• শনিবার, ২৮ জানুয়ারি ২০২৩, ১৪ মাঘ ১৪২৯  |   ১৭ °সে
  • বেটা ভার্সন
sonargao

সোনারগাঁয়ে অবৈধভাবে কৃষকদের জমি থেকে মাটি উত্তোলন

  নজরুল ইসলাম শুভ,সোনারগাঁ (নারায়ণগঞ্জ)

০৭ মার্চ ২০২২, ১২:৪৬
নারায়ণগঞ্জ
ফসলি জমি মাটি কেটে নেওয়ায় রাস্তা ধসে যাচ্ছে (ছবি : অধিকার)

নারায়ণগঞ্জের সোনারগাঁ উপজেলার ৭ গ্রামের কৃষকদের ফসলি জমির মাটি সন্ত্রাসীরা জোরপূর্বক কেটে নিয়ে বিভিন্ন ইট ভাটায় বিক্রির অভিযোগ পাওয়া গেছে। রাস্তার পাশ থেকে মাটি কেটে নেওয়ার ফলে দুই গ্রামের চলাচলের একমাত্র রাস্তা ধসে যাচ্ছে। এতে দুটি গ্রামের ৬ হাজার মানুষের পুরোপুরি যোগাযোগ বিচ্ছিন্ন হয়ে পড়েছে।

রবিবার (৬ মার্চ) ভ্রাম্যমাণ আদালত ও পুলিশের উপস্থিতিতে বিক্ষুব্দ গ্রামবাসীরা দুটি এক্সেভেটর (মাটি কাটার মেশিন) আগুন দিয়ে পুড়িয়ে দিয়েছে।

স্থানীয় এলাকাবাসিরা জানান, দীর্ঘদিন ধরে মাটি সন্ত্রাসীরা আওয়ামী লীগের কর্মী পরিচয়ে উপজেলার জামপুর ইউনিয়নের কাহেনা, বেলাব, পাকুন্দা, আমবাগসহ ৭ গ্রামের কৃষকদের ফসলি জমির মাটি কেটে তা আশপাশের বিভিন্ন ইট ভাটায় বিক্রি করে দিচ্ছে।

পেরাব গ্রামের বাসিন্দা শামীম মিয়া জানান, স্থানীয় আওয়ামী লীগের কর্মী পরিচয় দিয়ে জামপুর ইউনিয়নের ২ নম্বর ওয়ার্ডের সাবেক সদস্য ছগির আহম্মেদের ছেলে ফয়সাল মিয়া ও তার সহযোগি পেরাব গ্রামের সোয়েব মিয়া, সোলায়মান খন্দকার, সালাউদ্দিন, মোহাম্মদ আলী, আব্দুল মজিদ ও আতাউর রহমানের নেতৃত্বে ২০/২৫ জনের একটি মাটি সন্ত্রাসী গ্রুপ ৭ গ্রামের কৃষকদের জমির মাটি কেটে বিক্রি করে দিচ্ছে।

স্থানীয় বেলাব গ্রামবাসিদের চলাচলের একমাত্র সড়কের পাশের জমি থেকে বেকু (এক্সেভেট) দিয়ে মাটি কেটে জমিটি পুকুরে পরিণত করার সময় সড়কটি ভেঙে যায় ফলে গ্রামবাসিদের চলাচল বন্ধ হয়ে গেছে। অবৈধভাবে ফসলি জমির মাটি কাটা বন্ধ ও সড়ক ভেঙে যাওয়ার প্রতিবাদে গতকাল রবিবার সকাল থেকে ৭ গ্রামের মানুষ একত্রিত হয়ে মাটি সন্ত্রাসীদের বিরুদ্ধে বিক্ষোভ করেন। এসময় বিক্ষোভে অংশ নেওয়া গ্রামবাসিদের মাটি সন্ত্রাসীরা ধাওয়া করেন।

খবর পেয়ে বিকাল ৪টায় উপজেলা সহকারী কমিশনার (ভূমি) গোলাম মুস্তাফা মুন্না পুলিশ নিয়ে বেলাব গ্রামে উপস্থিত হন। এসময় মাটি সন্ত্রাসীরা পুলিশের উপস্থিতি টের পেয়ে এলাকা ছেড়ে পালিয়ে যান। পরে সহকারী কমিশনার (ভূমি) গোলাম মোস্তফা ভ্রাম্যমাণ আদালত বসিয়ে মাটি সন্ত্রাসের সঙ্গে জড়িত থাকার প্রমাণ পেয়ে সোলায়মান খন্দকার নামের এক ব্যক্তিকে তিন মাসের বিনাশ্রম কারাদণ্ড দিয়েছেন।

এদিকে ভ্রাম্যমাণ আদালত ও পুলিশ ঘটনাস্থলে উপস্থিত হওয়ার পর আদালত ও পুলিশের উপস্থিতিতে বিক্ষুব্দ গ্রামবাসিরা। এ সময় অবৈধভাবে মাটি কাটার কাজে ব্যবহৃত দুটি এক্সেভেটর আগুন দিয়ে পুড়িয়ে দেওয়া হয়েছে।

বেলাব গ্রামের বাসিন্দা শাহিন মিয়া জানান, বেলাব গ্রামে ২০টি হিন্দু পরিবার রয়েছে। মাটি সন্ত্রাসীরা হিন্দু পরিবারের মালিকানাধীন জমিগুলো টার্গেট করে অবৈধভাবে মাটি কেটে নিচ্ছে।

নাম প্রকাশ না করার শর্তে হিন্দু সম্প্রদায়ের দুজন নারী জানান, আমরা মাটি সন্ত্রাসীদের কারণে এলাকায় বসবাস করতে ভয় পাচ্ছি। কয়েকটি পরিবার মাটি সন্ত্রাসীদের ভয়ে এলাকা ছেড়ে পালিয়ে বেড়াচ্ছে।

অভিযোগের ব্যাপারে জানতে চাইলে ফয়সাল মিয়া ও সোয়েব মিয়া জানান, আমরা কৃষকদের কাছ থেকে মাটি কিনে বিক্রি করি এতে দোষের কি আছে? সন্ত্রাসী কোনো কাজের সঙ্গে আমরা জড়িত নই।

উপজেলা আওয়ামী লীগের আহবায়ক সামছুল ইসলাম ভুঁইয়া জানান, দলীয় প্রভাব খাটিয়ে কিছু ব্যক্তি ওই এলাকায় কৃষকদের জমির মাটি কেটে নিয়ে যাওয়ার খবর পেয়ে তাদের বিরুদ্ধে আইনানুগ ব্যবস্থা নেওয়ার জন্য প্রশাসনকে অনুরোধ জানিয়েছি।

ভ্রাম্যমাণ আদালত পরিচালনাকারী উপজেলা সহকারী কমিশনার (ভূমি) গোলাম মুস্তাফা মুন্না জানান, কৃষকদের ফসলি জমির মাটি কাটার প্রমাণ পেয়েছি। আমরা ভ্রাম্যমাণ আদালত পরিচালনা করা অব্যাহত রাখব।

ওডি/এফই

আপনার চারপাশে ঘটে যাওয়া নানা খবর, খবরের পিছনের খবর সরাসরি দৈনিক অধিকারকে জানাতে ই-মেইল করুন- [email protected] আপনার পাঠানো তথ্যের বস্তুনিষ্ঠতা যাচাই করে আমরা তা প্রকাশ করব।
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত

নির্বাহী সম্পাদক: গোলাম যাকারিয়া

 

সম্পাদকীয় কার্যালয় 

১৪৭/ডি, গ্রীন রোড, ঢাকা-১২১৫।

যোগাযোগ: 02-48118243, +8801907484702 

ই-মেইল: [email protected]

এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, অডিও, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি।

Developed by : অধিকার মিডিয়া লিমিটেড