• বুধবার, ১৮ মে ২০২২, ৪ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৯  |   ২৯ °সে
  • বেটা ভার্সন
sonargao

ছুটি শেষে ঢাকায় ফিরতে ভোগান্তিতে ট্রেন যাত্রীরা

  নেহাল আহম্মেদ প্রান্ত, আদমদীঘি (বগুড়া)

০৭ মে ২০২২, ১১:৫১
ছবি : দৈনিক অধিকার

প্রিয়জনের সঙ্গে ইদ উদযাপন শেষে রাজধানী ঢাকায় ফিরতে শুরু করেছেন কর্মজীবী মানুষরা। ইদের আগে ঘরে ফেরার মতো এবার ছুটি শেষে ঢাকায় ফিরতে ও পদে পদে ভোগান্তিতে পড়তে হয়েছে ট্রেন যাত্রীদের। বাড়তি ভাড়া গুনতে হচ্ছে আর টিকিটের জন্য যাত্রীদের হাহাকার অবস্থা। অর্থাৎ বাড়ি ফিরতে যেমন ট্রেনের টিকিটের জন্য ঘণ্টার পর ঘণ্টার দীর্ঘ লাইনের দাঁড়িয়ে টিকিট নেওয়ার ভোগান্তি পোহাতে হয় ঠিক একই ভাবে বাড়ি থেকে কর্মস্থলে ফিরতেও সেই একই রকম ভোগান্তিতে পড়তে হয়েছে ট্রেন যাত্রীদের।

সান্তাহার জংশন স্টেশনে ঘুরে দেখা গেছে, ইদের ছুটি শেষ দিন থেকে ঢাকাগামী ট্রেন যাত্রীদের উপচেপড়া ভিড় লক্ষ্য করা গেছে। সান্তাহার রেলওয়ে স্টেশনে যাত্রীরা ঢাকামুখী ট্রেনের ভিড় ছিল দেখার মতো। উত্তরবঙ্গের বিভিন্ন স্টেশনে থেকে সাতটি ট্রেন যাত্রী নিয়ে সান্তাহার হয়ে ঢাকা যাচ্ছে। তার মধ্যে কোনো ট্রেনই নির্ধারিত সময়ে স্টেশনে পৌঁছায়নি। তবে প্রতিটি ট্রেনেই ছিল উপচে পড়া ভিড়। ভিড় ঠেলে নারী-পুরুষ, শিশু-বৃদ্ধ সবাই ব্যস্ত ট্রেনে উঠতে। ইদের ছুটি কাটিয়ে রাজধানী ঢাকায় কর্মস্থলে ফিরতে শুরু করেছে। তবে ট্রেন যাত্রীদের সংখ্যা আসনের চেয়ে দ্বিগুণ যাত্রী ছিল। ইদের সরকারি ছুটির পর থেকে বিভিন্ন সরকারি ও বেসরকারি অফিস খুলেছে।

নওগাঁ থেকে কর্মস্থল ঢাকায় ফেরার পথে সান্তাহার স্টেশনে আলমগীর রহমান বলেন, ইদের সময় ঢাকা থেকে ট্রেনে আসতে যে ধরনের দুর্ভোগ পোহাতে হয়েছিল ঠিক গ্রাম থেকে ঢাকা ফিরতেও তার ব্যতিক্রম হয়নি। রংপুর এক্সপ্রেস ট্রেনে সান্তাহার আসি। তবে নির্ধারিত সময়ের চেয়ে ৩ ঘণ্টা দেরি করে স্টেশনে পৌঁছেছে ট্রেনটি। তার ওপর ট্রেনে যাত্রীদের অধিক চাপ। গরমে হাঁসফাঁস করার মতো অবস্থা। ট্রেনের আসন সংখ্যার তুলনায় দাঁড়ানো যাত্রী বেশি থাকার ফলে অনেক দুর্ভোগ পোহাতে হয়েছে।

পঞ্চগড় এক্সপ্রেসের যাত্রী সুর্বনা আক্তার বলেন, নারী যাত্রী হিসেবে পরিবার-পরিজন নিয়ে একটু নির্বিঘ্নে যাত্রা করার জন্য ট্রেনকে বেছে নিয়েছিলাম। কিন্তু ট্রেন পথে বিভিন্ন দুর্ভোগের পর অবশেষে আবারও ঢাকায় যাত্রা করছি। নির্ধারিত সময়ের চেয়ে দেরিতে ট্রেন আসছে, প্রতিটা স্টেশনেই বেশিক্ষণ বিরতির ফলে নির্ধারিত সময়ের ছেয়ে কয়েক ঘণ্টা বিলম্বে স্টেশনে আসছে ট্রেন।

এ বিষয়ে সান্তাহার রেল স্টেশনের স্টেশন মাস্টার রেজাউল করিম ডালিম বলেন, যে সব যাত্রীরা গ্রামে ইদ করতে গিয়েছিল তারা আবার ঢাকায় ফিরছে। তাই যাত্রীর চাপ বেশি থাকায় এবং যাত্রীদের ট্রেনে ওঠার সুযোগ নিশ্চিত করতে প্রতিটি স্টেশনে একটু বেশি সময় ট্রেন দাঁড়াচ্ছে। এতে কিছুটা দেরি করে ট্রেন আসছে এবং ট্রেন ছেড়ে যাচ্ছে।

ওডি/মাহমুদ

আপনার চারপাশে ঘটে যাওয়া নানা খবর, খবরের পিছনের খবর সরাসরি দৈনিক অধিকারকে জানাতে ই-মেইল করুন- [email protected] আপনার পাঠানো তথ্যের বস্তুনিষ্ঠতা যাচাই করে আমরা তা প্রকাশ করব।
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত

সম্পাদক: মো: তাজবীর হোসাইন  

সহযোগী সম্পাদক: গোলাম যাকারিয়া

 

সম্পাদকীয় কার্যালয় 

১৪৭/ডি, গ্রীন রোড, ঢাকা-১২১৫।

যোগাযোগ: 02-48118241, +8801907484702 

ই-মেইল: [email protected]

এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, অডিও, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি।

Developed by : অধিকার মিডিয়া লিমিটেড