• বৃহস্পতিবার, ৩০ জুন ২০২২, ১৬ আষাঢ় ১৪২৯  |   ২৮ °সে
  • বেটা ভার্সন
sonargao

কারখানার ভিতরে পোশাক শ্রমিকদের মারধর

  মো. মনোয়ার হোসেন রুবেল, ধামরাই (ঢাকা)

২৩ মে ২০২২, ১৬:১৮
কারখানার ভিতরে পোশাক শ্রমিকদের মারধর
ঢাকার ধামরাইয়ে অডিসি ক্রাফট লিঃ (ছবি : অধিকার)

ঢাকার ধামরাইয়ে পূর্বশত্রুতার জেরে নিসাদ হোসেন নামের (২০) এক যুবকসহ দু’জন শ্রমিককে একটি পোশাক কারখানার ভিতরে মারধর করে সাদা কাগজে স্বাক্ষর নেয়ার অভিযোগ উঠেছে। এ ঘটনায় ওই কারখানার শ্রমিক আরিফুর রহমান বাবু (২২) ও বহিরাগত নিসাদ নামের দু’জন ধামরাই স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে চিকিৎসাধীন রয়েছেন।

শনিবার (২১ মে) বিকালের দিকে ধামরাইয়ের সোমভাগ ইউনিয়নের ফুকুটিয়া এলাকায় অডিসি ক্রাফট লিঃ নামের একটি পোশাক কারখানার ভিতরে এই মারধরের ঘটনা ঘটে।

ভুক্তভোগীরা হলেন- অডিসি ক্রাফট লিঃ পোশাক কারখানার শ্রমিক আরিফুর রহমান বাবু ও মোঃ উজ্জ্বল, জয়পুরা এলাকার মজিবর রহমানের ছেলে মোঃ নিসাদ হোসেন।

অভিযুক্তরা হলেন- অডিসি ক্রাফট লিঃ এর অ্যাডমিন মোঃ আমিন, সোমভাগ ইউনিয়নের ফুকুটিয়া এলাকার ভাষানী (৪০), লুৎফর রহমান (৪৫), জাকির (৩৬), মামুন (৩০)।

জানা যায়, গত বৃহস্পতিবার (১৯ মে) সোমভাগ ইউনিয়ন পরিষদ বাজারের পাশে অডিসি ক্রাফট লিঃ এর কাটিং ইনচার্জ মোঃ সেলিমকে স্থানীয় কয়েকজন বখাটে ছেলে মারধর করে। পরে শনিবার বিকালের দিকে মোঃ সেলিমকে মারধরের অভিযোগে নিসাদ হোসেন নামের ওই যুবককে স্থানীয় কয়েকজন জয়পুরা থেকে গাড়িতে তুলে অডিসি ক্রাফট লিঃ পোশাক কারখানার ভিতরে নিয়ে যায়। পরে তাকে সেখানে বেধড়ক মারধর করে।

এছাড়াও অডিসি ক্রাফট লিঃ এর কাটিং ইনচার্জ মোঃ সেলিমকে মারধরের সাথে জাড়িত থাকার অভিযোগ এনে ওই পোশাক কারখানার শ্রমিক আরিফুর রহমান বাবু ও মোঃ উজ্জ্বলকে মারধর করে। এদের মধ্যে আরিফুর রহমান বাবুর অবস্থা গুরুতর।

ভুক্তভোগী শ্রমিক আরিফুর রহমান বাবু জানান, ওই মারামারির সাথে আমি ছিলাম না। তারপরও আমাকে শুধু শুধু মারধর করলো। আমি কাজ করছিলাম। হঠাৎ সিকিউরিটি দিয়ে ডেকে আমাকে রুমে নিয়ে যায়। রুমে ঢুকতেই আমার কলার ধরে আমাকে বেধড়ক মারধর করে। আমার সারাশরীরে এখনও ব্যথা রয়েছে।

বাবুর বাবা লোকমান হোসেন জানান, আমার ছেলে বলেছে সে ওই মারামারির মধ্যে ছিলো না। কিন্তু তাও আমার ছেলেকে কেন এত মারধর করলো। আমরা কারখানায় যাওয়ার পর সাদা কাগজে আমাদের স্বাক্ষর রেখে আমার ছেলেকে দিয়ে দিয়েছে। পরে বাড়িতে আনার পর দেখি আমার ছেলে গুরুতর অসুস্থ হয়ে গেছে, প্রচুর বমি করছে। তখন সে বলে তাকে মেরেছে। পরে হাসপাতালে ভর্তি করি।

ভুক্তভোগী নিসাদ জানায়, আমাকে জয়পুরা থেকে মেরে একটি মাইক্রোবাসে তুলে নেয়। পরে অডিসির ভিতরে নিয়ে আবারও মারধর করে একটা কাগজে স্বাক্ষর করায়।

কারখানার কাটিং ইনচার্জ মোঃ সেলিমকে মারধরের বিষয়টি স্বীকার করে তিনি বলেন, আমি ওই কারখানায় কাজ করতাম, পরে বাদ দিয়ে দিয়েছি। এখন রাস্তাঘাটে সেলিম ভাই আমাকে দেখলেই আমাকে নিয়ে কটুকথা বলে। সেই কথা আমি আমার কয়েকজন বন্ধুর কাছে শেয়ার করেছিলাম, তারা হয়ত মেরেছে। কিন্তু আমি সেখানে ছিলাম না।

আরও পড়ুন : প্রেম নিবেদন করায় প্রতিবন্ধীকে হত্যা

এ বিষয়ে অডিসি ক্রাফট লিঃ এর অ্যাডমিন মোঃ আমিন বলেন, এটা আপনি যাদের কাছে শুনেছেন, তাদের কাছে থেকে ভালো করে শুনেন। পরে আমার কাছে কিছু জানার থাকলে আমি আপনার সাথে কথা বলবো। ওইখানে দুইজন আমাদের পোশাক শ্রমিক না। একজন আমাদের পোশাক শ্রমিক। আপনি তার কাছ থেকে জানেন। তারপর আপনার সাথে আমি কথা বলবো।

ওডি/এমকেএইচ

আপনার চারপাশে ঘটে যাওয়া নানা খবর, খবরের পিছনের খবর সরাসরি দৈনিক অধিকারকে জানাতে ই-মেইল করুন- [email protected] আপনার পাঠানো তথ্যের বস্তুনিষ্ঠতা যাচাই করে আমরা তা প্রকাশ করব।
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত

সম্পাদক: মো: তাজবীর হোসাইন  

সহযোগী সম্পাদক: গোলাম যাকারিয়া

 

সম্পাদকীয় কার্যালয় 

১৪৭/ডি, গ্রীন রোড, ঢাকা-১২১৫।

যোগাযোগ: 02-48118241, +8801907484702 

ই-মেইল: [email protected]

এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, অডিও, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি।

Developed by : অধিকার মিডিয়া লিমিটেড