• বুধবার, ১৮ মে ২০২২, ৪ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৯  |   ২৮ °সে
  • বেটা ভার্সন
sonargao

ভূমি অফিসের সার্ভেয়ার কামালের খুঁটির জোর কোথায়?

  এম.কামাল উদ্দিন,সিনিয়র স্টাফ রিপোর্টার (রাঙামাটি)

১৪ মে ২০২২, ১৩:৪৫
ভূমি অফিসের সার্ভেয়ার কামালের খুঁটির জোর কোথায়?
ভূমি অফিস । ছবি : অধিকার

রাঙামাটি জেলার লংগদু উপজেলা ভূমি অফিসের সার্ভেয়ার কামালের খুঁটির জোর কোথায়? এমন প্রশ্নের ঘুরপাক খাচ্ছে লংগদুবাসীর মধ্যে। অনেকের প্রশ্ন কামালের অপকর্মের দায়ে বিগত দিনে সাময়িক বরখাস্ত হয়েছিলেন সে। কি ভাবে চাকরি বহাল রইলো এমন জবাব সংশ্লিষ্ট প্রশাসনের কাছে জনগণের।

কামাল দিনে ভূমি অফিসে চাকরি করে,আর সন্ধ্যার পরে তার অস্থায়ী অফিস হিসাবে বাইট্টাপাড়া বাজার জব্বারিয়া কুলিং কর্ণার ওরফে নাছিরের দোকান ও আলামিনের দোকানে ভূমি সিন্ডিকেট চক্রদের লোকজন নিয়ে অবৈধ লেনদেনের হিসাব পত্র করা হয়।

বৃহস্পতিবার সন্ধ্যার পর সরেজমিনে গিয়ে দেখা গেছে। বাইট্টাপাড়া বাজার সংলগ্ন জব্বারিয়া কুলিং কর্ণার ওরফে নাছিরের দোকানে বসাছিল সার্ভেয়ার কামাল ও মালেক, হারুন, ইসলাম, জুব্বা জাকিরসহ ভূমি সিন্ডিকেট চক্রের লোকজন বসে বিশাল আড্ডা জমিয়ে মানুষকে কি ভাবে ফাঁদে ফেলা যায় ওই সব কথা বার্তা বলতে দেখা গেছে। বাজারের লোকজন সর্বদাই কানাঘোষা করছে যে,সার্ভেয়ার কামালের সাথে সিন্ডিকেট চক্রের লোকজন নিয়ে জব্বারিয়া কুলিং কর্ণার ওরফে নাছিরের দোকানে বসে ভূমি সংক্রান্ত বিষয়ে কাকে কি ভাবে চক্রান্তে ফেলে টাকা হাতিয়ে নেওয়া যায় ওই সব আলাপ আলোচনায় ব্যস্ত।

লংগদু সদর ইউপি সাবেক সদস্য নূরুল হকের স্ত্রী নুরু নাহার ও হালিমা বেগম ভুক্তভোগি জানান, ভূমি অফিস দখলে মালেকের, এলজিইডিতে আছেন তার বোন জামাই। হাসপাতালে আছেন ভাতিজি জামাই মিজান ও থানায় আছে মালেকের ভাই আনোয়ার। লংগদু সর্বত্রই তাদের পদচারনায় পদুলিত এলাকার মানুষ। তাদের বিরুদ্ধে লড়তে কেউ সাহস পাচ্ছে না। আমরা দয়া করে একটু বাড়ির জায়গা দিয়েছিলাম। এখন সে জায়গাই হিতে বিপরীত হয়ে দাঁড়িয়েছে। বর্তমানে আমরা স্বামী হারা ২জন স্ত্রী মামলার আসামি হয়ে রাঙামাটি মাসে মাসে হাজিরা দিতে হয়। মালেকের জ্বালা যন্ত্রনায় মানবেতর জীবনযাপন করছি আমরা। মালেকের সাথে জড়িত সার্ভেয়ার কামালসহ সবাই শাস্তি কামনা করছি।

খোঁজ খবর নিয়ে জানা গেছে, সার্ভেয়ার কামাল দীর্ঘ দিন ধরে এখানে কর্মরত আছেন। তার সাথে এখানকার বেশ কিছু অসাধু ভূমিদস্যু যোগশাজসে সিন্ডিকেটের মাধ্যমে ছুত কবলিয়াত বা ভুয়া বন্দোবস্তী দেখাইয়ে স্থানীয় সহজ সরল গরিব অসহায় লোকজনদের ফাঁদে ফেলে নিঃস্বয় করে দেন। মূলতঃ গরিব সহজ সরল অসহায় মানুষ দেখে দেখে টার্গেট করে তারা। আর এ টার্গেট বাস্তবায়ন করেন সার্ভেয়ার কামাল ও মালেকগং।

এ ব্যাপারে সার্ভেয়ার কামালের মুখ থেকে বিস্তারিত জানতে তার অফিসে গেলে এই প্রতিবেদককে পাত্তাই দেননি সার্ভেয়ার কামাল। সে বলে আমি এখন শুনানিতে ব্যস্ত আছি। সন্ধ্যায় সার্ভেয়ার কামালের দেখা মিলল সিন্ডিকেট চক্রের সাথে বাইট্টাপাড়া জব্বারিয়া কুলিং কর্নার ওরফে নাছিরের দোকানে। দেখা গেছে অনেক ব্যস্ত সার্ভেয়ার কামাল অবৈধ লেনদেন নিয়ে।

লংগদু সদর ইউপি চেয়ারম্যান ও মৌজা প্রধান কুলিন মিত্র আদু বলেন, লংগদু সার্ভেয়ার অফিসে পূর্বে অনিয়ম দুর্নীতির সাথে জড়িত ছিল খোরশেদ নামের সার্ভেয়ার আর এখন লংগদু ভূমি অফিসে অনিয়ম দুর্নীতির সাথে জড়িত বর্তমান সার্ভেয়ার কামাল। লংগদুতে ভূমিদস্যুদের সাথে জড়িত মালেকসহ আরও অনেকে। মালেক আমার স্বাক্ষর জালিয়াতি করছে। মালেকের কাজ হলো নামে বেনামে ছুত কবলিয়াত করে মানুষের জায়গা জমি হাতিয়ে নেওয়া। লংগদু সার্ভেয়ার অফিসের কামাল, মালেক, জুব্বা জাকিরসহ একটি ভূমিসদ্যু সিন্ডিকেট চক্র রয়েছে।

তিনি বলেন, তাদের কাজ মানুষকে কি ভাবে বিপদে ফেলাবে। যদি তা না হয় তাহলে সামান্য একজন মালেক রাতারাতি এত সম্পদের মালিক হয় কি করে? আমি প্রশাসনের কাছে দাবি করব এই সব লোকদের যেন লংগদু ভূমি অফিস ও জেলা প্রশাসক কার্যালয়ে ঢুকতে দেওয়া না হয়।

এ ব্যাপারে লংগদু সার্ভেয়ার কামাল হোসেনের সাথে দেখা করতে গেলে তিনি সময় নেই বলে জবাব দেন। পরে ফোনে কথা বলা চেষ্টা করা হলে ফোন রিসিভ করে তবে তথ্য দিতে পারবে না বলে ফোন কেটে দেন।

ওডি/ওএইচ

আপনার চারপাশে ঘটে যাওয়া নানা খবর, খবরের পিছনের খবর সরাসরি দৈনিক অধিকারকে জানাতে ই-মেইল করুন- [email protected] আপনার পাঠানো তথ্যের বস্তুনিষ্ঠতা যাচাই করে আমরা তা প্রকাশ করব।
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত

সম্পাদক: মো: তাজবীর হোসাইন  

সহযোগী সম্পাদক: গোলাম যাকারিয়া

 

সম্পাদকীয় কার্যালয় 

১৪৭/ডি, গ্রীন রোড, ঢাকা-১২১৫।

যোগাযোগ: 02-48118241, +8801907484702 

ই-মেইল: [email protected]

এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, অডিও, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি।

Developed by : অধিকার মিডিয়া লিমিটেড