আয়েশা বেগম নামের এক নারী কর্মীর উপর হামলা করে। এ ঘটনার পর থানা বিএনপির যুগ্ম আহ্বায়ক জি এম মিজানুর রহমান ঘটনাস্থল ত্যাগ করেন।

বিষয়টি থানায় পর্যায়ে গড়ালে মুছা পক্ষের সমর্থকরা ওইদিন জামির হোসেন, ইমরান, আরিফুল ইসলামের উপর হামলা করে। এতে যুবদল নেতা জামির হোসেনের পা ভেঙ্গে দেওয়াসহ ছাত্রদল নেতা আরিফুল ও ইমরান হোসেন আহত হয়। আহতদেরকে মণিরামপুর হাসপাতাল ও ক্লিনিকে ভর্তি করা হয়। এ ঘটনার পর থেমে থেমে হামলা-পাল্টা হামলার ঘটনা ঘটে চলেছে।

পরে মুছার পক্ষের ইজাজুল ইসলাম ও মহিবুল আলম মামুনকে পিটিয়ে আহত করে শহীদ ইকবাল পক্ষের সমর্থকেরা। মুহূর্তের মধ্যে উত্তেজনা ছড়িয়ে পড়ে। একপর্যায়ে পৌর বিএনপির আহ্বায়ক খায়রুল ইসলাম, সদস্য সচিব আবদুল হাইকে মুছার পক্ষের সমর্থকেরা তল্লাশী করে এবং তাদের বাড়িতে ইট পাটকেল ছোড়ে।

এদিকে, বুধবার দুপুরে শহীদ ইকবাল হোসেন পক্ষের সমর্থক যুবদল নেতা ফরহাদ হোসেন এবং ছাত্রদল নেতা সাজিদ হোসেনকে পৌর শহরের উত্তর মাথায় মারপিট করে গুরুতর আহত করে মুছা পক্ষের সমার্থকরা। আহতরা মণিরামপুর হাসপাতালে ভর্তি রয়েছেন।

সংশ্লিষ্ট সূত্র জানায়, রাত ১১টার দিকে মুছা পক্ষের কর্মী সমর্থকেরা বিএনপির নারকেল পট্টির অস্থায়ী কার্যালয়ের চেয়ার-টেবিল ও ফ্যান ভাংচুর করে।

অবশ্য থানা বিএনপির যুগ্ম আহ্বায়ক জি এম মিজানুর রহমান দলীয় কার্যালয় ভাংচুরের বিষয়টি অস্বীকার করে দাবি করেন, একদল দূর্বৃত্ত চুরি করার উদ্দেশ্যে দরজা ভেঙ্গে কার্যালয়ের ফ্যানসহ অন্যান্য আসবাবপত্র চুরি করেছে।

এ বিষয় যশোর জেলা বিএনপির আহবায়ক কমিটির সদস্য ও মনিরামপুর উপজেলা বিএনপির সদস্য মো. মুছা জানান, গতকাল (মঙ্গলবার) হরিহারনগর ইউনিয়ন বিএনপির কমিটি গঠন এর সভা চলা অবস্থায় আমাদের পক্ষ একক সংখ্যাগরিষ্ঠতা অর্জন এবং কমিটি গঠিত হয়। কিন্তু পরে শুনেছি মামামারি হয়েছে। কে বা কারা মামামারি করেছে আমার জানা নাই।

এছাড়া উপজেলা বিএনপির সভাপতি শহীদ ইকবাল হোসেন জানান, মুছাপন্থী কিছু লোক কোন কারণ ছাড়াই আমার ছাত্রদল, যুবদলের নেতৃবৃন্দের ওপর হামলা করছে। আমি এর তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানাচ্ছি।

আরও পড়ুন: ‘২ হাজার কোটি টাকা পাচার মামলার অভিযোগপত্র অতিরঞ্জিত’

এদিকে, এ প্রতিবেদন লেখার আগ পর্যন্ত এ ঘটনায় কোন পক্ষ থানায় কোন অভিযোগ করেননি বলে জানিয়েছেন থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) নুর-ই আলম সিদ্দীকি।

ওডি/এমকেএইচ

আপনার চারপাশে ঘটে যাওয়া নানা খবর, খবরের পিছনের খবর সরাসরি দৈনিক অধিকারকে জানাতে ই-মেইল করুন- [email protected] আপনার পাঠানো তথ্যের বস্তুনিষ্ঠতা যাচাই করে আমরা তা প্রকাশ করব।
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত

সম্পাদক: মো: তাজবীর হোসাইন  

সহযোগী সম্পাদক: গোলাম যাকারিয়া

 

সম্পাদকীয় কার্যালয় 

১৪৭/ডি, গ্রীন রোড, ঢাকা-১২১৫।

যোগাযোগ: 02-48118241, +8801907484702 

ই-মেইল: [email protected]

এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, অডিও, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি।

Developed by : অধিকার মিডিয়া লিমিটেড