• শনিবার, ২৫ জুন ২০২২, ১১ আষাঢ় ১৪২৯  |   ২৭ °সে
  • বেটা ভার্সন
sonargao

যুবলীগ নেতার আম পাড়তে গিয়ে শিক্ষার্থীর মৃত্যু

  মনোয়ার হোসেন রুবেল, ধামরাই (ঢাকা)

২৬ মে ২০২২, ২১:১৪
শিক্ষার্থীর মৃত্যু
শিক্ষার্থীর মৃত্যু (ছবি : অধিকার)

ঢাকার ধামরাইয়ে এক যুবলীগ নেতার বাড়ির আমগাছ থেকে আম পেড়ে দিতে গিয়ে বিদ্যুৎস্পৃষ্ট হয়ে রোহান (১২) নামের চতুর্থ শ্রেণির এক শিক্ষার্থীর মৃত্যু হয়েছে।

বৃহস্পতিবার (২৬ মে) বিকেল ৪টার দিকে ধামরাই উপজেলার আমতা ইউনিয়নের বাউখন্ড এলাকার যুবলীগ নেতা মো. সেলিম খানের পুকুর পাড়ের একটি আমগাছ থেকে আম পাড়তে গিয়ে এ দুর্ঘটনা ঘটে। নিহত রোহান উপজেলার আমতা ইউনিয়নের বাদশা মিয়ার ছেলে।

জানা যায়, উপজেলা আওয়ামী যুবলীগের ত্রাণ ও সমাজকল্যাণ বিষয়ক সম্পাদক মো. সেলিম খানের স্ত্রী মুক্তা আক্তার দুইদিন পূর্বে নিহত রোহানকে তাদের পুকুরপাড়ের আমগাছ থেকে আম পেড়ে দিতে বলেন। পরে বৃহস্পতিবার রোহানসহ আরও কয়েকজন শিশু মিলে মুক্তা আক্তারের কাছ থেকে একটি ব্যাগ নিয়ে পুকুর পাড়ে যায়। কয়েক বছর পূর্বে সেই আম গাছ ঘেঁষে সেলিম খানের ঘর থেকে পুকুর পাড়ে তার একটি মুরগির ফার্মে বিদ্যুতের লাইন নেয়া হয়েছে। আমগাছে ওঠার সময় সেই বিদ্যুতের তারের সাথে স্পর্শ হলে আমগাছ থেকে পরে যায় সে। পরে অন্য শিশুদের চিৎকারে আশপাশের লোকজন মিলে তাকে হাসপাতালে নেয়ার পথেই তার মৃত্যু হয়৷

রোহানের সহপাঠী নাইম ইসলাম (ছদ্মনাম) জানান, রোহানকে দুইদিন আগে সেলিম খানের স্ত্রী আম পেড়ে দেয়ার কথা বলেছিলেন। পরে রোহান ও তার ভাই হৃদয়সহ আমরা কয়েকজন আম পাড়তে পুকুর পারে যাই। পরে রোহান গাছে উঠতে গেলে বিদ্যুৎস্পৃষ্ট হলে গাছ থেকে পরে গিয়ে ডিস লাইনের তারের সাথে জড়িয়ে পরে। পরে আমরা চিৎকার করলে পাশের লোক এসে তাকে উদ্ধার করে।

ঘটনাস্থলের পাশের বাড়ির নির্মাণাধীন বাড়ির রাজমিস্ত্রী শম্ভু রাজবংশী জানান, রোহানের ভাই হৃদয় চিৎকার করে বলে আমার ভাইকে কারেন্টে (বিদ্যুৎ) ধরছে। পরে আমি গিয়ে দেখি ডিসের তার পেঁচিয়ে মাটিতে পড়ে আছে। পরে একটি বাঁশ দিয়ে রোহানের শরীর থেকে ডিসের তার সরিয়ে তাকে ধরে সেখান থেকে উদ্ধার করা হয়। তখনো সে কথা বলতেছিল।

ধামরাই উপজেলা আওয়ামী যুবলীগের ত্রাণ ও সমাজকল্যাণ বিষয়ক সম্পাদক মো. সেলিম খান জানান, আমি এ ঘটনা সম্পর্কে কিছু জানি না। আর কয়েক বছর ধরে আমার ওই পুকুরপাড়ে যাইও না। মুরগির ফার্ম শহিদুলের কাছে ১০-১২ বছর ধরে ভাড়া দিয়েছি। ‘আপনার স্ত্রী মুক্তা আক্তার ওই শিশুদের আম পাড়ার জন্য বলেছিল কি-না’ এমন প্রশ্নে তিনি বলেন, আমার স্ত্রী কখনো ঘর থেকে বের হয় না। আমার প্রতিবন্ধী একজন ছেলে আছে তাকে নিয়েই আমার স্ত্রী সারাক্ষণ ব্যস্ত থাকে।

সাটুরিয়া বিদ্যুৎ জোনাল অফিসের ডিজিএম মো. ওবাইদুল্লাহ জানান, মিটার থেকে কেউ এত দূরে বিদ্যুতের লাইন নিতে পারে না। যদি এমন হয়ে থাকে তাহলে এ বিষয়ে আমরা তদন্ত করে আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণ করব।

আরও পড়ুন : নারায়ণগঞ্জে নিজস্ব কার্যালয়হীন ১১ দফতর

এ বিষয়ে কাওয়ালীপাড়া বাজার তদন্ত কেন্দ্রের উপ-পরিদর্শক (এসআই) মজিবর রহমান বলেন, আমরা ঘটনাস্থলে আছি। বিস্তারিত পরে জানাতে পারব। মরদেহ ময়নাতদন্তের জন্য পাঠানো হবে কি-না জানতে চাইলে তিনি বলেন, এখনো নিশ্চিত না।

ওডি/এএম

আপনার চারপাশে ঘটে যাওয়া নানা খবর, খবরের পিছনের খবর সরাসরি দৈনিক অধিকারকে জানাতে ই-মেইল করুন- [email protected] আপনার পাঠানো তথ্যের বস্তুনিষ্ঠতা যাচাই করে আমরা তা প্রকাশ করব।
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত

সম্পাদক: মো: তাজবীর হোসাইন  

সহযোগী সম্পাদক: গোলাম যাকারিয়া

 

সম্পাদকীয় কার্যালয় 

১৪৭/ডি, গ্রীন রোড, ঢাকা-১২১৫।

যোগাযোগ: 02-48118241, +8801907484702 

ই-মেইল: [email protected]

এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, অডিও, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি।

Developed by : অধিকার মিডিয়া লিমিটেড