• শনিবার, ২১ মে ২০২২, ৭ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৯  |   ৩০ °সে
  • বেটা ভার্সন
sonargao

সড়কের বেহাল দশা, ৫ কোটি টাকার কাজ নিয়ে গড়িমসি

  এম.কামাল উদ্দিন,সিনিয়র স্টাফ রিপোর্টার ও গোলামুর রহমান (লংগদু)

০৮ মে ২০২২, ১৪:৩৯
ছবি : দৈনিক অধিকার

রাঙামাটি জেলার প্রত্যন্ত দুর্গম লংগদু টু মাইনী মূখ যোগাযোগ সড়কের বেহাল দশা,যেন দেখার কেউ নেই।

লংগদু (মাইনীমূখ) এখন সরাসরি ঢাকা থেকে চেয়ার কোচ সার্ভিস চালু রয়েছে। এটি একটি গুরুত্বপূর্ণ সড়ক। লংগদু উপজেলার ৭-৮ ইউনিয়নের লোকজন মাইনীমূখ সড়ক দিয়ে যাতায়াত করেন। পাশাপাশি স্কুল ,কলেজ ও মাদ্রাসার শিক্ষার্থীরা চলাফেরা করেন এই সড়ক দিয়ে। ২০২০-২০২১ অর্থ বছরে এ সড়কের কার্যক্রম শুরু হলেও ২০২৩ সালেও শেষ হচ্ছেনা মাইনীমূখ টু লংগদু সড়কের কাজ।

খোজ খবর নিয়ে জানা গেছে,দীর্ঘ ২-৩ বছর ধরে লংগদুবাসী যাতায়াত ও চলাচলে নিদারুন কষ্ট পাচ্ছে তাই তারা সড়ক নির্মাণে কচ্ছপ গতি থেকে বের হয়ে দ্রুত কাজটি সম্পন্ন করতে সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষ, মেইন ঠিকাদার এবং সাব ঠিকাদারের কাছে বিশেষ ভাবে অনুরাধ বর্ষা আসার আগেই মাইনীমূখ টু লংগদু সড়কের কাজ শেষ করা হউক। অন্যথায় লংগদুবাসী আন্দোলনে যেতে বাধ্য হবো। এ সড়ক নির্মাণের বিষয়টি এখন সকলের মুখে মুখে ছড়িয়ে ছিটিয়ে আছে। সবার একটাই দাবি বর্ষার আগে সড়ক নির্মাণ কাজ শেষ করা হউক।

লংগদু উপজেলা এলজিইডি অফিস সূত্রে জানা গেছে, এ সড়কের মূল ঠিকাদার প্রতিষ্ঠান রাঙামাটি মারুম ট্রেডার্স। তবে বর্তমানে সড়কের কাজ করছেন লংগদু উপজেলা চেয়ারম্যান আবদুল বারেক সরকারের ছেলে এরশাদ সরকার, তার পুতরা জুয়েল, উপজেলা আওয়ামী লীগ নেতা ও ঠিকাদার সাইফুল ইসলামের ভাগিনা তুহিন ও সুমন।

মাইনীমূখ ইউনিয়ন পরিষদ নবনির্বাচিত তরুণ চেয়ারম্যান কামাল হোসেন কমল মুঠোফোনে বলেন, দীর্ঘ দিন হলো মাইনীমূখ টু লংগদু রাস্তার কাজটি পড়ে আছে। আমি নতুন চেয়ারম্যান হওয়ার পরে এ ব্যাপারে উপজেলা আইন শৃঙ্খলা সভায় কয়েক বার বলার পরেও কার্যকর ব্যবস্থা নেওয়া হচ্ছে না। এখানে বিভিন্ন অপশক্তি কাজ করছে যার।

কারণে রাস্তার কাজ শেষ করতে দীর্ঘ সময় লাগছে। এখানে মূলত কষ্ট পাচ্ছে সাধারণ মানুষ। আমিও জনগণের সাথে তাল মিলিয়ে বলতে চাই রাস্তার কাজ দ্রুত শেষ করা হউক।

লংগদু উপজেলা প্রকৌশলী (এলজিইডি) ড.জিয়াউল ইসলাম মজুমদার মুঠোফোনে বলেন, মাইনীমূখ টু লংগদু সড়কটি ২০২০-২০২১ অর্থ বছরের কাজ। প্রকল্পটির মূল ঠিকাদার রাঙামাটি মারুম ট্রের্ডাস কাজটি পেয়েছেন। কিন্তু কাজটি করছেন স্থানী লোকজন। আরসিসি, রাস্তার ড্রেন ও ধারক ওয়ালসহ মোট ৫কোটি টাকার কাজ। অর্থের অভাবে কিছু কাজ বন্ধ ছিল। বর্তমানে কাজ চালু হয়েছে। আগামী ডিসেম্বর লাগাত কাজটি শেষ করা হবে বলে জানিয়েছেন ঠিকাদারা। তবে সড়ক নির্মাণে জনগণের ভোগান্তির কথা স্বীকার করেছেন এই কর্মকর্তা।

ওডি/মাহমুদ

আপনার চারপাশে ঘটে যাওয়া নানা খবর, খবরের পিছনের খবর সরাসরি দৈনিক অধিকারকে জানাতে ই-মেইল করুন- [email protected] আপনার পাঠানো তথ্যের বস্তুনিষ্ঠতা যাচাই করে আমরা তা প্রকাশ করব।
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত

সম্পাদক: মো: তাজবীর হোসাইন  

সহযোগী সম্পাদক: গোলাম যাকারিয়া

 

সম্পাদকীয় কার্যালয় 

১৪৭/ডি, গ্রীন রোড, ঢাকা-১২১৫।

যোগাযোগ: 02-48118241, +8801907484702 

ই-মেইল: [email protected]

এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, অডিও, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি।

Developed by : অধিকার মিডিয়া লিমিটেড